করো’না গ্রাসে এবার বিশ্বের ত্রাস কু’খ্যাত আন্ডারওয়ার্ল্ড ডন দাউদ ইব্রাহিম‌ও। আক্রা’ন্ত স্ত্রী মেহজাবিন‌ও। এছাড়াও করো’না সংক্র’মিত হয়েছেন তার ব্য’ক্তিগত দে’হরক্ষী ও ক’র্মী রাও। এই ঘ’টনার পর দাউদের গা’র্ডস আর অন্যান্য স্টাফদের কোয়ারেন্টাইনে পা’ঠানো হয়েছে।

ভারতীয় মিডিয়ার দা’বি, দাদাউদ আর দাউদের আ’নন্দ করাচির মিলিটারি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছিল। যদিওএ বি’ষয়ে মুখে কুলুপ এঁটেছে পাকিস্তান স’রকার। অ’পরাধ জগতের বেতাজ বাদশা তিনি।

মুম্বাই ধারাবাহিক বি’স্ফো’রণ-সহ একাধিক না’শকতার স’ঙ্গে যুক্ত সেই কু’খ্যাত ডনকে ছুঁতেও পারেনি ভারতের দুঁদে গো’য়েন্দারা।

সেই ত্রাস দাউদ ইব্রাহিমকে কিনা কাবু করেছে করো’না ভা’ইরাস! সস্ত্রীক কোভিড পজিটিভ মুম্বাই বি’স্ফো’রণের মাস্টার মাইন্ড। পাকিস্তান স’রকারের সূত্র উদ্ধৃত করে এক ইংরাজি সংবাদমাধ্যম দা’বি করেছে এই খবর। আর তাতেই শোরগোল পড়েছে অ’পরাধ জগতে।

শ’রীরে যে ভিটামিন কম থাকলে দ্রু’ত সুযোগ নিচ্ছে ক’রোনা ভাই’রাস!
প্রা’ণঘা’তী ক’রোনা ভাই’রাসে দিশেহা’রা হয়ে পড়েছে গোটা বিশ্ব। এই ভাই’রাসের তা’ণ্ডবে মৃ’ত্যুপুরীতে পরিণত হয়েছে বিশ্বের সবচেয় ক্ষ’মতাধর রাষ্ট্র আমেরিকা ও ইউরোপের দেশ ইতালি, স্পেন, ব্রিটেন ও ফ্রান্স।

ইউরোপের দেশগুলোতে ক’রোনা বেশি সংখ্যক মানুষের মৃ’ত্যু এবং জনগণের শ’রীরে কম পরিমাণ ভিটামিন ডি থাকার মধ্যে একটি স’ম্পর্ক পাওয়া গেছে নতুন এক গ’বেষ’ণায়।

ইংল্যান্ডের ক্যামব্রিজে অবস্থিত অ্যাঙলিয়া রাসকিন ইউনিভার্সিটির গবেষক ডা. লি স্মিথ এবং কুইন এলিজাবেথ হসপিটালের ডা. পিটার ক্রিস্টিয়ান ইলি এ ব্যাপারে গ’বেষ’ণা করেন। এজিং ক্লিনিক্যাল অ্যান্ড এক্সপেরিমেন্টাল জার্নালে তাদের গ’বেষ’ণার ফল প্রকাশ করা হয়েছে।

তাতে বলা হয়েছে, শ’রীরে ভিটামিন ডি কম থাকার কারণে দ্রু’ত ভাই’রাসের দ্বারা আক্রা’ন্তের শ’ঙ্কা থাকে। শ্বেত র’ক্ত কণিকা প্রা’ণবন্ত করে তোলার কাজ করে ভিটামিন ডি। কিন্তু শ’রীরে এর মাত্রা কম থাকলে ভাই’রাস দ্রু’ত সং’ক্র’মণ ঘটায়।

ক’রোনা ভাই’রাস মূ’লত রো’গীদের শ’রীরে ভিটামিন ডি এর পরিমাণ কম থাকার সুযোগ নিচ্ছে।

ইতালি এবং স্পেনে ক’রোনা ভাই’রাসে মৃ’ত্যুর হার বেশি। এই গ’বেষ’ণায় দেখা গেছে, উত্তর ইউরোপের দেশগুলোর মধ্যে ওই দুই দেশের মানুষের শ’রীরে ভিটামিন ডি এর পরিমাণ কম। কারণ, হিসেবে গবেষকরা উল্লেখ করেছেন, সেসব দেশে ব’য়স্ক ব্যক্তিরা সূর্যের আলোতে সেভাবে থাকতে চান না। সে কারণে প্রাকৃতিক ভিটামিন ডি থেকে তারা ব’ঞ্চিত হন।

সূর্যের আলোতে থাকতে অনী’হার কারণে শ’রীরে গড় ভিটামিন ডি সেসব দেশের মানুষের কম। ডা. লি স্মিথ বলেন, ইউরোপের ২০টি দেশে আমরা পরিসংখ্যান চা’লিয়ে দেখেছি, যারা ক’রোনা ভাই’রাসে আ’ক্রান্ত হয়ে মা’রা যাচ্ছে, তাদের শ’রীরে ভিটামিন ডি কম।

তিনি আরও বলেন, ভিটামিন ডি পারে ক’রোনা সং’ক্র’মণ থেকে রক্ষা করতে। যাদের শ’রীরে ভিটামিন ডি এর উপস্থিতি কম, ক’রোনা আক্রা’ন্ত হলে তাদের পরি’স্থিতি জটিল হয়ে যাচ্ছে।

যারা গু’রুতর আক্রা’ন্ত অবস্থায় চিকিৎসা নিচ্ছে, তাদেরও ভিটামিন ডি এর অভাব দেখা যাচ্ছে। সূত্র: এআরইউ, টুডে, মেডিকেল নিউজ টুডে

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here