ক’রোনাভা’ইরাসের এ অ’সময়ে স্বা’স্থ্য প’রামর্শের যেন অভাব পড়ছে না। তবে দু’র্ভাগ্যবশত সত্যটা হল এগুলোর ভে’তরে সিং’হভাগই ভু’য়া। কারণ এখন পর্যন্ত এর কোনও প্র’তিষেধক বের হয়নি।

ক’রোনার শুরু থেকেই এটা ঠে’কাতে নানা ধরণের স্বা’স্থ্য পরামর্শ দেখা যাচ্ছে- যেগুলো প্রায়ই হয় অ’প্রয়োজনীয় নয়তো বি’পজ্জ’নক। বিবিসির এক প্রতিবেদনে কিছু ভু’য়া স্বা’স্থ্য পরামর্শ এড়িয়ে চলতে বলা হয়েছে-

রসুন: ফেসবুকে এমন অসংখ্য পোস্ট দেখা গেছে যেখানে লেখা- যদি রসুন খাওয়া যায় তাহলে সং’ক্রমণ প্রতিরোধ করা সম্ভব। বিশ্ব স্বা’স্থ্য সং’স্থা বলছে “যদিও রসুন একটা স্বা’স্থ্যকর খাবার এবং এটাতে এ’ন্টিমাই’ক্রোবিয়াল আছে” কিন্তু এমন কোনও ত’থ্য প্রমাণ নেই যে রসুন নতুন ক’রোনাভা’ইরাস থেকে মানুষকে রক্ষা করতে পারে।

অলৌকিক সমাধান: জর’ডান সাথের হলেন একজন ইউটিউবার, বিভিন্ন প্ল্যাটফর্মে তার রয়েছে হাজার হাজার অনুসারী। তিনি দাবি করছেন যে “একটা অলৌকিক খনিজ পদার্থ” যাকে এমএমএস নামে ডাকা হয় সেটা দিয়ে এই ক’রোনাভা’ইরাস একেবারে দূর করা সম্ভব।

রূপার পানি: ক’লোই’ডিয়াল সিলভার মূ’লত এমন পানি যেখানে রুপার ক্ষু’দ্র কণিকা মেশানো থাকে। মা’র্কিন টেলি-ই’ভানজে’লিস্ট ধ’র্মপ্রচারক জিম বেকার এই জল ব্যবহারের প’রামর্শ দিয়েছেন।

তার অনুষ্ঠানে এক অতিথি দাবি করেন যে এই পানি কয়েক ধরণের ক’রোনাভা’ইরাস মে’রে ফেলতে স’ক্ষম। অবশ্য তিনি স্বী’কার করেন যে কো’ভিড-১৯ এর ও’পর এটা পরীক্ষা করে দেখা হয়নি।

১৫ মিনিট অন্তর পানিপান: ফেসবুকের একটি অ্যাকাউন্ট থেকে এক পোস্টে একজন ‘জাপানি ডাক্তার’কে উ’দ্ধৃত করে বলা হয়েছে, ক’রোনাভা’ইরাসের জী’বাণু মুখের মধ্যে ঢুকে পড়লেও প্রতি ১৫ মিনিট পর পর পানি খেলে তা দে’হ থেকে বের হয়ে যায়।

এই পো’স্টের একটি আরবি ভার্সন ২৫০,০০০ বার শেয়ার হয়েছে। কিন্তু লন্ডন স্কুল অব হাইজিন এন্ড ট্র’পিক্যাল মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক স্যালি ব্লু’মফিল্ড বলেছেন, এই দাবির পক্ষে সত্যিই কোনও প্রমাণ নেই।

তা’পমাত্রা ও আ’ইসক্রিম পরিহার: গরমে এই ভা’ইরাস ম’রে যায় বলে সোশাল মিডিয়াতে অনেক ধরনের পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। গরম পানি পান করা, গরম পানিতে গোসল করা, এমনকি হে’য়ার’ড্রায়ার ব্যব’হারেরও সুপারিশ করা হচ্ছে। কিন্তু ইউনিসেফ বলছে, এটা স্রেফ ভু’য়া খবর। ‘ফ্লু ভা’ইরাস মান’বদে’হের বাইরে বেঁচে থাকতে পারে না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here