নিজের ছেলে কিংবা মেয়ে বড় হওয়ার পর তাকে দেখেশুনে বিয়ে দেয়ার স্বপ্ন থাকে সব মা-বাবারই। একই রকম স্বপ্ন ছিল অ্যান্ডি বার্নার্ডেরও (৩১)। নিজের ১৬ মাস বয়সী মেয়ে পপি মাই বড় হওয়ার পর তাকে দেখেশুনে বিয়ে দেয়ার স্বপ্ন ছিল তার। তবে এর মধ্যে ঘটে বসলো মর্মান্তিক এক দুর্ঘটনা।

চিকিৎসক জানালেন, তার মেয়ে ব্রেইন টিউমারে আক্রান্ত। বেঁচে থাকবে আর মাত্র দুই দিন। মেয়েকে বিয়ে দেয়ার প্রতিশ্রুতি পূরণ করতে চাইলেন বার্নার্ড। কিন্তু কে বিয়ে করবে এই মেয়েকে।

শেষ পর্যন্ত সিদ্ধান্ত নিলেন নিজেই বিয়ে করে মেয়েকে দেয়া প্রতিশ্রুতি রক্ষা করবেন তিনি।সহকর্মীরা তড়িঘড়ি করে বিয়ের ব্যবস্থা করলেন।

নিরানন্দ একটি ‘বিয়ে’ সম্পন্ন হলো বার্নার্ড আর পপির। পপিকে কনের সাজে সাজিয়ে দিলেন মা সাম্মি বার্নার্ড (২৯), বড় ভাই রাইল (৬) এবং জেনসন (৪)। বার্নার্ড বলেন, ‘পপির জন্মের পর থেকেই আমি তাকে বলতাম, একদিন অনেক জাকজমক করে বিয়ে দেবো তার। কিন্তু এমনটা ঘটবে কখনো ভাবিনি।

জানালেন, আর বেঁচে থাকার সম্ভাবনা নেই পপির। মাত্র দুদিন বেঁচে থাকবে সে। তাই তড়িঘড়ি করে তার বাবা সিদ্ধান্ত নিলেন মেয়েকে দেয়া প্রতিশ্রুতি পালন করতে। বিয়ের দিন অনেক কষ্টে জাগিয়ে রাখা হয় পপিকে। বারবার বাবার কাঁধে ঘুমিয়ে পড়ছিল সে। পপির মা সাম্মি বলেন, ‘আমি একটা পরী জন্ম দিয়েছিলাম। কিন্তু সে আজ আমার কাছ থেকে হারিয়ে যাচ্ছে। আমি চাই মানুষ পপিকে মনে রাখুক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here