বরগুনার বামনা উপজে’লার খোলপটুয়া গ্রামে বিডিআর সদস্য মো. রাজিব হোসেন খান (২৪) এর বাড়িতে বিয়ের দাবিতে অ’নশন করেছে প্রে’মিকা।

প্রায় ২২ ঘণ্টা পরে বামনা থানা পু’লিশের মাধ্যমে উভ’য় পক্ষের সমঝোতায় ওই প্রে’মিকাকে তার পরিবারের কাছে তুলে দেওয়া হয়। তবে এ ঘ’টনায় প্রে’মিকার মা বামনা থানায় একটি অভিযোগ দা’য়ের করেন।গতকাল সোমবার সন্ধ্যা ৬টায় ওই না’রী তার প্রে’মিক বিডিআর সদস্য

রাজিব হোসেন এর বাড়িতে গিয়ে বিয়ের দাবি করেন এবং সেখানেই সারারাত না খেয়ে অ’নশন শুরু করেন। প্রে’মিকা বাড়িতে আসার সাথে সাথে ওই বিডিআর সদস্য বাড়ি থেকে পা’লিয়ে যান।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে পু’লিশ ওই বাড়িতে গিয়ে প্রমিকাকে বামনায় থানায় নিয়ে আসেন। সেখানে বিভিন্ন প্রকার জি’জ্ঞাসাবাদ শেষে ২২ ঘণ্টা পরে পু’লিশ কৌশলে তাকে তাঁর পরিবারের কাছে তুলে দেয়।

শেষের স্বা’মীর ঘর করতে পারি। এর পর থেকে সে আমার সাথে ফোনে ও সরাসরি বিয়ের প্রস্তাব দেয়। আমি রাজি হই। তবে আজ নয় কাল বলে সে আমাকে ঘুরাতে থাকে।

পরে যখন আমি জানতে পারি রাজিব গো’পনে একটি মে’য়েকে বিয়ে করতে যাচ্ছে তথন আমি প্রেমের দাবী নিয়ে তার বাড়িতে এসে উঠি। ওর কারণে আমার দুটো সংসার ভে’ঙে গেছে। অথচ এখন সে আমাকে বিয়ে করতে চায় না। আমি এর বিচার

চাই। আমি তার সংসার করতে চাই।বিডিআর সদস্য রাজিব হোসেন খানের বাবা মজিবর খান বলেন, মে’য়েটির কয়েকবার বিয়ে হয়েছে। আমার ছেলে যেহেতু একটি ভালো চাকরি করে তাই তাকে ফাঁ’সাতে চায় এই মে’য়েটি।

আমরা কিছুতেই এ মে’য়ের সাথে ছেলেকে বিয়ে দিবো না।এদিকে নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্থানীয় কয়েকজন জানান, মে’য়েটি ছেলে বাড়িতে এলে ছেলের পক্ষের লোকজন পু’লিশকে ম্যানেজ করে

ওই মে’য়েটিকে তার ন্যায্য দাবি থেকে সরে আসতে বা’ধ্য করেছে।বামনা থানার ভারপ্রা’প্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইলিয়াস আলী তালুকদার বলেন, মে’য়ের মা গত সোমবার রাতে একটি অভিযোগ দিয়েছে। যেহেতু মে’য়েটির প্রে’মিক বর্তমানে প’লাতক তাই তাকে খুঁজে পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নিবো। আপাদত মে’য়েটিকে তার পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here