সারাদেশঃ পিরোজপুরের নাজিরপুরে যৌ’তুকের জন্য রহিমা বেগম (৩০) নামে এক গৃহব’ধু কে আ’গুন দিয়ে পু’ড়িয়ে হ’ত্যা করার অ’ভিযোগ উঠেছে।

মঙ্গলবার সকালে চি’কিৎসাধীন অবস্থায় গোপালগঞ্জ হাসপাতালে তিনি মা’রা যান। তার ভাই মোঃ হাসান শেখ বলেন, ৬ বছর আগে মঠবাড়িয়া উপজে’লার ইমাম হোসেনের স’ঙ্গে রহিমার বিয়ে হয়।

বিয়ের পর থেকেই তার স্বা’মী যৌ’তুকের জন্য মা’রাধর করতো। ১১জুন সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় যৌ’তুকের জন্য আবারও চা’প দিচ্ছিল। রহিমা টাকা দিতে অস্বী’কার করলে তাকে মা’রধর করে।

পরে তার শাড়িতে আ’গুন ধরিয়ে দেয়া হয়। পরে স্থানীয়রা তাকে উ’দ্ধার করে প্রথমে মঠবাড়িয়া উপজে’লা স্বা’স্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here