নয়া দিল্লীঃ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi) শুক্রবার আচমকাই লাদাখ (Ladakh) সফরে যান আর সেখানে তিনি জওয়ানদের সাথে সাক্ষাৎ করে তাদের মনোবল বাড়ান।

এরপর তিনি লেহ-এর হাসপাতালের সফরেও যান সেখানে আ’হত জওয়ানদের সাথে দেখা করেন তিনি। ওনার হাসপাতাল সফর নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়া এবং রাজনৈতিক মঞ্চে ব্যাপক সমালোচনার ঝড় উঠেছে।

আর সেই ঝড়কে থামাতে প্রতিরক্ষা মন্ত্রালয় এবং সে’নার তরফ থেকে বয়ান জারি করা হয়েছে। দুই তরফ থেকে জারি বয়ান অনুযায়ী, ‘৩রা জুলাই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী লেহ-এর হাসপাতালে যান আর সেখানে আ’হত সে’না জওয়ানদের সাথে সাক্ষাৎ করেন।

এরপর থেকেই ওনার বি’রুদ্ধে ভিত্তিহীন অভিযোগ করা হচ্ছে। আমরা স্পষ্ট জানিয়ে দিতে চাই যে, প্রধানমন্ত্রী মোদী যেখানে আ’হত জওয়ানদের সাথে সাক্ষাৎ করেন, সেটি হাসপাতালেরই অংশ।”

প্রতিরক্ষা মন্ত্রালয় থেকে জানানো হয় যে, গালওয়ান উপত্যকায় চীনের সাথে হওয়া সং’ঘর্ষে আ’হত জওয়ানদের এখানে রাখা হয়েছিল। আর তাঁর প্রধান কারণ হল, গোটা হাসপাতাল ক’রোনার চিকিৎসার জন্য ব্যবহৃত হচ্ছে।

আর এই জওয়ানদের ক’রোনা ওয়ার্ড থেকে দূরে রাখার জন্যই এখানে আনা হয়েছে। সে’না প্রধান এমএম নরবানে আর সে’না কম্যান্ডারও এখানে এসেই আ’হত জওয়ানদের সাথে সাক্ষাৎ করেন।

আপনাদের জানিয়ে দিই, লেহ-তে সে’নার এই হাসপাতাল ১৯৬২ এর আগে থেকেই আছে। সেখানে ৩০০ টি বেডের ব্যবস্থা ছিল।

বাকি হাসপাতাল ক’রোনার রো’গীদের জন্য ব্যবহার হওয়ার কারণে হাসপাতালের কনফারেন্স রুমকে আ’হত জওয়ানদের জন্য ব্যবহার করা হয়। সেখানে নতুন করে ১০০ টি বেডের ব্যবস্থা করা হয়। আর এই কনফারেন্স রুমেই জওয়ানদের রাখা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here