মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পু’লিশ বাহিনীকে জনগণের পু’লিশ হিসেবে নিজেদের প্রতিষ্ঠা করার নির্দেশ দিয়েছেন । প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ বাস্তবায়ন এবং পু’লিশকে জনগণের প্রথম ভরসার জায়গায় নেওয়ার প্রত্যয় জানিয়েছেন ময়মনসিংহ রেঞ্জের এডিশনাল ডিআইজি ড. মো: আক্কাছ উদ্দিন ভূইয়া ।

এক সাক্ষাতকারে এডিশনাল ডিআইজি ড. মো: আক্কাছ উদ্দিন ভূইয়া বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী পু’লিশ বাহিনীর সদস্যদের আরও জনবান্ধব হওয়ার নির্দেশ দিয়ে বলেছেন, আসলে পু’লিশকে জনতারই হতে হবে, জনগণ যেন আস্থা পায়, বিশ্বাস পায় এবং পু’লিশের কাছে দাঁড়াতে পারে।

এডিশনাল ডিআইজি ড. মো: আক্কাছ উদ্দিন ভূইয়া বলেন, ময়মনসিংহ রেঞ্জের মাননীয় রেঞ্জ ডিআইজি ব্যারিস্টার হারুন-অর রশিদের নির্দেশনায় পু’লিশকে মানুষের প্রথম ভরসাস্থল করতে চাই । রেঞ্জে দু’র্নীতিমুক্ত সেইসাথে দক্ষ ও মানবিক পু’লিশ দেখতে চাই । ময়মনসিংহ রেঞ্জের পু’লিশকে প্রযুক্তি নির্ভর, আধুনিক ও স্মার্ট পু’লিশ হিসেবে গড়তে চাই।

ক’রোনা ভাই’রাস বিস্তার ঠে’কাতে চলমান লকডাউন যথাযথভাবে বাস্তবায়নের ও’পর গুরুত্ব আরোপ করেন ড. মো: আক্কাছ উদ্দিন ভূইয়া । একান্তই জরুরি প্রয়োজন ছাড়া মানুষের চলাচল সীমিত করতে হবে বলেন তিনি।

ড. মো: আক্কাছ উদ্দিন ভূইয়া বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী পু’লিশের প্রতি আগে মানুষের যে অনীহা ছিল সেটা এখন আর নেই। বরং পু’লিশের প্রতি মানুষের আস্থা ও বিশ্বাস বেড়েছে বলেন । আমরাও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে দেখাতে আসলে পু’লিশকে জনতারই হতে হবে, জনগণ যেন আস্থা পায়, বিশ্বাস পায় এবং পু’লিশের কাছে দাঁড়াতে পারে। আমরা মানুষের স্বপ্নের পু’লিশ হতে চাই। বাংলাদেশ যেভাবে এগিয়ে যাচ্ছে, প্রধানমন্ত্রী যেভাবে বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন, ২০৪১ সালে আমরা যে বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখছি, সে উন্নত বাংলাদেশের আমরাই হব উন্নত পু’লিশ।

ড. মো: আক্কাছ উদ্দিন ভূইয়া বলেন, মাননীয় স্ব’রা’ষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন বলেছেন, পু’লিশ হোক আর সাধারণ মানুষ হোক সকলেই আইনের কাছে সমান। তাই পু’লিশের বি’রুদ্ধে কোন অভিযোগ পেলে তাদের বি’রুদ্ধেও ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। এবি’ষয়টি পু’লিশের মাথায় রাখতে হবে । মাননীয় স্ব’রা’ষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, মা’দকের কুফল সম্প’র্কে গণসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে।

মা’দককে না বলুন। মা’দক শুধু ব্যক্তিকে ধ্বং’স করে না, পরিবারকেও ধ্বং’স করে দেয়। মা’দক সেবনকারি তার পিতা-মাতাকেও হ’ত্যা করে। আর কোন মা’দকাসক্ত ঐশি যেন তার পিতা-মাতাকে খু’ন করতে না পারে, সেলক্ষ্যে মা’দকের বি’রুদ্ধে ময়মনসিংহ রেঞ্জ পু’লিশ জিরো টলারেন্স ঘোষণা করা হয়েছে জানিয়ে ড. মো: আক্কাছ উদ্দিন ভূইয়া বলেন, মা’দক ব্যবসায়ী ও মা’দকসেবী কাউকেই কোনোরূপ ছাড় দেয়া হবে না।

তবে আইন প্রয়োগ করতে গিয়ে অযথা কোনো নিরপরাধ মানুষ যেন হ’য়রানির শি’কার না হয়, সে বি’ষয়েও রেঞ্জ পু’লিশকে সজাগ থাকতে হবে। মা’দক সংশ্লিষ্ট ও তদবির বাজদের আইনের আওতায় আনা হবে । ময়মনসিংহ রেঞ্জে মা’দক বিক্রি করতে দেয়া হবে না । শীর্ষ মা’দক ব্যবসায়ীদের গ্রে’প্তার করা হয়েছে । এবং গ্রে’ফতারের আওতায় আনা হবে ।

ময়মনসিংহ রেঞ্জে ৯৫ ভাগ মা’দক কমেছে । রেঞ্জের সকল পু’লিশ অফিসারদের কম্পিউটার ও ল্যাবটপ পরিচালনায় দক্ষ থাকতে হবে । সেলক্ষ বাস্তবায়নে তাদেরকে প্রশিক্ষণ দেয়া হচ্ছে । আমাদের প্রথম চ্যালেঞ্জ মা’দকের বি’রুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতির বাস্তবায়ন। আমরা মা’দককেও সর্বগ্রাসী হতে দেব না।

পু’লিশ বাহিনীকে জনগণের প্রথম ভরসার জায়গায় নেওয়ার প্রত্যয় জানিয়েছেন মাননীয় মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ। তিনি বলেছেন, দু’র্নীতিমুক্ত পু’লিশ প্রশাসন গড়ে তুলতে চাই।

কোনো পু’লিশ সদস্য অ’বৈধ আয়ের স’ঙ্গে সম্পৃক্ত থাকলে তাকে অবশ্যই বেরিয়ে আসতে হবে। স’রকারি ত্রাণ বিতরণ এবং ও এমএসের চাল বিতরণে যে কোনো অনিয়ম রোধে ভূমিকা রাখবে পু’লিশ। বর্তমানে পু’লিশের অনেক সক্ষ’মতা রয়েছে। এ সক্ষ’মতা কাজে লাগাতে হবে। মাননীয় আইজিপির নির্দেশ বাস্তবায়ন করছে ময়মনসিংহ রেঞ্জ পু’লিশ বলেন এডিশনাল ডিআইজি ড. মো: আক্কাছ উদ্দিন ভূইয়া ।

ড. মো: আক্কাছ উদ্দিন ভূইয়া বলেন, ময়মনসিংহ রেঞ্জ পু’লিশের মাননীয় ডিআইজি ব্যারিস্টার মোঃ হারুন-অর-রশিদ বিপিএম রেঞ্জে যোগদানের পরেই নির্দেশনা দিয়েছেন পু’লিশ যেন জনসাধারণের সাথে ভাল আচরন করে । সেলক্ষে কাজ চলছে । মাননীয় ডিআিইজি ক’রোনা ভাই’রাসের প্রভাবে রেঞ্জের আওতায় সৃষ্ট সং’কট মো’কাবিলায় পু’লিশকে মাঠপর্যায়ে কাজ করার নির্দেশ দিয়েছেন ।

এ অবস্থায় রেঞ্জ পু’লিশ সদস্যদের সাধারণ মানুষের স’ঙ্গে বিনয়ী ও পেশাদার আচরণ বজায় রাখার নির্দেশ দেন । জনজীবন সচল রাখতে চিকিৎসা, ও’ষুধ, নিত্যপণ্য, খাদ্যদ্রব্য, বিদ্যুৎ, ব্যাংকিং ও মোবাইল ফোনসহ আবশ্যক সব জরুরি সেবার স’ঙ্গে সম্পৃক্ত ব্যক্তি ও যানবাহনের অবাধ চলাচল নিশ্চিত করার আহবান জানিয়ে পু’লিশের দায়িত্ব পালনকালে সাধারণ জনগণের স’ঙ্গে বিনয়ী, সহিষ্ণু ও পেশাদার আচরণ বজায় রাখতে নির্দেশ দেন। মাননীয় ডিআইজির নির্দেশ বাস্তবায়ন নিশ্চিত করা হয়েছে ।

মারনব্যাধী ক’রোনা ভাই’রাস আ’ক্রমণে যখন, মানুষ প্রা’ণের ভ’য়ে ঘরের মধ্যে বন্ধ থাকছেন। কাজকর্ম নেই । পেটে খিদে নিয়ে ঘরের বারান্দায় বসে রয়েছেন হতাশ হয়ে। ঠিক সেই সময় ময়মনসিংহ রেঞ্জ পু’লিশ মানুষের দরজায় এসে দাড়িয়েছেন । অ’সহায় দুস্থ:দের মুখে খাবার মুখে তুলে দেয়ার জন্য । অ’সহায়দের বাড়ি বাড়ি গিয়েছেন এখনও যাচ্ছেন ।

লকডাউন ভে’ঙে ঘর থেকে বের না হতে নি’ষেধ করা, কারো যদি ঘরে খাবার না থাকে সাধ্যানুযায়ী তাকে ও তার পরিবারের সদস্যদের সেই সহযোগিতাও দেওয়া হচ্ছে পু’লিশের পক্ষ থেকে। এমন পরিস্থিতিতে হাজারো ভূক্তভোগী পরিবারের কাছে খাদ্য সহায়তা পৌঁছে দিয়েছেন পু’লিশ কর্মকর্তা ও সদস্যরা। দু’র্যোগময় পরিস্থিতিতে অ’সহায় সাধারণ মানুষের জন্য কাজ করছে পু’লিশ সদস্যরা। আর এমন মানবিক আচরণ দিয়েই ক’রোনা ভাই’রাস পরিস্থিতিতে ভে’ঙে পড়া মানুষের মন জয় করার কিছুটা প্রয়াস চলছে।

এডিশনাল ডিআইজি ড. মো: আক্কাছ উদ্দিন ভূইয়া বলেন, ময়মনসিংহ রেঞ্জ পু’লিশে প্রযুক্তি সক্ষ’মতা বাড়ানো হচ্ছে। প্রশিক্ষণের মাধ্যমে যুগোপযোগী ত’থ্যপ্রযুক্তির প্রয়োগ, ত’থ্য ব্যবস্থার আধুনিকায়ন, প্রযুক্তিগত ত’দন্ত ব্যবস্থার প্রসার, এবং অবকাঠামোগত উন্নয়ন কার্যক্রম চলছে।এরই ধারাবাহিকতায় ময়মনসিংহ রেঞ্জের আওতায় কোতয়ালী মডেল থানাসহ সকল থানায় গোলঘর তৈরি করা হয়েছে এবং হচ্ছে । এখানে জি’ডি করতে আসা ব্যক্তিদের কম্পিউটারের মাধ্যমে জি’ডি গ্রহন করা হবে হাতের ছাপ দিয়ে । জিপিআরএস (জেনারেল প্যাকেট রেডিও সার্ভিস) প্রযুক্তির মাধ্যমে যার তদারকি করবে ময়মনসিংহ রেঞ্জ অফিস ।

পরিশেষে, ময়মনসিংহ রেঞ্জ তথা বিভাগ ও রেঞ্জবাসীর কল্যাণে পু’লিশ সদস্যদের নির্ভীক ও নিরলস এই সেবা অব্যাহত রাখতে সকলকে আহবান জানান ড. মো: আক্কাছ উদ্দিন ভূইয়া ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here