ক’রোনা ভাই’রাসের কারণে দীর্ঘ ১১৬ দিন বিরতির পর গত ৮ জুলাই সাউদাম্পটনে ইংল্যান্ড-ওয়েস্ট ইন্ডিজ টেস্ট দিয়ে ক্রিকেট ফিরলো নিজের রুপে। সাউদাম্পটন টেস্টে উইন্ডিজ অধিনায়ক জেসন হোল্ডার তার কেরিয়ারে নতুন অধ্যায়ের সূচনা করলেন। মাঠের পারফরম্যান্সে বেশ কিছু রেকর্ডে নিজের নাম লিখিয়েছেন এই ক্যারিবীয় অলরাউন্ডার।

একটি রেকর্ডে টাইগার অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানকেও ছাড়িয়ে গেছেন তিনি। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম টেস্টে ক্রিকেট ইতিহাসের ষষ্ঠ অধিনায়ক হিসেবে ২০০ উইকে’টের মাইলফলকে নাম লিখিয়েছেন হোল্ডার। এছাড়া প্রথম ইনিংসে ক্যারিয়ার সেরা বোলিং করেন তিনি। ৪২ রানে শি’কার করেন ৬ উইকেট।

অধিনায়ক হিসেবে আরেকটি অসাধারণ কীর্তি গড়েছেন হোল্ডার। সাউদাম্পটন টেস্টের দুই ইনিংসেই ইংলিশ দলপতি বেন স্টোকসের উইকেট নিয়েছেন হোল্ডার। এতে দলপতি হিসেবে তৃতীয়বারের মতো প্রতিপক্ষ অধিনায়কের উইকেট নেয়ার কীর্তি গড়লেন তিনি। এর মাধ্যমে ছাড়িয়ে গেছেন সাকিবকে।

এর আগে অধিনায়ক হিসেবে দুইবার করে প্রতিপক্ষের অধিনায়ককে আউট করেছেন সাকিব। এছাড়া এই রেকর্ডে সাকিবের স’ঙ্গে দুই কিংবদন্তি ক্রিকেটার রিচি বেনো ও গ্যারি সোবার্সের নাম আছে। স্টোকসকে দুইবার সাজঘরে ফিরিয়ে সবাইকে ছাড়িয়ে গেলেন ক্যারিবীয় অধিনায়ক।

দিব্যা ২০১৬ সালে ‘হ্যায় আপনা দিল তো আওয়া’ সিনেমায় অভিনয় করে পরিচিতি পেয়েছেন। এরপর অভিনয় ও মডেলিং সমান তালে চা’লিয়ে যাচ্ছিলেন। কিন্তু ক্যানসার আ’ক্রান্ত হয়ে অকালে তার জীবন প্রদীপ নিভে গেলো।

দিব্যার বোন সৌম্যা অমিশ বর্মা লেখেন, আমি অত্যন্ত দুঃখের স’ঙ্গে জানাচ্ছি আমার বোন দিব্য চৌকসি ক্যানসারের কারণে খুব অল্প ব’য়সে আমাদের ছেড়ে চলে গেছেন। লন্ডন থেকে অভিনয়ের প্রশিক্ষণ নিয়েছিল দিব্যা, মডেল হিসাবেও ও পরিচিত ছিল। তার আত্মার শান্তি কামনা করছি। মৃ’ত্যুর দিন হাসপাতালে থাকার কথা জানিয়ে সবাইকে প্রার্থনা করতে বলেন দিব্যা।

শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করার আগে নিজের শা’রীরিক পরিস্থিতি সম্প’র্কে ইনস্টা স্টোরিতে তিনি লেখেন, ‘আমি কী জানাতে চাই তার জন্য শব্দ যথেষ্ট নয়, কম হবে। গত কয়েকমাস ধরে আমি আত্মগো’পনে, এখন সময় এসেছে সকলকে বি’ষয়টি বলার। আমি অন্তিমশয্যায়। যদিও আমি যথেষ্ট শ’ক্ত। য’ন্ত্রণা মুক্ত আরেকটি জীবন হোক। দয়া করে আর কোনও প্রশ্ন নয়। সৃষ্টিকর্তা জানেন, তোমরা সবাই আমার কাছে কী ছিলে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here