একটু সময় নিয়ে চিন্তা করুন তো, আমরা যে স্বপ্নগুলো দেখি তা কি বিশ্বাস করি? সব হয়তো করি না, কিছু কিছু করি। কারণ, আমরা বুঝতে পারি কোনগুলো বাস্তব হতে পারে আর কোনগুলো পারে না। স্বপ্ন হলো আমাদের অবচেতন মনের ক্রিয়ার ফল।

প্রতিদিন প্রায় ৬৫০০০ চিন্তা মনে আসে আমাদের যার অধিকাংশই নেতিবাচক। শিক্ষাদীক্ষার ছাঁকনি দিয়ে ছেঁকে বেশিরভাগ চিন্তাকেই অবদ’মন করি আমরা যা পরে স্বপ্ন হয়ে ভেসে ওঠে মনের পর্দায়। কতোজন বিশ্বাস করি যে স্বপ্ন পূরণ সম্ভব? খুব কম সংখ্যক,তাই না?

পূরণযোগ্য স্বপ্নগুলোকে পরিচর্যা করলে তা সত্য হওয়া সম্ভব। আসলে আমাদের সংশয় এটি বিশ্বাস করতে বা’ধা দেয়। আমরা কেবল স্বপ্ন দেখেই খালাস, তা পূরণের জন্য পরিশ্রম করার চিন্তাই হয়তো মাথায় আসে না। প্রয়াত বিজ্ঞানী এ পি জে আবুল কালাম বলেছিলেন, ‘স্বপ্ন তা নয় যা ঘুমের মধ্যে দেখা দেয়,স্বপ্ন সেটাই যা ঘুমুতে দেয় না।’

তিনি জীবনের লক্ষ্যকে বলেছেন স্বপ্ন যা জেগে দেখতে হয় এবং পূরণের জন্য কাজ করতে হয়। বেশিরভাগ মানুষেরই এই লক্ষ্য অর্জন হয় না। কারণ, তারা অনিশ্চয়তায় ভোগে,এবং নিজেকে সেভাবে প্রস্তুত করে।

তো চলুন দেখে নেই জীবন বদলে দেয়ার মতো ১০ টি বাক্য।

আমি পারবোঃ
বিশ্বাসই অর্ধেক পথ এগিয়ে দেবে আপনাকে। বিশ্বাস করুন যে আপনি পারবেন, যে বা’ধাই আসুক তা জয় করবেন। আপনি নিজেকে বলুন যে আপনি পারবেন। নিজেকে না বললে বিশ্বাস আসবে না। বিশ্বাসে ঘাটতি থাকলে কোনো কিছুই সম্ভব নয়।

আমি আত্মবিশ্বাসীঃ
আপনি সাফল্যার্জনে আত্মবিশ্বাসী। আপনার আর সাফল্যের মধ্যে একমাত্র সেতু হলো আত্মবিশ্বাস। চারদিকের অস্থিরতা আপনাকে বা’ধা দিতে চাইবে। কিন্তু আত্মবিশ্বাস থাকলে আপনি সাফল্যার্জনে হবেন অপ্রতিরোধ্য।

আত্মবিশ্বাস ছাড়া মানুষ কেবল একটি ফ্রেম ছাড়া কিছু নয়। ফ্রেমটি আপনার কাছে মূ’ল্যবান নাকি ছবিটা? ছবিটা ফ্রেমের মধ্যে রাখলেই তা দৃষ্টিগ্রাহ্য হয়ে উঠবে। তাই নিজেকে আত্মবিশ্বাসী হয়ে উঠতে দিন এবং তা নিজেকে শোনান।

আমি অবশ্যই করবোঃ
অলসতার মতো পচা কিছু নেই। এটি মানুষকে সামনে এগোতে দেয় না। জীবন বহতা নদীর মতো, নদীতে জল আ’টকে থাকে না, বয়ে চলে। তেমনি কাজ করলে জীবনও বয়ে চলবে অনন্তের পানে। কখনো পিছু হটবেন না। নিজেকে বলুন যে আপনি পারবেন এবং করবেন।

আমি নিশ্চিতঃ
যা করবেন তা নিশ্চিত হয়েই করবেন। জেনেশুনে এগোন। না জানাটাই বরঞ্চ ক’ষ্টকর। দ্বিধাকে জীবন থেকে মুছে ফেলুন। দ্বিধার পরিমাণ বেশি হলে কাজটি বাদ দিন। তবে ঝুঁ’কি ছাড়া সফলতা অর্জন অসম্ভব। আপনি যে নিশ্চিত কোনো বি’ষয়ে সেটা নিজেকে বারবার বলুন। সাফল্য ছুটে আসবে।

আমি চাইঃ
নিজের চাওয়াটা জানুন,বুঝুন। সেটি যেনো অন্যের ক্ষ’তি না করে। নিশ্চিত হয়ে গেলে নিজেকে বলুন এবং আপনার দিকে আকর্ষণ করুন। বারবার বললে তা আপনার দিকে আকৃ’ষ্ট হবেই। দৃঢ়ভাবে বলুন ও প্রতিচ্ছবি তৈরি করুন। চাওয়াটি খুব দ্রু’ত পাওয়া হয়ে যাবে।

আমি সবচেয়ে ভালোটিই চাইঃ
কথায় আছে, ‘চাওয়ার মতো করে চাইলে ঈশ্বরকেও পাওয়া যায়।’ যা চান তা যেনো সর্বোত্তম হয়, এটা মনে রাখবেন। তার জন্য কিন্তু সর্বোত্তম পরিশ্রমটুকু দিতে কার্পণ্য করবেন না। ক্রমাগত নিজেকে বলতে থাকুন, সর্বোত্তম জিনিসটিই পেয়ে যাবেন।

আমি সমর্পিতঃ
কোনো কাজের জন্য সমর্পণ সবচেয়ে জরুরী। এর মূ’ল্য অনেক বেশি। আপনার চাওয়াটিকে পাওয়ায় পরিণত করতে চাইলে সমর্পণের দারস্থ হতে হবে। কোনো বা’ধা দমাতে পারবে না আপনাকে। এমন কোনো শ’ক্তি নেই যা কোনো সৎ চাওয়াকে ব্যর্থ করতে পারে।

সময় আছেঃ
সময় নেই বলবেন না কখনো। মানে আপনি যদি কাজটি করতে চান তো সময় স্বল্পতার দোহাই দেবেন না। সময় দেয়া কঠিন কোনো বি’ষয় নয়। দেখু’ন, সফল মানুষেরা কতো শতো কাজ করেন স্বল্প সময়ের মধ্যে। এখানে ই’চ্ছাশ’ক্তি গুরুত্বপূর্ণ, অন্য কিছু নয়। কাজকে সময় দিন, কাজও আপনাকে সুন্দর ফলাফল এনে দেবে।

আমি জানিঃ
‘আমি জানি না’ বাক্যটি কখনো বলবেন না। পরিবর্তে বলুন,’আমি জানি।’ এটি আপনার আত্মবিশ্বাসের পালে হাওয়া লাগাবে। কী জানেন আপনি? আপনি জানেন যে আপনি লক্ষ্যার্জনে সফল হবেন। এটা বিশ্বাস করে প্রতিদিন বারবার নিজেকে বলতে থাকুন।

আমি প্রতিনিয়ত সমৃদ্ধ হচ্ছিঃ
খা’রাপ দোষগুলো ছাড়া আসলে হা’রানোর কিছু নেই। তবে ভালো গুণগুলো অর্জনের যথেষ্ট সুযোগ আছে। ভাবুন,প্রতিদিন ভালোত্ব দিয়ে ভরে উঠছে আপনার জীবন। সেই আ’নন্দ ছড়িয়ে যাচ্ছে সবখানে। অনুভব করুন সমৃদ্ধময় প্রশান্তি। নিজের সাথে কথা বলুন। বলুন আপনি প্রতিনিয়ত সমৃদ্ধ হচ্ছেন।

উপরিউক্ত ১০ টি বাক্য নিয়মিত চর্চা করলে আপনার জীবন বদলে যাবে অবিশ্বাস্যভাবে।বিজ্ঞান বলে যে কোনো কিছু ২১ দিন একটানা করলে তা অভ্যাসে পরিণত হয়ে যাবে।কেমন হয় যদি সফলতাই অভ্যাসে পরিণত হয়ে যায়?

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here