আসছে এপ্রিল। আর এপ্রিল মানেই শুরু হয়ে যাবে গ্রীষ্মের দাপট। এই গরমে ত্বক আর্দ্রতা হারায়। তাছাড়া এই সময় রোদেপোড়া,ব্রণ, ফুস্কুড়ি ইত্যাদির সমস্যাও বেড়ে যায়।

শীতে ত্বকের প্রয়োজন ছিলো প্রচুর পরিমাণে ‘ময়েশ্চারাইজিং’, তবে গরমে ত্বকের যত্ন নিতে অনেক বেশি কুশলী হতে হবে, কারণ সবকিছুই চাইতে সঠিক পরিমাণে। আর্দ্রতা ধরে রাখার পাশাপাশি, সূর্যের ক্ষ’তিকর রশ্মী ও ঘাম থেকে রক্ষা এবং সতেজভাবে ধরে রাখা যথেষ্টই কঠিন একটা কাজ।

তবে ত্বকের যত্ন নিতে আপনাকে পার্লার যাওয়ার কোনো প্রয়োজন নেই। নিয়মিত কয়েকটি বি’ষয় খেয়াল রাখলেই এই গরমেও আপনার ত্বক ভালো থাকবে। তাহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক কি করা উচিত গরমকালে ত্বক ভালো রাখার জন্য।
আজকে এই প্রতিবেদনটি তে আমরা দেখে নেব ৫টি ঘরোয়া উপায়। তো চলুন দেখে নেওয়া যাক-

১. বেশি করে জল পান করুন :

গরমে আমাদের ত্বক ভীষণই গরম হয়ে যায়। তাই শীতকালে আমাদের ত্বক শীতল রাখা প্রয়োজন। ত্বককে শীতল রাখতে শশা দারুন কার্যকরী। শসা কুচিয়ে সেই মিশ্রণ মুখে ভালো ভাবে লাগিয়ে নিন। এরপর সেটি ১৫-২০মিনিট রেখে দিন। তারপর মুখ ধুয়ে ফেলুন।

৩. রোদ এড়িয়ে চলুন:

গ্রীষ্মকালে রোদ কেমন প্রখর হয় তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। এই অতিরিক্ত রোদ আমাদের স্কিনের জন্য ক্ষ’তিকর হয়ে পড়ে। তাই আমাদের উচিত যতটা সম্ভব রোদ এড়িয়ে চলা। তবে আমরা যতই রোদ এড়িয়ে চলার চেষ্টা করি না কেন, গরমে রোদের হাতে রক্ষা পাওয়া অতটা সহজ না। তবে এক্ষেত্রে সপ্তাহে দুই থেকে তিন দিন বেসমের মিশ্রণ ব্যাবহার করা যেতে পারে।

৪. সবসময় ত্বক পরিষ্কার রাখু’ন:

গরমে আমাদের ত্বক অপরিস্কার হয়ে পড়ে। গরমের সময় ত্বক পরিষ্কার রাখার জন্য দিনে কমপক্ষে পাঁচবার জল দিয়ে মুখ পরিষ্কার করতে হবে। ঘন ঘন মুখে জল দেওয়ার ফলে মুখে কোনো রকম খা’রাপ প্রভাব পরে না। এছাড়াও মুখ পরিষ্কার করার জন্য রাত্রে গোলাপ জল ব্যাবহার করা যেতে পারে।

৫. তেলের ব্যাবহার কমান:

ক্যারিয়ার অয়েল’ ও ‘এসেন্সিয়াল অয়েল’ গরমকালে ত্বকের ক্ষ’তি করতে পারে। ‘ক্যারিয়ার অয়েল’ বা বাহক তেল ব্যবহারে ত্বক তৈলাক্ত লাগে এবং ত্বকে নানাধরনের সমস্যা দেখা দেয়। অন্যদিকে, ‘এসেন্সিয়াল অয়েল’ ত্বকের অম্ল-ক্ষারের ভারসাম্য ন’ষ্ট করে। তাই ব্যবহার করতে হবে ‘এসেন্সিয়াল অয়েল’য়েল নির্যাস সমৃদ্ধ জে’ল ভিত্তিক মৃদুমাত্রার ও মানানসই ময়েশ্চারাইজার।

৬. ফেসওয়াস:

গরমে নিজের ত্বক নমনীয় আর উজ্জ্বল রাখতে আমরা বিভিন্ন ফেসওয়াস ব্যাবহার করে থাকি। তবে বাজারে থেকে কেনা প্রোডাক্ট থেকে একটু দূরে থাকাই ভালো। তবে এক্ষেত্রে অবশ্যই ঘরোয়া কিছু উপায়ে ত্বকের যত্ন নিতে হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here