মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে বাংলাদেশ বন্যপ্রা’ণী সেবা ফাউন্ডেশনে বাচ্চা ফোটাল অজগর সাপ। ডিমগুলো থেকে একে একে বেরিয়ে এলো ২৯টি অজগরের বাচ্চা।

বৃহস্পতিবার সকালে সিতেশ বাবুর চিড়িয়াখানাখ্যাত বন্যপ্রা’ণী সেবা ফাউন্ডেশনে এ পর্যন্ত ২৯টি আজগরের বাচ্চা সাপ ডিম থেকে বেরিয়ে আসে। সাপ ভ’য়ঙ্কর হলেও সাপের এ বাচ্চাগুলো একত্রে দেখতে সুন্দর লাগে।

জানা যায়, শ্রীমঙ্গলের পশুপ্রেমী সিতেশ বাবুর হাতে গড়ে ওঠা ‘বাংলাদেশ বন্যপ্রা’ণী সেবা ফাউন্ডেশন’-এ গত ২৮ মে মা আজগর সাপটি ৩১টি ডিম পাড়ে। তারপর দীর্ঘ প্রায় দুই মাস একটানা খাঁচার ভে’তর ডিমে তা দিতে থাকে মা সাপটি।

বৃহস্পতিবার ভোর থেকে এ পর্যন্ত ২৯টি বাচ্চা ফুটেছে এসব ডিম থেকে।

এ বি’ষয়ে বন্যপ্রা’ণী সেবা ফাউন্ডেশনের পরিচালক সজল দেব যুগান্তরকে জানান, মা অজগরটি গত ২৮ মে ৩১টি ডিম দিয়েছিল। দীর্ঘ দুই মাস ডিমে তা দেয়ার পর এ পর্যন্ত ২৯টি বাচ্চা ফুটেছে। বাকি দুটি থেকেও বাচ্চা বেরিয়ে আসবে বলে তিনি আশাবা’দী।

তিনি আরও বলেন, সব বাচ্চা ফোটানোর পর লাউয়াছড়া ও সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানে নিয়ম মেনে বাচ্চাগুলোকে অবমুক্ত করা হবে।

‘বিশ্বকাপ জাহান্নামে যাক, আইপিএলের ক্ষ’তি নয়’, শোয়েবের ক্ষো’ভ

ক’রোনাভা’ইরাসেের কারণে চলতি বছরের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ স্থগিত করে দেওয়ায়, এবং এই সময়ে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) আয়োজনের প্রস্তুতি নেওয়ায় চটেছেন সাবেক পাকিস্তানি পেসার শোয়েব আখতার। এশিয়া কাপ ও বিশ্বকাপ স্থগিত করে কেবল ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের স্বার্থ দেখা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন তিনি।

বিশ্বকাপ স্থগিত হতে যাচ্ছে, এমনটা কয়েকদিন থেকে আভাস দিচ্ছিল খোদ আয়োজক দেশ অস্ট্রেলিয়াও। অবশেষে সোমবার আসে সেই ঘোষণা। এর আগে এশিয়া কাপ টি-টোয়েন্টিও স্থগিত হয়ে যায়।

এক ইউটিউব শোতে হাজির হয়ে পাকিস্তানি গতিতারকার মত এশিয়া কাপ ও বিশ্বকাপ দুটি টুর্নামেন্টই আয়োজন করা উচিত ছিল, ‘অবশ্যই এশিয়া কাপ আয়োজন করা উচিত ছিল। ভারত-পাকিস্তান মুখোমুখি হতে পারত, দারুণ সুযোগ ছিল। কিন্তু না হওয়ার পেছনে অনেক কারণ আছে, বিস্তারিত বলতে চাই না।’

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ স্থগিত করে এই স্লটে আইপিএল হতে যাচ্ছে, এমনটা শোনা গিয়েছিল কয়েকদিন থেকে। বিশ্বকাপ স্থগিতের পরই বিসিসিআই জানিয়ে দেয়, বিশ্বকাপের ওই সময়েই এবারের আইপিএল হতে যাচ্ছে সংযুক্ত আরব আমিরাতে।

শোয়েবের অভিযোগ এতে দেখা হয়েছে কেবল বিসিসিআইর স্বার্থ, ‘টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপও হওয়া দরকার ছিল। কিন্তু আমি আগেই বলেছি, তারা তা হতে দেবে না। বিশ্বকাপ জাহান্নামে যাক, আইপিএলের ক্ষ’তি করা যাবে না। এই হচ্ছে মা’নসিকতা।’

বিশ্বকাপ স্থগিত করা নিয়ে আয়োজক দেশ অস্ট্রেলিয়ার সমালোচনাও করেছেন শোয়েব। আয়োজক বোর্ডের কর্তারাই বিশ্বকাপ স্থগিতের কথা আগেভাগে বলে দিচ্ছিলেন। এতে অজি বোর্ডের নতজানু নীতি দেখতে পেয়েছেন শোয়েব।

ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়াকে তোপ দাগাতে রীতিমতো ২০০৮ সালে ফিরে গিয়েছেন তিনি। সেবার অস্ট্রেলিয়া সফরে গিয়েছিল ভারত। সিরিজের এক ম্যাচে অলরাউন্ডার অ্যান্ড্রু সাইমন্ডসকে ভারতীয় অফ স্পিনার হরভজন সিং ‘বানর’ বলেছিলেন বলে গু’রুতর অভিযোগ উঠে।

বর্ণবাদি মন্তব্যের জন্য হরভজনকে তিন টেস্ট নি’ষিদ্ধও করা হয়। ওই শা’স্তির পর ভারত সিরিজ না খেলেই দেশে ফেরার হু’মকি দিলে বদলে যায় পরিস্থিতি। হরভজন বর্ণবাদি নয়, স্রেফ কটু কথা বলেছিলেন বলে জানায় ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া।

তার শা’স্তিও উঠে যাওয়ায় সিরিজও অব্যাহত থাকে। শোয়েবের তীর তাই ওই ঘ’টনার দিকেও, ‘তারা (ভারত) কখনো মেলবোর্নে সহজ উইকেট পায়, আবার কখনো আরেকজনকে বানর ডেকেও নিস্তার পেয়ে যায়। কারণ সিরিজ বয়কটের হু’মকির ভ’য়। আপনি অস্ট্রেলিয়ানদের বলব কোথায় তোমাদের নৈতিকতা?’

‘তারা বলল, সিরিজ খেলবে না, আর আপনারা ওই ভ’য়ে বলে দিলেন বর্ণবাদি আচরণ হয়নি। এই আপনাদের নীতি? স্টাম্প মাইকে কিছু শুনতে পেলেন না?’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here