ক’রোনাভা’ইরাসেের সং’ক্র’মণ রোধে মাস্ক পরা বা’ধ্যতামূ’লক বলে জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। বাংলাদেশসহ বিশ্বের বহুদেশেই এখন মাস্ক পরা বা’ধ্যতামূ’লক।

তবে মাস্ক সুস্থ মানুষের শা’রীরিক শ’ক্তি হ্রাস করে বলে সাম্প্রতিক এক সমীক্ষায় জানা গেছে। জার্মানির লাইপৎজিশ বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালের বিশেষজ্ঞরা এমন ত’থ্য জানিয়েছেন।

সোমবার প্রকাশিত ওই সমীক্ষায় বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, মাস্ক পরা বা নাক-মুখ ঢেকে রাখা একজন সুস্থ মানুষের শা’রীরিক শ’ক্তি কমিয়ে দিতে ভূমিকা রাখে।

ডয়চে ভেলে জানিয়েছে, বিশেষজ্ঞরা তাদের সমীক্ষা চালাতে দুই ধরনের মাস্ক ব্যবহার করেন– সার্জিক্যাল মাস্ক ও এফএফপি মাস্ক, যা সাধারণত চিকিৎসকরা ব্যবহার করেন।

লাইপৎজিশের চিকিৎসকরা বলেন, এই সমীক্ষাটি কোনোভাবেই সমালোচনা বা মাস্ক পরার বা’ধ্যবাধকতা নিয়ে নয়।

বরং ক’রোনা ম’হামা’রীর বিস্তার রোধে বা কমিয়ে আনতে মাস্ক পরা জরুরি৷ মাস্ক পরে থাকলে একজন সুস্থ মানুষের শা’রীরিক শ’ক্তি ধীরে ধীরে কমে যায় তা এখন বৈজ্ঞানিকভাবে প্রমাণিত হলেও ক’রোনার ভ’য়াবহতার কথা আমাদের বিবেচনায় রাখা উচিত।

বিজ্ঞানীদের সাম্প্রতিক ত’থ্যানুসারে, এই ভাই’রাস বাতাসের মাধ্যমে এবং ক’রোনায় আ’ক্রান্ত ও লক্ষণবিহীন মানুষের মাধ্যমে ছড়াবে সবচাইতে বেশি।

তাই লম্বা সময়ের জন্য মাস্ক পরে থাকা বির’ক্তিকর হলেও সামগ্রিকভাবে মাস্ক পরা ভীষণ জরুরি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here