রংপুরের মিঠাপুকুরে দোকানে চু’রির অভিযোগে তছলিম উদ্দিন নামে এক বৃ’দ্ধ নৈশ প্রহরীকে পি’টিয়ে হ’ত্যার অভিযোগ উঠেছে। পে’টানোর ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে বি’ষয়টি আলোচনায় আসে।

নি’হত তছলিম উদ্দিন মিঠাপুকুর উপজে’লার দুর্গাপুর ইউনিয়নের শীতলগাড়ী গ্রামের মৃ’ত নিজাম উদ্দিনের ছেলে। সে দীর্ঘদিন ধরে শঠিবাড়ি হাটের গালামাল পট্টিতে নৈশ প্রহরী হিসেবে বাজার দেখাশুনা করতেন।

শনিবার (৮ আগস্ট) ভোরে দোকান চু’রির অভিযোগে স্থানীয়রা তাকে গণপি’টুনি দেয়। এতে গু’রুতর আ’হত অবস্থায় ওই নৈশ প্রহরীকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। একই দিন দুপুরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃ’ত্যু হয়। চু’রি ও গণপি’টুনির ঘ’টনায় মিঠাপুকুর থানায় পৃথক দুটি মা’মলা হয়েছে।

পু’লিশ ও স্থানীয় সূত্র জানা গেছে, শনিবার ভোরে মিঠাপুকুর উপজে’লার শঠিবাড়ীহাটে সাহেব আলীর দোকান থেকে মালামাল চু’রির সময় স্থানীয়রা এক চোরকে আ’টক করেন।

পরে গণপি’টুনির খবর পেয়ে পু’লিশ রমজান আলীকে আ’টক করে এবং গু’রুতর আ’হত তসলিমকে রংপুর মেডিকেল হাসপাতালে নেয়া হলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃ’ত্যু হয়।

গতকাল রাতে নৈশ প্রহরী তসলিম উদ্দিনকে দেয়া গণপি’টুনির ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে এলাকাবাসী ঘ’টনার সুষ্ঠু ত’দন্তের দাবি জানান।

একই সাথে আইন হাতে তুলে নিয়ে এভাবে পি’টিয়ে হ’ত্যায় ঘ’টনায় জ’ড়িতদের দৃষ্টান্তমূ’লক শা’স্তির দাবিতে শঠিবাড়ীতে রংপুর-ঢাকা মহাসড়ক অ’বরোধ করে বি’ক্ষো’ভ করেন তারা।

এ ব্যাপারে মিঠাপুকুর থানা পু’লিশের ভারপ্রা’প্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাফর আলী বিশ্বাস জানান, দোকান চু’রির ঘ’টনায় একটি এবং গণপি’টুনিতে নি’হতের ঘ’টনায় পৃথকভাবে দুটি মা’মলা হয়েছে। ইতিমধ্যে তিনজনকে গ্রে’ফতার করা হয়েছে। দুটি মা’মলার ত’দন্ত শুরু করা হয়েছে। আ’সামিদের দ্রু’ত গ্রে’ফতার করা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here