মাল্টিসিস্টেম ইনফ্লেমেটরি সিনড্রোম। ক’রোনাভা’ইরাসেের সাথে সম্প’র্কিত নতুন একটি রো’গ। জ্বর থেকে শুরু হয়ে ৪ সপ্তাহের মধ্যে হৃদযন্ত্র, কিডনিসহ অন্যান্য অর্গান ন’ষ্ট করে দিতে পারে এ রো’গ।

সবচেয়ে বেশি আ’ক্রান্ত শি’শু-কিশোর বয়সীরা। চিকিৎসার আওতায় এসেছে, বাংলাদেশে এমন রো’গীর সংখ্যা এখন ১৫ জন।

জ্বর, পেটে, ব্য’থা ও বমি আর ব’য়স যদি হয় ১৫ এর মধ্যে তাহলে প্রাথমিক ধারণা হতে পারে মাল্টিসিস্টেম ইনফ্লেমেটরি সিনড্রোম।
এ ব্যাপারে এভারকেয়ার হাসপাতালের শি’শু হৃদরো’গ বিশেষজ্ঞ ডা. তাহেরা নাজরীন জানান,

উচ্চমাত্রায় জ্বর থাকে বাচ্চাদের এবং সেটা ১০১ থেকে ১০৫ ডিগ্রি পর্যন্ত হতে পারে। তিন থেকে পাঁচ দিনেই জ্বরের সাথে সাথেই হতে পারে অথবা ধাপে ধাপে কিছু লক্ষণ থাকে। যেমন; সারা গায়ে লাল লাল দানার মতো অথবা বক্তের মতো দাগ থাকতে পারে।

এভারকেয়ার হাসপাতালের শি’শুরো’গ বিশেষজ্ঞ ডা. নুসরাত ফারুক বলেন, ব্লড প্রেসার কমে যাওয়া, শকে চলে যাওয়া, হা’র্টবিট আনস্টেবল হয়ে যাওয়া, হাত পা ঠান্ডা হয়ে যাওয়া, বাচ্চা অজ্ঞান হয়ে যাওয়া ইত্যাদি এই রো’গের সমস্যা দেখা দিতে পারে।

গত ১৫ ও ২৭ মে দুই শি’শুর মধ্যে পাওয়া যায় এই রো’গ। যাদের একজনের মধ্যে একজনের ব’য়স ছিল মাত্র দেড়মাস। রো’গটি ভ’য়াবহ হলেও এর চিকিৎসা দেশেই রয়েছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। ক’রোনার মতোই স্বাস্থ্যবিধি মেনে চালারও পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

শি’শুর শ’রীরে এরকম লক্ষণ দেখা দিলে দ্রু’ত চিকিৎসকের শরণাপন্ন হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন শি’শু হৃদরো’গ বিশেষজ্ঞ ডা. তাহেরা নাজরীন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here