ক’রোনাভা’ইরাসে ম’হামা’রিতে বেকার হয়ে পড়ার মিথ্যা ত’থ্য উল্লেখ করে ভাতা পেতে ৪২ হাজার ২০০ জন আবেদন করেছিলেন নিউইয়র্ক স্টেট লেবার ডিপার্টমেন্টে।

মাথাপিছু গড়ে ৮ শতাধিক ডলার করে পাওয়ার কথা। কিন্তু আইআরএস এবং ডিপার্টমেন্টের ডাটাবেজের সাথে মিলিয়ে দেখার পর এসব ত’থ্য বেরিয়ে আসে।

ফলে প্রায় ১ বিলিয়ন ডলারের প্র’তারণা রোধ করা সম্ভব হয়েছে বলে লেবার বিভাগের পক্ষ থেকে বৃহস্পতিবার জানানো হয়েছে। এসময় আরও বলা হয়েছে,

প্র’তারণার আশ্রয় গ্রহণকারীদের বি’রুদ্ধে যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ করা হচ্ছে। কারণ, এসব প্র’তারকের জন্যে সত্যিকার অর্থেই যারা বেকার, তাদের আবেদন প্রসেসিংয়ে অনেক সময় লেগেছে।

তবে ক’রোনা ম’হামা’রিতে বি’পর্যস্ত এই স্টেটের লোকজনকে স্বল্পতম সময়ে বেকার ভাতা প্রদানের যে লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছিল, সেই সুযোগে দু’র্বৃত্তরা বেকার হওয়ার ভুয়া ত’থ্য উল্লেখ করেছিল। যারা কখনোই কোনো কাজ করেননি-এমন লোকজনের নাম ব্যবহারও করা হয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘আইআরএস-এ ট্যাক্স প্রদানের জাল ডকুমেন্ট সরবরাহও করা হয়েছিল। এমন মনোভাবের লোকজনের জন্যে সত্যি আমরা লজ্জিত ও দুঃখিত।

এরা প্রকৃত অর্থে সং’কটে পড়া লোকজনের বি’পদকে দীর্ঘতর করতে চেয়েছিল। কিন্তু ডিপার্টমেন্টের লোকজন তা কখনো হতে দেয়নি। শিগগিরই জালিয়াতির আশ্রয় গ্রহণকারীদের বি’রুদ্ধে আইনগত প্রক্রিয়া অবলম্বন করা হবে।’

স্টেট গভর্নর অ্যান্ড্রু ক্যুমো বরাবরই বেকার ভাতা গ্রহণে প্র’তারণার আশ্রয় নেওয়াদের হুঁশিয়ার করেছেন। কী কারণে ভাতা প্রদানের প্রক্রিয়া বিলম্বিত হয়েছে, সেটিও উল্লেখ করেছেন।

ক্ষুদ্র ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের জন্যে নামমাত্র সুদে দীর্ঘমেয়াদি ঋ’ণ এবং পুরোনো কর্মচারীদের পুনর্বহালের শর্তে পৃথক আরেকটি কার্যক্রমেও অনেকে মিথ্যা ত’থ্য উল্লেখ করেছেন। ইতিমধ্যেই অনেকে বরাদ্দকৃত অর্থ উত্তোলন করতেও স’ক্ষম হন। এ নিয়েও বিস্তারিত ত’দন্ত চলছে বলে ডিপার্টমেন্ট উল্লেখ করেছে।

এদিকে, ওহাইয়ো স্টেট লেবার ডিপার্টমেন্টের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, প্রতি সপ্তাহে তারা দুইশত মিলিয়ন ডলার করে ইস্যু করেছেন প্র’তারণামূ’লকভাবে বেকার হওয়াদের জন্যে। এ ব্যাপারেও ত’দন্ত শুরু হয়েছে।

এর আগে আরিজোনা, ভার্জিনিয়া, ক্যালিফোর্নিয়া স্টেটেও বেকার ভাতাসহ পিপিপি ঋ’ণের আবেদনেও জালিয়াতির আশ্রয় নেওয়ার জন্যে বেশ কিছু ব্যবসায়ীর বি’রুদ্ধে মা’মলা হয়েছে। কয়েকজনকে গ্রে’ফতার করার ত’থ্যও রয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here