না’রীর ক্ষ’মতায়নে বিভিন্ন পদক্ষেপের অংশ হিসেবে এবার পবিত্র দুই মসজিদ মক্কা ও ম’দিনার পরিচালনা কমিটির ঊর্ধ্বতন পর্যায়ে ১০ জন না’রীকে নিয়োগ দিল সৌদি আরব স’রকার।

মক্কা-ম’দিনার মসজিদ পরিচালনা কর্তৃপক্ষ শনিবার এক বিবৃতি এ সি’দ্ধান্তের কথা জানায়। খবর আরব নিউজের।

পরিচালনা কমিটির ঊর্ধ্বতন পর্যায়ে ১০ না’রী নিয়োগের ব্যাপারে বিবৃতিতে বলা হয়েছে- “গুরুত্বপূর্ণ নেতৃত্বস্থানে না’রীর ক্ষ’মতায়ন গুরুত্বপূর্ণ একটি বি’ষয়। উন্নয়ন এবং অর্থনীতিতে এর প্রভাব প্রতিফলিত হবে।”

সৌদি স’রকার নিয়ন্ত্রিত সংবাদমাধ্যম এসপিএতে বলা হয়েছে, পবিত্র দুই মসজিদের কার্যক্রমে কমিটিতে নিয়োগ পাওয়া না’রীদের অংশগ্রহণ থাকবে। সেসব কার্যক্রম নির্দেশিকা প্রণয়ন, নির্দেশ, প্রকৌশলী, প্রশাসনিক বা তদারকি পরিষেবা যাই হোক না কেন।

জাতীয় শো’ক দিবসের কর্মসূচিতে ওয়াশিংটন ডিসিতে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্ম’দ জিয়াউদ্দিন বলেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হ’ত্যাকাণ্ডে সাজাপ্রা’প্ত খু’নীরা যুক্তরাষ্ট্রসহ বিদেশের মাটিতে লুকিয়ে আছে। আমরা আশ্বস্ত হয়েছি যে যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধুর খু’নীকে শীঘ্রই বাংলাদেশে ফেরত পাঠাবে।

রাষ্ট্রদূত আরও বলেন, ঘা’তকচ’ক্র বঙ্গবন্ধুকে হ’ত্যা করে স্বাধীনতার চেতনা এবং উদ্দেশ্য ‘স্বাধীন গণতান্ত্রিক এবং ধর্মনিরপেক্ষ বাংলাদেশ’কে ধ্বং’স করতে চেয়েছিল। হ’ত্যাকারীরা স্বাধীনতা বি’রোধী শ’ক্তির সাথে হাত মিলিয়ে জেনারেল জিয়ার নেতৃত্বে অ’বৈধভাবে ক্ষ’মতা দ’খল, গণতন্ত্রকে হ’ত্যা এবং হ’ত্যা, সা’মরিক অভ্যুত্থান, ষ’ড়যন্ত্রের রাজনীতি প্রতিষ্ঠা করে।

রাষ্ট্রদূত বলেন, জেনারেল জিয়া সংবিধানকে ক্ষ’তবিক্ষ’ত এবং কু’খ্যাত ইনডেমনিটি অধ্যাদেশ প্রণয়ন করে বঙ্গবন্ধু হ’ত্যার বিচারের পথ বন্ধ করে এবং খু’নীদের বাংলাদেশের বিদেশি মিশনে চাকরি দিয়ে পুরস্কৃত করে।

দূ’তাবাসের কর্মকর্তা এবং কর্মচারীবৃন্দ কালোব্যাজ পরিধান করে ১৫ আগস্টে নি’হতদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করেন এবং তাদের বিদে’হী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন।

রাষ্ট্রদূতের নেতৃত্বে দূ’তাবাস প্রাঙ্গণে স্থাপিত বঙ্গবন্ধুর আবক্ষমূর্তিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ এবং মহান নেতার প্রতি শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করে কিছুক্ষণ নীরবতা পালন করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here