জাতীয়ঃ পরিবহন মা’লিক-শ্র’মিকরা জ’নগণকে জি’ম্মি করে প’কেট কা’টছে বলে মন্তব্য করেছেন ক’নজুমারস অ্যা’সোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব)-এর চেয়ারম্যান গোলাম রহমান।

তিনি বলেছেন, ভাড়া বাড়িয়ে স’রকার অন্যায় করেছে। জ’নগণের পকেট কা’টার সুযোগ করে দিয়েছে। অবি’লম্বে এ বা’ড়তি ভাড়া প্র’ত্যাহারের জন্য ক্যাবের পক্ষ থেকে দাবি জানিয়েছেন তিনি। গতকাল স’ন্ধ্যায় তিনি এ কথা বলেন।

গোলাম রহমান বলেন, ক’রোনার সময় গ’ণপরিবহনের ৬০ শতাংশ ভাড়া বৃ’দ্ধি করে স’রকার অন্যায় করেছে। স’রকার ক’রোনায় সময় অনেক ভালো কাজ করেছে। অনেক ভালো সি’দ্ধান্ত নিয়েছে।

তবে ভাড়া বা’ড়ানোর সি’দ্ধান্তটা হচ্ছে একটা মন্দ সি’দ্ধান্ত। স’রকারের উচিত অবিলম্বে ভাড়া বাড়ানোর সি’দ্ধান্ত প্র’ত্যাহার করা। ক্যাবের পক্ষ থেকে আমরা যোগাযোগমন্ত্রীকে চিঠি লিখেছি। আমরা বিবৃতি দিয়েছি যে, ভাড়া বা’ড়ানোটা সঠিক হয়নি। যেসব শর্ত দিয়েছেন তাও বাস্তবসম্মত বলে মনে হয় না।

দুর্র্নীতি দ’মন কমিশনের (দুদক) সাবেক চেয়ারম্যান গোলাম রহমান আরও বলেন, জনগণের স্বার্থ রক্ষার জন্য স’রকারের যে পদক্ষেপ নেওয়া দরকার তা করা হচ্ছে না। বরং স’রকারকে বৃ’দ্ধাঙ্গু’লি দেখিয়ে জনগণকে জি’ম্মি করে পরিবহন মালিক-শ্র’মিকরা নিজেদের মুনাফা বৃত্তি করছে।

এক্ষেত্রে ব্যবসায়িক স্বার্থে জনগণের স্বার্থ জলাঞ্জলি দিয়ে এটা করা হয়েছে। তিনি বলেন, স’রকার যখন ভাড়া বাড়ানোর সি’দ্ধান্ত নিয়েছে, তখনই আমরা যোগাযোগমন্ত্রীকে চিঠি লিখেছি। আমরা স’রকারকে অনুরোধ করছি,

বিশেষ করে যোগাযোগমন্ত্রীর প্রতি অনুরোধ, তিনি তো রাজনীতিবিদ। তিনি জনগণের স্বার্থ দেখবেন। ক্যাব চেয়ারম্যান বলেন, আমলারা তো জনগণের স্বার্থ দেখেন না। তারা ব্যবসায়িক স্বার্থ দেখেন।

জনগণের যারা নেতা তথা প্রধানমন্ত্রী-যোগাযোগমন্ত্রীর উচিত হবে জনস্বার্থে অবিলম্বে এ সি’দ্ধান্তকে বাতিল ঘোষণা করা। এ ছাড়া বাস্তবায়নযোগ্য নয়, এমন বিধি-নি’ষেধগুলোও প্রত্যাহার করার কথা বলেন তিনি। স্বা’স্থ্যবিধি না মানার বি’ষয়ে গোলাম রহমান বলেন, গণপরিবহনে স্বা’স্থ্যবিধি মানা হচ্ছে না। যে বিধি মানাই হচ্ছে না, তা রাখার কোনো যৌক্তিকতা নেই।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here