ক’রোনাকালীন সময়ে ক্ষ’তিগ্রস্ত নন-এমপিও শিক্ষক-কর্মচারীদের দেওয়া প্রধানমন্ত্রীর অনুদানের টাকা কে’টে নেওয়ার অ’ভিযোগ উঠেছে টাঙ্গাইল পু’লিশ লাইনস্ আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল কাদেরের বি’রুদ্ধে।

বিদ্যালয়ে কর্মরত ১৯ জন শিক্ষক ও ১১ জন কর্মচারী এ অ’ভিযোগ তুলেছেন। প্রধান শিক্ষকের এমন কাণ্ডে হতবাক তারা।

বিদ্যালয়ে কর্মরত নন-এমপিও শিক্ষক-কর্মচারীরা জানান, ক’রোনাকালীন সময়ে ক্ষ’তিগ্রস্ত নন-এমপিও শিক্ষক-কর্মচারীদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া অনুদানে নন-এমপিও ১৯ জন শিক্ষক জনপ্রতি পেয়েছেন পাঁচ হাজার টাকার চেক আর ১১ জন কর্মচারীরা পেয়েছেন আড়াই হাজার টাকার চেক।

চলতি বছরের ১২ জুলাই জনতা ব্যাংক আশেকপুর শাখা টাঙ্গাইল থেকে অনুদানের ওই চেক পান তারা। তবে বিদ্যালয়ের জুলাই মাসে পাওয়া জুনের বেতন থেকে সেই অনুদানের সমপরিমাণ টাকা আবার কে’টে নেওয়া হয়।

এ প্রস’ঙ্গে টাঙ্গাইল পু’লিশ লাইনস্ আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোহাম্ম’দ আব্দুল কাদের বলেন, ‘ক’রোনাকালীন সময়ে বেতন পাচ্ছেন না এমন নন-এমপিও শিক্ষক-কর্মচারীদের জন্য প্রধানমন্ত্রী মানবিক এই অনুদান দিয়েছেন।

আমাদের সকল নন-এমপিও শিক্ষক-কর্মচারী বিদ্যালয় থেকে নিয়মিত বেতন পাচ্ছেন, এ কারণে বেতন থেকে তাদের ওই অনুদানের টাকা কে’টে রাখা হয়েছে।’

নিয়মিত বেতন পাওয়া স্বত্তেও নন-এমপিও শিক্ষক-কর্মচারীদের তালিকা কেন পাঠানো হয়েছিল এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘কোন কারণ না জানিয়ে বোর্ড থেকে নন-এমপিও শিক্ষক-কর্মচারীদের তালিকা চাওয়া হয়েছিল বলেই তালিকাটি পাঠানো হয়।

এছাড়াও নন-এমপিও শিক্ষক-কর্মচারীদের বেতন থেকে কে’টে রাখা অনুদানের টাকা বিদ্যালয় ফান্ডে জমা রাখা হয়েছে।’

জানা যায়, ১৯৯৬ সালে স্থাপিত টাঙ্গাইল পু’লিশ লাইনস্ আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়। বর্তমানে দুই সিফটে চলমান ও ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণীর এ বিদ্যালয়টির শিক্ষার্থী সংখ্যা ১৭৮৫ জন আর শিক্ষক-কর্মচারীর সংখ্যা ৪৯ জন। এর মধ্যে নন-এমপিও রয়েছেন ১৯ জন শিক্ষক আর ১১ জন কর্মচারী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here