দুবাইয়ে কাজ দেয়ার নামে সৌদি আরবে নিয়ে বিক্রি করে দেয়া হয় এক না’রীকে। দেশে বসেই মানবপা’চারের লোমহর্ষক কাহিনী উঠে এসেছে ভু’ক্তভোগীর বয়ানে।

বেঁচে ফেরা এই তরুণীর অ’ভিযোগের ভিত্তিতে ফাতেমা ওভারসিজের মালিকসহ দু’জনকে গ্রে’ফতার করেছে র‌্যা’ব। বিদেশ বিভূঁইয়ে ভাগ্যের নি’র্মমতার মুখোমুখি হন তরুণী। বেঁচে ফিরতে পেরেছেন, তবে স’ঙ্গে নিয়ে এসেছেন শা’রীরিক ও মা’নসিক নি’র্যাতনের নিদারুণ অ’ভিজ্ঞতা।

গত বছরের অক্টোবরে দুবাই যাওয়ার জন্য দেড় লাখ টাকা খরচ করেন এই তরুণী। কিন্তু তাকে সৌদি আরবে বিক্রি করে দেয় দালালচ’ক্র।

বেতন চাইতে গেলে মালিকের কাছে শুনতে হয় ৬ লাখ টাকায় কিনে নেয়া হয়েছে। কৌশলে দেশে বাবা-মাকে বি’ষয়টি জানানোর পর ম’ন্ত্রণালয়ের হস্তক্ষেপে তাকে ফিরিয়ে আনা হয়।

৭ দিনে কোটিপতি হওয়ার ৭ উপায়

অর্থের মালিক হতে বা কোটিপতি হতে কার না মন চায়। তবে সব জায়গায় সব সময় চাইলেও সেটা সম্ভব হয় না। কিন্তু ভাগ্য ভালো থাকলে আপনি মাত্র সাতদিনেই কোটিপতি বনে যেতে পারেন।

সংযুক্ত আরব আমিরাতে এমন কয়েকটি সুযোগ রয়েছে যেখানে এক সপ্তাহ থেকে এক মাসের মধ্যে বহু মানুষ কোটিপতি হয়েছেন।

এ জন্য আপনাকে ব্যাংকে ডিপোজিট করতে হবে বা লটারির টিকেট কিনতে হবে। লটারিরর টিকিট আপনি দুবাই থেকে অথবা অনলাইনে বিশ্বের যে কোনো জায়গা থেকে কিনেত পারবেন।
১. মাশরেক মিলিয়নিয়ার:

এটি দুবাইয়ে ব্যাংকিংয়ের ক্ষেত্রে একটি বিশেষ স্কিম। আমিরাতের নাগরিক বা ভ্রমণযাত্রী যে কেউ এই স্কিমের গ্রাহক হতে পারেন। এই স্কিমের গ্রাহক হলে প্রতি মাসে আপনাকে ১ হাজার দিরহাম বা প্রায় ২৩ হাজার টাকা জমা দিয়ে একটি সার্টিফিকেট নিতে হবে। এমন তিনটি সার্টিফিকেট নিলে আপনি কোটিপতি হওয়ান লটারির জন্য বিবেচিত হবেন।

২. এবিসিডি মিলিয়নিয়ার ডেসটিনি সেভিংস:
একটি ব্যাংক ডিপোজিট স্কিম। এই স্কিমে আপনাকে ৫ হাজার দিরহমান বা ১ লাখ ১৫ হাজার টাকা ডিপোজিট করতে হবে। এই লটারিটি প্রতিমাসে অনুষ্ঠিত হয়।

৩. আমিরাত ইসলামিক কুনোজ সেভিংস অ্যাকাউন্ট:
আমিরাত ইসলামিক কুনোজ সেভিংস অ্যাকাউন্টও একটি ব্যাংক ডিপোজিট স্কিম। এটি একটি বেশষ ধরণের অ্যাকাউন্ট। এখানে কমপক্ষে ৫ হাজার দিরহাম বা ১ লাখ ১৫ হাজার টাকা জমা রাখতে হবে।

৪. বিগ ২১ প্রোমোশন বাই ন্যাশনাল বোর্ড:
এখানে সরাসরি আপনাকে ১ হাজার দিরহাম বা ২৩ হাজার টাকায় একটি লটারি টিকেট কিনতে হবে। প্রতিমাসে এই লটারি অনুষ্ঠিত হয়।

৫. মাবরোক সেভিং বাই সিবিআই:
মাবরোক সেভিং হচ্ছে দুবাইয়ের কমার্সিয়াল ব্যাংক ইন্টারন্যাশনালের একটি বিশেষ স্কিম। এতে আপনাকে ১০ হাজার দিরদাম বা প্রায় ২ লাখ ৩০ হাজার টাকা ডিপোজিট করতে হবে।

৬. দুবাই ডিউটি ফ্রি মিলেনিয়াম মিলিয়নিয়ার:
দুবাই বিমানবন্দরে শুল্কমুক্ত বাণিজ্যকেন্দ্র থেকে (ডিউটি ফ্রি শপ) আপনি ১ হাজার দিরহাম বা ২৩ হাজার টাকায় একটি টিকিট কিনতে পারেন। প্রতি সপ্তাহে এই লটারি অনুষ্ঠিত এই লটারি জিতলে আপনি পাবেন ১ মিলিয়ন ডলার বা প্রায় ৮৫ কোটি টাকা।

৭. বিগ টিকেট আবুধাবি:
এটি দুবাইয়ের সবচেয়ে বড় লটারি। প্রতি মাসে একবার এই লটারি অনুষ্ঠিত হয়। এর জন্য আপনাকে ৫০০ দিরহাম বা প্রায় ১৩ হাজার টাকায় একটি টিকিট কিনতে হবে। তবে তিনটি টিকিট ১ হাজার দিরহাম বা ২৩ হাজার টাকায় কিনতে পারবেন। এই লটারিতে গত সেপ্টেম্বর মাসে এক ভারতীয় যুবক ১৫ মিলিয়ন দিরহাম জিতেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here