দেশের বাজারে পর্যা’প্ত সরবরাহ নিশ্চিত করতে একাধিক দেশ থেকে পেঁয়াজ আম’দানির সি’দ্ধান্ত নিয়েছে স’রকার। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে,

স’রকারের সি’দ্ধান্তের আলোকে ইতোমধ্যে তুরস্ক ও মিশর থেকে পেঁয়াজ আম’দানির পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। আম’দানি করা পেঁয়াজের চালান আগামী মাসের শুরুর দিকে চট্টগ্রাম বন্দরে এসে পৌঁছবে বলে আশা করা হচ্ছে।

এদিকে, ভারত থেকে পেঁয়াজ আম’দানি নিরবচ্ছিন্ন রাখতে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব পেঁয়াজ রপ্তানিতে ঘোষিত নি’ষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের জন্য দিল্লিকে অনুরোধ জানিয়েছে ঢাকা।

এ বি’ষয়ে শিগগিরই বাংলাদেশ ইতিবাচক সাড়া প্রত্যাশা করছে বলে মঙ্গলবার পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী এম শাহরিয়ার আলম জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘নি’ষেধাজ্ঞার বি’ষয়ে জানার পরপরই নয়াদিল্লিতে থাকা বাংলাদেশ হাইকমিশনের মাধ্যমে ভারতীয় পররাষ্ট্র ম’ন্ত্রণালয়ের কাছে বি’ষয়টি তুলে ধরা হয়েছে।’ শাহরিয়ার বলেন,

আগামী বছরের শুরুর দিকে ঢাকায় অনুষ্ঠিতব্য ডি-৮ শীর্ষ সম্মেলনে তুরস্কের প্রে’সিডেন্ট ও বর্তমান চেয়ার এরদোগান যোগদান করবেন বলে সম্মতি দিয়েছেন। এ প্রস’ঙ্গে তিনি নতুন সদস্যরাষ্ট্র যুক্ত করে ডি-৮ সম্প্রসারণের ব্যাপারে জো’র দিয়েছেন।

বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন বুধবার তুরস্কের প্রে’সিডেন্টের স’ঙ্গে এক বৈঠকে মি’লিত হলে এরদোয়ান ঢাকা সফরের ব্যাপারে এই সম্মতি দেন। এ ছাড়া ম’হামা’রি কো’ভিড-১৯ অবসানের পর দ্রু’ততম সময়ে ঢাকায় নব-নির্মিত তুরস্কের দূ’তাবাস ভবন উদ্বোধ’নের প্রাক্কালে প্রে’সিডেন্ট এরদোয়ান বাংলাদেশে ভ্রমণের আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

বাংলাদেশের পররাষ্ট্র ম’ন্ত্রণালয় এক বিজ্ঞপ্তিতে এই ত’থ্য জানিয়েছে।
দু’দেশের বাণিজ্য সম্প’র্ক বৃ’দ্ধির ও’পর গুরুত্বারোপ করে তিনি সুনির্দিষ্ট কিছু প্রস্তাব দেন। যার মধ্যে রয়েছে বিদ্যমান শুল্ক বা’ধা এড়িয়ে নতুন পণ্য, বস্ত্র, ও’ষুধ ও অন্যান্য খাতের বিনিয়োগ। এ ছাড়া উভ’য় দেশে বাণিজ্যমেলায় অংশগ্রহণ নিশ্চিত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

বাংলাদেশে তুরস্কের আর্থিক সহযোগিতায় একটি আধুনিক হাসপাতাল নির্মাণের প্রয়োজনীয় জমি বরাদ্দের জন্য তুরস্কের প্রে’সিডেন্ট প্রস্তাব দেন।
এরদোয়ান বিদ্যমান কো’ভিড-১৯ পরিস্থিতিতে তুরস্কের পক্ষ থেকে প্রয়োজনীয় আরও সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

উষ্ণ ও আন্তরিক পরিবেশে অনুষ্ঠিত এই বৈঠকে তারা বাণিজ্যিক পণ্য আদান-প্রদানের বি’ষয়ে নতুন উদ্যোগ গ্রহণ, আরো বেশী প্রতিনিধিদল প্রেরণ এবং মেলা ও প্রদর্শনীতে অংশগ্রহণের ও’পর গুরুত্ব আরোপ করেন। শিক্ষা, সংস্কৃতি ও সা’মরিক খাতে চলমান সহযোগিতা শ’ক্তিশালী বলে অভিহিত করেন তারা। আলোচনায় উভ’য়েই বিদ্যমান বন্ধুত্বপূর্ণ সম্প’র্কের বি’ষয়ে সন্তুস্টি প্রকাশ করেন।

তুরস্কের প্রে’সিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান নি’র্যাতিত ও দুর্গত রো’হিঙ্গা শরনার্থীদের বংলাদেশে আশ্রয় প্রদানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভূয়সী প্রশংসা করেছেন। তিনি এ বি’ষয়ে দ্বিপাক্ষিক ও আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে সম্ভাব্য সকল বি’ষয়ে বাংলাদেশের পাশে থাকার অভিমত ব্যক্ত করেন।

দু’দেশের পররাষ্ট্র ম’ন্ত্রণালয়ের মধ্যে নিয়মিত বিরতিতে উচ্চতর পর্যায়ে এফওসি বৈঠক অনুষ্ঠিত হওয়ায় তিনি সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন। অদূর ভবি’ষ্যতে উভ’য় পক্ষ উচ্চতর পর্যায়ে নিয়মিত আলাপ-আলোচনা চা’লিয়ে নেয়ার জন্য প্রয়োজনীয় ফোরাম গঠনের ব্যাপারে একমত হন। বৈঠকে তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত চাভাসওলু উপস্থিত ছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here