কুষ্টিয়ার মিরপুরে মাত্র ১২ ঘণ্টার ব্যবধানে মা-বাবা ও মে’য়ের মৃ’ত্যু হয়েছে। পরপর তিনজনের মৃ’ত্যুতে এলাকায় শো’কের ছায়া নেমে এসেছে।

মৃ’তরা হলেন- মিরপুর উপজে’লার ধুবাইল ইউপির গোবিন্দগুনিয়া গ্রামের লালন মল্লিক, তার স্ত্রী আনজেরা খাতুন ও মে’য়ে আঙ্গুরী খাতুন।

স্থানীয়রা জানায়, দীর্ঘদিন ধরে অ’সুস্থ ছিলেন আনজেরা খাতুন। শুক্রবার রাত পৌনে ১১টার দিকে তিনি বাড়িতে মা’রা যান। শনিবার সকাল ৯টায় গোবিন্দগুনিয়া কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।

এদিকে মায়ের ম’রদে’হ দেখে কা’ন্নায় ভে’ঙে পড়েন মে’য়ে আঙ্গুরী খাতুন। পরে স্বা’মী মক্কেল আলীর বাড়ি মিরপুর পৌরসভার নওয়াপাড়ায় স্বা’মী গিয়ে একপর্যায়ে তিনি অ’সুস্থ হয়ে পড়েন। পরে হাসপাতালে নেয়ার পথে বেলা ১১টার দিকে আঙ্গুরীও মা’রা যান।

দুপুর ২টায় পৌরসভার নওয়াপাড়া কবরস্থানে দাফন করা হয় তার মে’য়ে আঙ্গুরী খাতুনকে এবং বিকেল ৫টায় গোবিন্দগুনিয়া কবরস্থানে দাফন করা হয় লালন মল্লিককে।

ধুবাইল ইউপি সদস্য সাইফুল ইসলাম বলেন, এটা খুবই ম’র্মান্তিক ঘ’টনা। দীর্ঘদিন ধরে হা’র্টের স’মস্যায় ভুগছিলেন আনজেরা খাতুন। শুক্রবার রাতে মা’রা যান তিনি। সকাল ৯টায় তাকে দাফন করা হয়।

বেলা ১১টায় জানতে পারি তার মে’য়ে আঙ্গুরী খাতুন মা’রা গেছেন। কিছুক্ষণ পরেই জানতে পারি স্ত্রী ও মে’য়ের শো’কে নিজ বাড়িতে মা’রা গেছেন লালন মল্লিক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here