জাতীয়ঃ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা এবং এইচএসসি পরীক্ষার বি’ষয়ে ম’ন্ত্রণালয় বলছে, স’রকারের উচ্চ পর্যায় থেকে সি’দ্ধান্ত না আসলে তারা সি’দ্ধান্ত জানাবেন না।

এ বি’ষয়ে মন্ত্রিপরিষদ স’চিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেছেন, একদম প্রধানমন্ত্রী অনুমোদন করার পর আমরা কনভে করে দিয়েছি,

এরপরও তারা যদি মনে করে যে সাজেশন দরকার বা কোনো রুলিং দরকার মন্ত্রিসভার বা প্রধানমন্ত্রীর, আমাদের যদি রেফার করে তাহলে সেটা বিবেচনা করা হবে।

কিন্তু এখন অথরিটি তাদের কাছেই দিয়ে দেয়া আছে। সোমবার (২৮ সেপ্টেম্বর) মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

সর্বশেষ ঘোষণা অনুযায়ী আগামী ৩ অক্টোবর পর্যন্ত ছুটির মেয়াদ বাড়ানো হয়েছে। এখন পরিস্থিতি বিবেচনায় ফের মেয়াদ বাড়ানোর সি’দ্ধান্ত নেওয়া হচ্ছে বলে জানা গেছে। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়,

দেশের ক’রোনা সং’ক্র’মণ পরিস্থিতি বিবেচনা করে নতুন করে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটির মেয়াদ বাড়ানোর বি’ষয়ে সি’দ্ধান্ত নিবে শিক্ষা ম’ন্ত্রণালয়ের টেকনিক্যাল কমিটি। তাদের সি’দ্ধান্ত অনুযায়ী ছুটির মেয়াদ বাড়ানোর বি’ষয়ে ঘোষণা দেওয়া হবে।

দেশে চলমান নভেল ক’রোনাভা’ইরাস (কো’ভিড-১৯) পরিস্থিতির কারণে ফের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি বাড়ানোর চিন্তা-ভাবনা করছে শিক্ষা ম’ন্ত্রণালয়।

তবে নতুন করে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটির মেয়াদ কতদিন বাড়ানো হবে সে বি’ষয়ে এখনো কোনো সি’দ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়,

দেশের ক’রোনা সং’ক্র’মণ পরিস্থিতি বিবেচনা করে নতুন করে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটির মেয়াদ বাড়ানোর বি’ষয়ে সি’দ্ধান্ত নিবে শিক্ষা ম’ন্ত্রণালয়ের টেকনিক্যাল কমিটি। তাদের সি’দ্ধান্ত অনুযায়ী ছুটির মেয়াদ বাড়ানোর বি’ষয়ে ঘোষণা দেওয়া হবে।

এ বি’ষয়ে শিক্ষা ম’ন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল গণমাধ্যমকে বলেন, ক’রোনা পরিস্থিতির মধ্যে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের ঝুঁ’কিতে ফেলতে চায় না স’রকার।

তাই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটির মেয়াদ বাড়ানোর চিন্তা-ভাবনা করা হচ্ছে। তবে ঠিক কতদিন ছুটির মেয়াদ বাড়ানো হবে এ বি’ষয়ে এখনো সি’দ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। এ বি’ষয়ে ম’ন্ত্রণালয়ের টেকনিক্যাল কমিটি সি’দ্ধান্ত নিবে। তারপর ছুটি বাড়ানোর ঘোষণা দেওয়া হবে।

এইচএসসি পরীক্ষা নিয়ে নতুন তিন প্রস্তাব

ক’রোনাভা’ইরাসেের সং’ক্র’মণ ঠে’কাতে স্থগিত এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা। তবে ক’রোনা পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হলে এ পরীক্ষার আয়োজন করতে চায় শিক্ষা ম’ন্ত্রণালয়।

স্থগিত থাকা এই পরীক্ষা আয়োজনে শিক্ষাবোর্ড থেকে তিনটি প্রস্তাব তৈরি করে ম’ন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। প্রস্তাবগুলোর মধ্যে রয়েছে- কেন্দ্র সংখ্যা বৃ’দ্ধি, সিলেবাস ও নম্বর কমানো এবং পরীক্ষার বি’ষয় কমিয়ে আনা।

শিক্ষাবোর্ডের এসব প্রস্তাব বর্তমানে পর্যবেক্ষণ চলছে। আগামী ৩০শে সেপ্টেম্বর শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি সংবাদ সম্মেলন করে এ বি’ষয়ে তুলে ধরবেন বলে জানা গেছে।

পরীক্ষার বি’ষয়ে আন্তঃশিক্ষা সমন্বয়ক বোর্ডকে প্রস্তাব তৈরি করে পাঠাতে বলা হয়। পরীক্ষা আয়োজনে ২৪শে সেপ্টেম্বর আন্তঃবোর্ডের সভায় সব বোর্ডের চেয়ারম্যানদের পরামর্শে তিনটি প্রস্তাব তৈরি করে শিক্ষা ম’ন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে।

তিনটি প্রস্তাবের মধ্যে রয়েছে, পরীক্ষার কেন্দ্রের সংখ্যা বৃ’দ্ধি করে স্বা’স্থ্যবিধি অনুসরণ করে পরীক্ষার আয়োজন করা; সিলেবাস ও নম্বর কমিয়ে অল্প সময়ের মধ্যে পরীক্ষা শেষ করা; বিজ্ঞান, বাণিজ্য ও মানবিক বিভাগের মূ’ল বি’ষয়গুলোর পরীক্ষা নিয়ে মূ’ল্যায়নের মাধ্যমে পরীক্ষার্থীদের সার্টিফিকেট প্রদান করা।।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here