সারাদেশঃ লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজে’লার বুড়িমারী ইউনিয়নের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রীটি (১২) অবশেষে পুত্রস’ন্তান জন্ম দিয়েছে।

ওই ছাত্রীটি স্বাভাবিকভাবে স’ন্তান প্রসবে ঝুঁ’কি থাকায় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে অ’স্ত্রোপচার করার পরামর্শ দেন।

মেয়েটি গত সোমবার (৫ অক্টোবর) রংপুরের বেস’রকারি রোজ ক্লিনিকে অ’স্ত্রোপচারের মাধ্যমে একটি পুত্রস’ন্তান জন্ম দেয়।

পরিবার অতিদরিদ্র হওয়ায় বুড়িমারী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবু সাঈদ নেওয়াজ নিশাত ওই প্রসূতি মায়ের যাবতীয় ব্যয় বহন করেন।

এ ঘটনায় মেয়েটির (ছাত্রীর) বাবা বা’দী হয়ে গত ২৬ জুলাই পাটগ্রাম থানায় নারী ও শি’শু নি’র্যাতন দ’মন আইনে ওয়াজেদ আলীকে আ’সামি করে একটি মা’মলা দা’য়ের করেন।

স্থানীয় বাসিন্দা ও মা’মলার বিবরণ সূত্রে জানা গেছে, বুড়িমারী ইউনিয়নের ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের ইসলামপুর এলাকার একটি স’রকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রীর (১২) দিনমজুর বাবা-মা পাথর ভাঙার মেশিনে কাজ করতেন।

বাড়িতে অন্য কেউ না থাকার সুযোগে প্রতিবেশী একই ইউনিয়নের দুই স’ন্তানের জনক ওয়াজেদ আলী দীর্ঘদিন ধরে ফুসলিয়ে ও

বিভিন্ন ভ’য়-ভীতি দেখিয়ে ওই ছাত্রীকে একাধিকবার ধ’র্ষ’ণ করেন। এতে মেয়েটি অ’ন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে।

পাটগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুমন কুমার মহন্ত জানান, ধ’র্ষিতা মেয়েটি মা হয়েছে জেনেছি। আমাদের পক্ষ থেকে আ’সামি গ্রে’প্তারের সর্বোচ্চ চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

রাজধানীতে বিয়ের প্রলোভনে বাসায় ডেকে ৭ দিন ধরে তরুণীকে ধ’র্ষ’ণ

সারাদেশঃ রাজধানীর সবুজবাগে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক তরুণীকে বাসায় ডেকে নিয়ে সাতদিন ধরে ধ’র্ষ’ণের অ’ভিযোগে থানায় মা’মলা হয়েছে।

এরপরই অ’ভিযান চা’লিয়ে সবুজ মিয়া (৩২) ও তার সহযোগী আব্দুস সামাদ (৩৫) নামের দুই আ’সামিকে গ্রে’প্তার করেছে পুলিশ।

আজ রোববার দুপুর ১২টার দিকে শা’রীরিক পরীক্ষার জন্য ওই তরুণীকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। সবুজবাগ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রিয়াজ উদ্দিন স’রকার বি’ষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, গত ৬ মাস আগে ওই তরুণীর সঙ্গে ফেসবুকের মাধ্যমে পরিচয় হয় সবুজ মিয়ার। এরপর তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

গত ৪ অক্টোবর সবুজ বিয়ের জন্য পূর্ব বাসাবোতে নিজের বাসায় ডেকে নেন ওই তরুণীকে। কিন্তু বিয়ে না করে ১০ অক্টোবর পর্যন্ত সবুজ ওই তরুণীকে ধ’র্ষ’ণ করেন।

পরে উপায় না দেখে গতকাল শনিবার রাতে সবুজ মিয়া ও তার সহযোগী সামাদের নামে মা’মলা করেন ওই তরুণী।

এরপর রাতেই আ’সামিদের গ্রে’প্তার করা হয়। ধ’র্ষ’ণের শি’কার ওই তরুণী বর্তমানে হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ভর্তি আছেন বলেও জানান সবুজবাগ থানার উপ-পরিদর্শক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here