দেশের বেসরকারি ব্যাংকিং সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান প্রাইম ব্যংক থেকে এখন বিনা জামানতেই নেয়া যাবে ৫০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ঋণ!

অতি ক্ষুদ্র, ক্ষুদ্র ও মাঝারী শিল্পের (এসএমই) উদ্যোক্তাদের জন্য এই অভিনব ঋণ সুবিধা নিয়ে হাজির হয়েছে প্রাইম ব্যাংক।

বিশ্বের অনলাইন ব্যবসায়ীক প্ল্যাটফর্ম আলিবাবা গ্রুপের প্রতিষ্ঠান দারাজের সাথে বিনা জামানতে ঋণ দেয়া সংক্রান্ত

একটি চুক্তিও সাক্ষর করেছে প্রাইম ব্যাংক। এই চুক্তির মাধ্যমে দারাজের সাথে সম্পৃক্ত এসএসমই প্রতিষ্ঠানগুলো সহজ শর্তে ঋণ পাবে।

যেভাবে পাওয়া যাবে এই ঋণ-প্রাইম ব্যাংক থেকে এই ঋণ গ্রহণ করতে হলে দুই বছরের অভিজ্ঞতা ও দারাজের সুপারিশপত্র জমা দিতে হবে ব্যাংকে।

এই ঋণ কোনো উদ্যোক্তা নিতে চাইলে সশরীরে ব্যাংকে যাবারও প্রয়োজন নেই। নিজ বাসায় বসেই যেন ঋণ সুবিধা পান সেজন্য নিয়োগ দেয়া হয়েছে রিলেশনশিপ ম্যানেজার।

যে সুবিধা পাওয়া যাবে এই ব্যাংক ঋণে-প্রাইম ব্যাংক থেকে নেয়া এই ঋণের ক্ষেত্রে একটি এসএমই প্রতিষ্ঠান ওয়ার্কিং ক্যাপিটাল (সিসি,

ওডি ও ডিমান্ড লোন), ফিক্সড অ্যাসেট ক্রয় ও ক্যাপিটাল এক্সপেন্ডিচারের জন্য টার্ম লোন, ইন্টারন্যাশনাল

ট্রেড সল্যুশন (এলসি, এলএটিআর, আইডিবিপি), ব্যাংক গ্যারান্টি, ওয়ার্ক অর্ডার ইত্যাদি অর্থায়ন সুবিধা পাবে।

বর্তমানে দেশের অনলাইন প্ল্যাটফর্মের মার্কেটগুলো ধীরে ধীরে প্রসারিত হচ্ছে। ঘরে বসেই খুব সহজে কেনাকাটার সুবিধা বর্তমানে ভোগ করতে চান বেশিরভাগ ক্রেতাই।

এই আদলে দেশে প্রসার ঘটছে অনলানভিত্তিক ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠানেরও। দেশের অনলাইন ব্যবসায়ের গতি ত্বরান্বিত করার লক্ষ্যেই দারাজের তরফ থেকে এমন চুক্তি করা হয়েছে প্রাইম ব্যাংকের সাথে।

আগামী বছর স্ত্রীকে নিয়ে হজে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিল শহিদুন্নবী জুয়েল

কোরআন শরীফ অ’বমাননার গু’জবে কান দিয়ে যে যু’বককে পি’টিয়ে হ’ত্যা করে ম’রদেহ আ’গুনে পু’ড়িয়ে দেওয়া হয়েছে,

সেই শহিদুন্নবী জুয়েল (৩৭) আসলে অত্যন্ত ধা’র্মিক ও সহজ-সরল ছিলেন। পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ আদায় এবং নিয়মিত কো’রআন-হাদিস পাঠ করতেন।

শুক্রবার (৩০ অক্টোবর) রংপুর নগরীর শালবনে তার বাসভবনে সরেজমিনে গিয়ে প’রিবার ও এ’লাকাবাসীর সঙ্গে কথা বলে এ বি’ষয়ে জানা গেছে।

লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজে’লার বুড়িমারী বাজার কেন্দ্রীয় জামে ম’সজিদে কো’রআন অ’বমাননার গু’জব থেকে জুয়েলকে হ’ত্যা করে ম’রদেহ আ’গুনে পু’ড়িয়ে দেয় বিক্ষু’ব্ধ জ’নতা।

শহিদুন্নবী জুয়েল রংপুর শহরের শালবন রোকেয়া সরণি এলাকার আব্দুল ওয়াজেদ মিয়ার ছে’লে। তিনি রংপুর ক্যা’ন্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজের সাবেক গ্রন্থাগারিক ছিলেন।

তার বড় মেয়ে জেবা তাসনিম এবার এইসএসসি পাস করেছে। ছেলে তাশিকুল ইসলাম ষষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থী।

শুক্রবার সকালে শালবনে তার বাসভবনে গিয়ে দেখা যায়, খবর পেয়ে এলাকাবাসীসহ আত্মীয়-স্বজনরা ছুটে এসেছেন। প’রিবারের স্ব’জনদের কা’ন্না ও আ’হাজারিতে ভা’রী হয়ে আছে পরিবেশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here