সারাদেশঃ কু’ষ্টিয়ার দৌ’লতপুরে এক ক’লেজ শি’ক্ষককে পি’টিয়ে মা’রাত্মক আ’হত করেছেন তার স্ত্রী ও স্ব’জনরা।

আ’হত ওই ক’লেজ শি’ক্ষকের নাম সোহরাব হোসেন সোহেল (৪৮)। সোহরাব ম’হিষকুন্ডি ডিগ্রি কলেজের শ’রীরচর্চার শি’ক্ষক। আ’হত অ’বস্থায় বর্তমানে

তিনি ২৫০ শ’য্যা বি’শিষ্ট কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। শ’রীরে অসংখ্য জ’খম নিয়ে হাসপাতলে ভর্তি হওয়া

কলেজ শি’ক্ষক সোহরাব হোসেন সো’হেলের অ’ভিযোগ, পারিবারিক ক’লহের জে’র ধ’রে তার স্ত্রী রে’বেকা পারভীন লিপি,

সুযোগ বুঝে তাদের হাত থেকে পা’লিয়ে তিনি একটি সিএনজিচালিত অ’টোরিকশা ভাড়া করে কু’ষ্টিয়া জেনারেল হাস’পাতালে ভর্তি হন।

তিনি প্রথমে কিছু বলতে না চাইলেও হাসপাতালের চি’কিৎসক ও উ’পস্থিত ব্য’ক্তিদের জি’জ্ঞাসাবাদে তিনি তার ও’পর নি’র্যাতনের প্রকৃত ঘটনা খুলে বলেন।

তিনি বলেন, গত ৩০ অক্টোবর তার বড় মেয়ের বিয়ে হয়। আ’র্থিক অ’নটনের কারণে ঋ’ণ করে তিনি মেয়ের বিয়ে দেন।

বি’ষয়টি নিয়ে তার স্ত্রী’র স’ঙ্গে কথা কা’টাকা’টি হয়। এক পর্যায়ে তার স্ত্রী তার ভাইদের বাড়িতে ডেকে নিয়ে এসে তাকে পি’টিয়ে মা’রাত্মক আ’হত করেন।

ঘটনা ভিন্ন খাতে নিতে থানা পুলিশকে ম্যা’নেজ করে উ’ল্টো ওই ক’লেজ শি’ক্ষকের বি’রুদ্ধে স্ত্রী’কে নি’র্যাতনের মি’থ্যা মা’মলা দা’য়েরের চে’ষ্টা করেন অ’ভিযুক্তরা।

আ’ত্মসম্মা’নবোধ আর চ’ক্ষু ল’জ্জার ভ’য়ে তিনি বি’ষয়টি কাউকে না বলে সোমবার রাত ১১টার দিকে গো’পনে কু’ষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে এসে চিকিৎসার জন্য ভর্তি হন।

কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের জ’রুরি বিভাগের কর্ত’ব্যরত চিকিৎসক জানিয়েছেন, ওই ক’লেজ শি’ক্ষকের শ’রীরে বেশকিছু আ’ঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে ।

কিছু আ’ঘাত গু’রুতর। তাকে হাসপাতালে ভর্তি থাকার পরামর্শ দেয়া হয়েছে।এ ঘটনায় থানায় এখনও মা’মলা হয়নি জানিয়ে দৌ’লতপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জহুরুল ইসলাম বলেন,

ঘটনা শু’নে আমরা ওই শি’ক্ষকের বাড়িতে পুলিশ পাঠিয়েছিলাম। তাকে থা’নায় এসে অ’ভিযোগ দিতে বলা হয়েছে।

অ’ভিযোগ পেলে ত’দন্ত সা’পেক্ষে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্য’বস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here