মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের সূত্রে বর্তমানে আলোচিত ব্যক্তিত্ব জো বাইডেন। ১৯৭২ সালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে পঞ্চম কনিষ্ঠতম সিনেটর হিসেবে

প্রথমবারের মতো মার্কিন সিনেটর হিসেবে নির্বাচিত হন তিনি। কিন্তু সিনেটর নির্বাচিত হওয়ার কয়েক সপ্তাহ পরই

তার জীবনে নেমে আসে ভয়াবহ দুঃসময়। এক মর্মান্তিক সড়ক দূর্ঘটনায় হারান স্ত্রী এবং কন্যাকে।

জো বাইডেনের প্রথম স্ত্রী নেইলিয়ার সাথে বাইডেনের পরিচয় হয় কলেজে পড়ার সময়। বসন্তের ছুটিতে বাহামায় গিয়েছিলেন জো বাইডেন আর সেখানেই নেইলিয়া হান্টারের সঙ্গে দেখা।

কিন্তু এক দূর্ঘটনা যেনো সব এলোমেলো করে দেয়। ক্রিসমাস ডে উপলক্ষে সেইদিন ক্রিসমাস ট্রি নিয়ে গাড়িতে করে বাড়ি ফিরছিলেন বাইডেন, তার স্ত্রী ও তিন সন্তান।

কিন্তু পথিমধ্যে ভুট্টাবাহী ট্রাক্টরের সাথে সংঘর্ষে ভয়াবহ দুর্ঘটনা ঘটে। হাসপাতালে নেওয়ার আগেই বাইডেনের স্ত্রী নাইলি এবং ১৩ বছর বয়সী কন্যা নাওমি মৃত্যুবরণ করেন।

গুরুতর আহত অবস্থায় জো বাইডেনসহ তার দুই পুত্র বো ও হান্টারকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। হাসপাতালে বসেই সিনেট সদস্য হিসেবে শপথ গ্রহণ করেন জো বাইডেন।

এই দুর্ঘটনার পর দেলাওয়ারের উইলমিংটনের বাড়িতে থেকেই অফিস করতে থাকেন বাইডেন। প্রতিদিন ৭৫ মিনিট ট্রেনযাত্রা করে ওয়াশিংটনে পৌঁছাতেন।

এভাবে ৩০ বছরের বেশি সময় অফিস করেছেন। ট্রেনের কর্মীদের পরিবারের সদস্য মনে করতেন, নিজ বাড়িতে দাওয়াত করেও খাইয়েছেন।

পরে ১৯৭৭ জো বাইডেন দ্বিতীয় বারের মত বিয়ে করেন। এবারে তিনি বিয়ে করেন ইংরেজির শিক্ষক জিল ট্রেসি জ্যাকবসকে। একটি ‘ব্লাইন্ড ডেট’-এ জিলের সঙ্গে বাইডেনের প্রথম দেখা হয়েছিলো।

দুধের স’ঙ্গে নে’শাদ্র’ব্য খা’ইয়ে গভীর রাতে পু’ত্রবধূ’কে ধ”র্ষ’ণ

বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজে’লায় পু’ত্রবধূকে ধ”ণের অ’ভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল রোববার রাতে এ ঘটনায় অ’ভিযুক্ত শ্বশুরকে গ্রে’প্তার করা হয়েছে।

গ্রে’প্তার ব্য’ক্তির নাম মিলন মিয়া (৫৫)। তিনি বিহার ইউনিয়নের বিহার উত্তরপাড়া গ্রামের বাসিন্দা। আজ সোমবার দুপুরে মিলন মিয়াকে আ’দালতের মাধ্যমে বগুড়া কা’রাগারে পাঠানো হয়।

মা’মলা সূত্রে জানা গেছে, মিলন মিয়ার ছে’লে সঙ্গে তিন বছর আগে পাশের গ্রামের এক মে’য়ের বিয়ে হয়। বিয়ের পর স্বা’মী ট্রাকের হেলপার হিসেবে কাজ শুরু করে।

যে কারণে গৃ’হবধূর স্বা’মী ২০-২১ দিন পর পর বাড়ি আসে। এই সুযোগে পু’ত্রবধূর ও’পর কু’নজর পড়ে শ্ব’শুড়ের।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here