দিনাজপুরে ধ”ণচেষ্টার অ’ভিযোগে করা মা’মলা তু’লে না নেওয়ায় এক গৃ’হবধূকে গা’ছের স’ঙ্গে বেঁ’ধে নি’র্যাতন ও চু’ল কে’টে নেওয়ার অ’ভিযোগ উঠেছে।

গু’রুতর আ’হত ওই গৃ’হবধূকে দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মে’ডিকেল ক’লেজ হা’সপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।মঙ্গলবার স’দর উপজে’লার ২নং ফাজিলপুর

ইউনিয়নের শিবপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। দুপুর থেকে বিকেল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত নিজ বাড়ির সামনে তাকে নি’র্যাতন করা হয় বলে অ’ভিযোগ করেছেন ওই গৃ’হবধূ।

নি’র্যাতনের শি’কার গৃ’হবধূর স্বা”মী জানান, তিনি গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় ইটভাটায় কাজ করেন। দীর্ঘদিন ধরে এলাকার লাবু ভূঁইয়া, আশরাফ আলীসহ কয়েকজন তার

মা’মলার পর থেকেই তা তু’লে নেওয়ার জন্য চা’প সৃষ্টি করে আসছিল অ’ভিযুক্তরা। কিন্তু মা’মলা তু’লে না নেওয়ায় মঙ্গলবার দুপুরে গৃ’হবধূকে গা’ছের স’ঙ্গে বেঁ’ধে নি’র্যাতন করা হয়।

এ সময় তার চু’ল কে’টে দেয় নি’র্যাতনকারীরা।প্রতিবেশী রাবেয়া খাতুন ও হেলাল উদ্দিন জানান, স্বা’মী বাড়িতে না থাকায় লাবু ভূঁইয়া ওই গৃ’হবধূর ঘরে’

ঢু’কে তাকে ধ”ণের চে’ষ্টা করে। তার চি’ৎকারে এলাকাবাসী এগিয়ে এলে লাবু পা’লিয়ে যায়।হা’সপাতালে চি’কিৎসাধীন গৃ’হবধূ বলেন, মঙ্গলবার বিকেল ৩টায় লাবু ভূঁইয়া,

তার সহযোগী মধু ভূঁইয়া, আশরাফ আলী, জাহিদুল ইসলাম, হযরত আলী, মোবারক হোসেন, মোজাম্মেল হোসেন, মোশাররফ হোসেন ও তুষার হোসেন আমার ঘ’রে ঢু’কে

আবারও মা’মলা তু’লে নেওয়ার জন্য হু’মকি দেয়।আমি এর প্র’তিবাদ করলে তারা আমাকে বাড়ির সামনের গা’ছের সঙ্গে বেঁ’ধে মা’রধর করে।

এক পর্যায়ে তারা আমার মা’থার চু’ল কে’টে দেয়। প্র’তিবেশীরা তখন কোতোয়ালি থানায় খবর দিলে এ’এসআই সাব্বির ঘটনাস্থলে এসে আমাকে মুক্ত করেন।

দিনাজপুর কোতোয়ালি থানার পরিদর্শক মাহবুবুর রহমান স’রকার জানান, এখন পর্যন্ত নি’র্যাতিত না’রীর প’রিবারের পক্ষ থেকে কোনো অ’ভিযোগ দেওয়া হয়নি। অ’ভিযোগ পেলে ত’দন্ত করে দো’ষীদের বি’রুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

চিকিৎসক বললেন অসম্ভব, তার পরেও চমৎকার ঘটনা ঘটে গেল!

দিনাজপুরে একসঙ্গে তিন সন্তানের জন্ম দিয়েছেন পারভীন বেগম (৩০) নামের এক নারী। নরমাল ডেলিভা’রির মাধ্যমে তিন সন্তানের জন্ম দিয়েছেন ওই নারী।

দিনাজপুরের এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতা’লের গাইনি ওয়ার্ডে তিন সন্তানের নরমাল ডেলিভা’রি করানো সম্ভব না হলেও বীরগঞ্জ উপজে’লা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এক চিকিৎসক এটি সম্ভব করেছেন।

পারভীন বেগম বীরগঞ্জ উপজে’লার ৫ নম্বর সুজালপুর ইউনিয়নের বর্ষা চেঙ্গাইক্ষেত্র গ্রামের কৃষক মো. শফিকুল ইস’লামের স্ত্রী’।বুধবার (০৪ নভেম্বর)

বীরগঞ্জ উপজে’লা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তিন সন্তানের জন্ম দেন ওই নারী। নরমাল ডেলিভা’রির মাধ্যমে দুই ছে’লে ও এক মে’য়েসন্তানের জন্ম দেন এই মা।

একসঙ্গে তিন সন্তান জন্ম দেয়ায় উপজে’লা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রসূতির আত্মীয়-স্বজনসহ প্রতিবেশী ও উৎসুক জনতা শি’শুদের দেখতে ভিড় করেন।

উপজে’লা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল কর্মক’র্তা চিকিৎসক আফরোজ সুলতানা লুনা বলেন, তিন সন্তানের শারীরিক অবস্থা ভালো আছে। তাদের মা সুস্থ আছেন। সিজার ছাড়াই তিন সন্তানের জন্ম দিয়েছেন ওই প্রসূতি।

চিকিৎসক আফরোজ সুলতানা আরও বলেন, ১ থেকে ৩ নভেম্বর পর্যন্ত দিনাজপুরের এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতা’লের গাইনি ওয়ার্ডে ভর্তি ছিলেন ওই নারী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here