১৭ বছরের কিশোরীকে বিয়ে করেছিলেন ৭৮ বছরের বৃদ্ধ। মাস খানেক আগের ইন্দোনেশিয়ার পশ্চিম জাবা দ্বীপের সুবাং এলাকার এই বিয়ে নিয়ে হইচই হয়েছিল বিস্তর।

বয়সের পার্থ্যকের কারণেই এত আলোচনা। কিন্তু এক মাসও টিকল না সেই দাম্পত্য। বিয়ের ২২ দিন পরই বিচ্ছেদ। গত ৩০ অক্টোবর হয়েছে তাঁদের বিবাহ বিচ্ছেদ।

৭৮ বছরের ওই বৃদ্ধের নাম আবা সারনা। ১৭ বছরের পাত্রীর নাম ননি নভিতা। সম্প্রতি নভিতাকে বিবাহ বিচ্ছেদের চিঠি পাঠান আবা।

তা দেখেই হতভম্ভ হয়েছেন নভিতার পরিবারের লোকেরা। কারণ, ওই দম্পতির মধ্যে কোনও রকম গোলমাল ছিল না।

বিচ্ছেদের চিঠি পেয়ে তাঁর বোন অবসাদগ্রস্ত হয়েছিলেন বলে দাবি করেছেন ইয়ান। তিনি বলেছেন, ‘‘এই খবর পাওয়ার পর একদিন কোনও খাবার খায়নি আমার বোন।’’

অন্য দিকে, আবার পরিবারের অভিযোগ ছিল, বিয়ের আগেই অন্তসত্ত্বা ছিলেন নভিতা। কিন্তু এই অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে জানিয়েছেন নভিতার বোন ইয়ান।

আরও পড়ুন=দুবাইয়ে প্রমোদতরীতে ধুমধাম করে জন্মদিন উদযাপন করলেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলি।

স্ত্রী আনুশকা শর্মাকে নিয়ে আজ (৫ নভেম্বর) ৩২তম জন্মদিনের কেক কেটেছেন। এছাড়া ছিলেন তার রয়েল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর ক্রিকেটাররা।

রয়েল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর অফিসিয়াল ইউটিউব চ্যানেলে কোহলির জন্মদিন উদযাপনের একটি ভিডিও দেখা গেছে। তাকে কেক খাইয়ে দিয়েছেন

আনুশকা। আর মোহাম্মদ সিরাজ ও শিবাম দুবেসহ সতীর্থ ক্রিকেটাররা তার সারামুখে কেক মেখে দেন। যুবেন্দ্র চাহাল ও তার বাগদত্তা ধনশ্রী ভার্মা ছিলেন অনুষ্ঠানে।

ভারতের বর্তমান ও সাবেক ক্রিকেটাররা সোশ্যাল মিডিয়ায় কোহলিকে জন্মদিনের শুভেচ্ছায় সিক্ত করেছেন। সাবেকদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য শচিন টেন্ডুলকার, ভিভিএস লক্ষ্মণ, বিরেন্দ্র শেবাগ, সুরেশ রায়না।

দুধের স’ঙ্গে নে’শাদ্র’ব্য খা’ইয়ে গভীর রাতে পু’ত্রবধূ’কে ধ”র্ষ’ণ

বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজে’লায় পু’ত্রবধূকে ধ”ণের অ’ভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল রোববার রাতে এ ঘটনায় অ’ভিযুক্ত শ্বশুরকে গ্রে’প্তার করা হয়েছে।

গ্রে’প্তার ব্য’ক্তির নাম মিলন মিয়া (৫৫)। তিনি বিহার ইউনিয়নের বিহার উত্তরপাড়া গ্রামের বাসিন্দা। আজ সোমবার দুপুরে মিলন মিয়াকে আ’দালতের মাধ্যমে বগুড়া কা’রাগারে পাঠানো হয়।

মা’মলা সূত্রে জানা গেছে, মিলন মিয়ার ছে’লে সঙ্গে তিন বছর আগে পাশের গ্রামের এক মে’য়ের বিয়ে হয়। বিয়ের পর স্বা’মী ট্রাকের হেলপার হিসেবে কাজ শুরু করে।

যে কারণে গৃ’হবধূর স্বা’মী ২০-২১ দিন পর পর বাড়ি আসে। এই সুযোগে পু’ত্রবধূর ও’পর কু’নজর পড়ে শ্ব’শুড়ের।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here