নির্বাচন শেষ, আনুষ্ঠানিক ঘোষণা না হলেও যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট হচ্ছে জো বাইডেন- তা একপ্রকার নিশ্চিত। যদিও ক্ষমতা হস্তান্তরে এখনও দু’মাস বাকি।

তবে হবু প্রেসিডেন্টের বিশেষ টিম এ সপ্তাহেই হোয়াইট হাউসে পৌঁছে গোছগাছের কাজ শুরু করবে ঠিক করেছিল। ভোটের ফলাফল পরিষ্কার হয়ে

গেলে সেটাই নিয়ম যুক্তরাষ্ট্রে। কিন্তু, এতে বাধ সেধেছে ট্রাম্প প্রশাসন।মার্কিন সংবাদমাধ্যম ব্লুমবার্গ জানিয়েছে, হোয়াইট হাউসের জেনারেল সার্ভিসেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের

(জিএসএ) প্রধান এমিলি মারফি এ সংক্রান্ত একটি চিঠিতে সই করতে অস্বীকার করছেন। হোয়াইট হাউসের কিছুটা অংশে হবু প্রেসিডেন্টের কর্মীদের

সেই চিঠিতে সই করেননি ট্রাম্পের ঘনিষ্ঠ সহকর্মী এমিলি মারফি। তবে এ বিষয়ে কোনও মন্তব্য করতে রাজি হননি জিএসএ প্রধান।

তার মুখপাত্র পামেলা পেনিংটন বলেছেন, এখনও স্পষ্ট কিছু বোঝা যাচ্ছে না। প্রশাসন যেভাবে কাজ করার, সেটাই করছে।

শুধু ট্রাম্প প্রশাসনই নয়, বাইডেনের জয় মেনে আনুষ্ঠানিক কোনও বার্তা দেয়নি রিপাবলিকান পার্টিও। যদিও এ দলেরই সাবেক প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশ

জুনিয়র শনিবার জো বাইডেন ও কমলা হ্যারিসকে ফোন করে অভিনন্দন জানিয়েছেন। তবে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প যে নির্বাচনের ফলাফল

চ্যালেঞ্জ করে সুপ্রিম কোর্টে যাবেন বলে বারবার হুমকি দিচ্ছেন, তাতে রিপাবলিকান শিবিরের একটা অংশের মদদ রয়েছে বলে দাবি অনেকের।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ভোটের ফল এখনও একই রয়েছে। বিবিসি-সিএনএনের মতো কিছু গণমাধ্যমের হিসাবে, বাইডেন পেয়েছেন

২৭৯টি ইলেকটোরাল ভোট, আর ট্রাম্প ২১৪টি। অ্যারিজোনা, জর্জিয়া, নর্থ ক্যারোলিনা এবং আলাস্কায় ভোটগণনা এখনও শেষ হয়নি।

তবে দ্য গার্ডিয়ান, আল-জাজিরার মতো গণমাধ্যমগুলো অ্যারিজোনাতেও বাইডেন জয়ী দেখাচ্ছে। সেই হিসাবে, তার মোট ইলেকটোরাল ভোটের সংখ্যা দাঁড়াচ্ছে ২৯০টি।

ইসলাম ও নবীর বি’রুদ্ধে পোস্ট দেয়ায় স্বা’মীর সঙ্গে ছা’ড়াছা’ড়ি হয়

অনলাইন ডেস্কঃ প্রবাদ আছে ‘অতি লোভে তাঁতি ন’ষ্ট’। ফ্রান্সের অ্যাসাইলাম বা রাজনৈতিক আশ্রয় পেতে দেশে বসে ইসলাম ধর্ম, আল্লাহ্ এবং নবী মোহাম্মদ (সা.)

কে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ও টুইটারে ধর্মীয় উ’স্কানিমূলক পোস্ট দিচ্ছিলেন ১৯ বছর বয়সী তরুণী ইশরাত জাহান রেইলি।

গত ৩ বছর যাবত এসব কর্মকাণ্ড চা’লিয়ে আসছিলেন তিনি। এসব কর্মকাণ্ডের কারণে গত ২ বছর আগে স্বামীর সঙ্গে ছাড়াছাড়িও হয় তার।

এরপর ৩ বছর বয়সী ছেলে স’ন্তান নিয়ে মায়ের সঙ্গে রাজধানীর দারুসসালাম এলাকায় ভাড়া বাসায় বসবাস করতেন রেইলি। কমিউনিটি পুলিশে নিম্ন পর্যায়ে চাকরিও ছিল তার।

সম্প্রতি ফ্রান্সে ধর্মীয় অবমাননার ইস্যুতে যখন পুরো বিশ্ব উত্তাল হয়ে ওঠে, সে সময় রেইলি আরও বে’পরোয়া হয়ে ওঠেন। যদিও গত ৩ বছর যাবত এই

কর্মকাণ্ড চা’লিয়ে আসছিলেন তিনি। র‌্যা’বের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, রেইলির ৭টি আইডি ফেসবুক কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ করে নিষ্ক্রিয় করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here