মার্কিন নির্বাচনে ‘ইলেক্টোরাল ভোটে’ জো বাইডেন যদি প্রকৃত অর্থেই বিজয়ী হন তবে, যে কোন মুহূর্তে হোয়াইট হাউজ ছেড়ে দেয়ার ঘোষণা

দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। যদিও তিনি এখনো অভিযোগ করছেন, গেল (৩ নভেম্বর)-এর প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ব্যাপক কারচুপি হয়েছে।

স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার (২৬ নভেম্বর) হোয়াইট হাউজে সংবাদ সম্মেলনে ট্রাম্প বলেন, ‘আমরা জানি প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে কী হয়েছে? অব্যবস্থাপনা এবং ডেমোক্র্যাট দলীয় নেতা-কর্মীরা নির্বাচন চুরি করেছে।’

২০২০-এর প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্র্যাট প্রার্থী বাইডেনের কাছে ইলেক্টোরাল ভোটে বড় ব্যবধানে হেরে যাওয়ায় জনসমক্ষে এবং সাংবাদ সম্মেলনে কম দেখা যাচ্ছে

কে জিতল আর কে হারলো তা জানাবে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। এ সময় ‘ব্যালট সিস্টেমকে’ আবারো ভুয়া অ্যাখা দেন তিনি।

নিয়ম অনুযায়ী আসন্ন ২০ জানুয়ারীতে ক্ষমতা হস্তান্তর করতে হবে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে। আর ওই দিনই শপথ নেবেন নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

ক্ষমতা হস্তান্তর নিয়ে এ দিন ডোনাল্ড ট্রাম্প হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, ‘আগামী ২০ জানুয়ারীর মধ্যে অনেক কিছু হবে। আপনারা শীঘ্রই তা দেখতে পাবেন।’

নির্বাচনে হেরে যাওয়ায় জালিয়াতির অভিযোগ তুলে বেশ কয়েকটি অঙ্গরাজ্যে মামলা ঠুকেছে ট্রাম্পের নির্বাচনী শিবির। যদিও পেনসিলভানিয়াসহ কয়েকটি রাজ্যে ইতিমধ্যে ট্রাম্পের অভিযোগ প্রত্যাখাত হয়েছে।

সম্প্রতি, নিজের ফেসবুকে এক পোস্টে ট্রাম্প লিখেন, ‘জো বাইডেন কেন দ্রুত তার মন্ত্রীসভা গঠন শুরু করেছেন, যখন আমার তদন্তকারীরা লাখ লাখ জাল ভেটের সন্ধান পেয়েছেন।

এই জাল ভোট বাতিল হলে চারটি রাজ্যের ফল উল্টে যাবে, এবং নির্বাচনের ফলও উল্টে যাবে। আশা করি আমাদের নির্বাচনী প্রক্রিয়া এবং

দেশ হিসাবে যুক্তরাষ্ট্রের বিশ্বাসযোগ্যতা রক্ষায় আদালত এবং নির্বাচিত জন-প্রতিনিধিরা তাদের সাহস দেখাবেন। বিশ্ববাসী সব দেখছে।’

সবশেষ ট্রাম্প আদালতে যাওয়ার হুমকি দিয়ে রেখেছেন। নির্বাচনে ২৩২টি ইলেক্টোরাল পেয়েছেন ট্রাম্প আর বাইডেন পেয়েছেন ৩০৬টি।

সম্পাদনায়: তাহের রাব্বী

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা নিয়ে যা জানালেন শিক্ষামন্ত্রী

শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি বলেছেন, ক্লাস খোলার মতো অবস্থা হলেই খুলবো। একইসঙ্গে অনলাইনে ক্লাসও চলবে। তবে স্বাস্থ্য ঝুঁকির বিষয়টি মাথায় রেখেই

এ চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে। বুধবার (২৫ নভেম্বর) এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ তথ্য জানান।

মন্ত্রী জানান, পহেলা জানুয়ারি বই বিতরণ করা হবে। আর ১৫ জানুয়ারির মধ্যে ভর্তি প্রক্রিয়া শেষ হয়ে যাবে বলে আমরা আশা করছি।

উল্লেখ্য, করোনার কারণে গত ১৭ মার্চ থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। গত ১ এপ্রিল এইচএসসি পরীক্ষা শুরুর কথা ছিল। করোনার কারণে তা স্থগিত করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here