রাতের বেলা ঘরে চোর ঢুকে পড়ার সন্দেহে খোঁজ করতেই খাটের নিচ থেকে স্ত্রীর প্রেমিককে পাওয়া যায়। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের দক্ষিণ ২৪ পরগনার সোনারপুরে। গৃহবধূ ও তার প্রেমিককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

জানা গেছে, বাড়ির বাইরে চটি জোড়া পড়ে থাকা দেখে সন্দেহ হয় স্বপন সাউয়ের। কারণ, সেগুলো তাদের পরিবারের কারো নয়। এর পর স্ত্রীকে ডাকেন তিনি।

খোঁজ শুরু হয় ঘরজুড়ে। ডাকা হয় ছোট ভাই তপন সাউয়ের স্ত্রী মৌসুমীকেও।পেশায় ট্যাক্সিচালক তপন তখন বাড়ির বাইরে। চোর ধরতে নেমে

পড়েন মৌসুমীও। আর ঠিক তখনই মৌসুমীর ঘরের খাট থেকে বেরিয়ে আসেন সুভাস দাস। তিনি তপন সাউয়ের বন্ধু। বন্ধুর স্ত্রীর সঙ্গে প্রেমপর্ব চালিয়ে যাচ্ছিলেন সুভাস।

সেই সুযোগে প্রেমিককে ঘরে ডেকে নিয়েছিলেন মৌসুমী। কিন্তু একটা ভুল করে ফেলেন সুভাস। চটি খুলে ঘরে ঢোকেন। রাতে শৌচাগারে যেতে গিয়ে চটিজোড়া

নজরে আসে তপনের ভাই স্বপন সাউয়ের। বাড়িতে চোর ঢুকেছে বলে সন্দেহ হয় তার। খোঁজাখুঁজি শুরু হতেই ছোটভাইয়ের ঘরের খাটের তলা থেকে বেরিয়ে আসে ভাইয়ের বউয়ের প্রেমিক।

হাতেনাতে ধরা পড়ার পর স্বপন সাউ ও তার স্ত্রীর উপরে হামলার অভিযোগ উঠেছে মৌসুমী ও সুভাসের বিরুদ্ধে। তাদের গ্রেফতার

করে সোনাপুর পুলিশ। দু’জনকে জেল হেফাজতের নির্দেশ দেন বারুইপুর আদালতের বিচারক। পুরো ঘটনায় হতবাক মৌসুমীর স্বামী তপন সাউ। বিশ্বাসের এমন দাম যে পাবেন, ভেবেই দিশেহারা তিনি!

চরমোনাই পীর ও মামুনুল হকের গ্রেপ্তার দাবি সিলেট জেলা যুবলীগের

আবুল হোসেন, সিলেট প্রতিনিধি: বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যের বিরোধিতা ও হুমকি প্রদান করায় ইসলামী আন্দোলনের আমির সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করিম (চরমোনাই পীর)

ও হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হকের গ্রেপ্তার দাবি করেছে সিলেট জেলা যুবলীগ।ভাস্কর্য নির্মাণের বিরোধীতার প্রতিবাদে সোমবার (৩০ নভেম্বর)

নগরীতে আয়োজিত এক বিক্ষোভ কর্মসূচী থেকে এমন দাবি জানিয়েছেন যুবলীগের নেতারা।রাজধানীর ধোলাইপাড়ে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণ করছে সরকার।

এর বিরোধিতা করছে ধর্মভিত্তিক বেশ কয়েকটি দল। যাদের মধ্যে চরমোনাই পীর ও মামুনুল হক রয়েছেন। বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণ করা হলে তা ভেঙ্গে বুড়িগঙ্গা নদীতে ফেলে দেওয়ারও হুমকি দিয়েছেন তারা।

এর প্রতিবাদে সোমবার কেন্দ্রিয় কর্মসূচীর অংশ হিসেবে নগরীতে বিক্ষোভ মিছিল করে সিলেট জেলা যুবলীগ। বিক্ষোভ মিছিল পরবর্তী সমাবেশে

জেলা যুবলীগ নেতৃবৃন্দ বলেছেন, স্বাধীন বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িক শক্তি আবারও মাথাচাড়া দিয়ে উঠার পায়তারা করছে। তারা জাতির পিতার ভাষ্কর্য উপড়ে

ফেলার মতো স্পর্ধা দেখাচ্ছে। বঙ্গবন্ধুর একজন সৈনিক ‘‘বেঁচে থাকতে সাম্প্রদায়িক অপশক্তিকে এদেশে বেড়ে উঠতে দেওয়া হবে না। বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নিয়েঅপরাজনীতির দাতভাঙ্গা জবাব দেয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here