পেশায় তিনি একজন ইমাম। স্থানীয় একটি মসজিদে ইমামতির পাশাপাশি নতুন করে শুরু করেছেন ওয়াজ মাহফিল। সেই সুবাদে বিভিন্ন স্থানে ওয়াজ মাহফিলে যেতে লাগবে নিজের মোটর গাড়ি।

আর সেই গাড়ি কেনার জন্য লাগবে প্রায় ২০ লাখ টাকা।সেই টাকার ব্যবস্থা করতেই স্বামী যৌতুকের দাবী করেছিলেন স্ত্রী ও শ্বশুরবাড়ির কাছে!

তবে শেষতক নানা চেষ্টাতেও সেই টাকা আদায় না করতে পেরে স্ত্রী ও শ্বশুর-শাশুড়িকে বেধড়ক মারধর করবার অভিযোগ উঠেছে সেই নব্য বক্তা ও ইমামের বিরুদ্ধে ।

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় গতকাল শুক্রবার সকাল ৯টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। যৌতুকের দাবী মেটাতে অক্ষম শ্বশুর-শ্বাশুরি ঘটনার দিন জামাইয়ের হাতে বেধড়ক মারপিটের শিকার হয়ে গুরুতর আহত অবস্থায় ভর্তি হয়েছেন হাসপাতালে।

ইমামতি পেশার সঙ্গে বিভিন্ন এলাকায় ওয়াজ করেন তিনি। এ জন্য গাড়ি কেনার প্রয়োজন হলে শ্বশুর আজিজুর রহমানের কাছ থেকে ২০ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করেন।

কিন্তু আজিজুর রহমান ওই টাকা দিতে ব্যর্থ হলে ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে মারধর করেন মাহফুজুর। এ সময় স্ত্রী ও শাশুড়িকেও বেধড়ক পেটান তিনি।

স্থানীয়রা এই ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন। দ্বিতীয় স্ত্রী জানিয়েছেন, এর আগে যৌতুক দাবি করায় মাহফুজুরের বিরুদ্ধে কোর্টে মামলা করেছিলেন তার প্রথম স্ত্রী।

এই ঘটনার বিচার চেয়ে আহত আজিজুর রহমান বলেন, ‘মেয়ের জামাই প্রায়ই আমার কাছে গাড়ি কেনা বাবদ ২০ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করেন। আমি গরিব হওয়ায় টাকা দিতে পারিনি। ’

অন্যদিকে এই ঘটনা সম্পর্কে জানতে চাইলে, অভিযুক্ত মাহফুজুর রহমান বলেন, ‘রাগের মাথায় আমি মারপিট করেছি। আমার ভুল হয়েছে।’

এ বিষয়ে শৈলকুপা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ‘মারধরের অভিযোগ পেয়েছি, বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

মাদ্রাসা বন্ধ থাকলেও মাত্র ৯ মাসে কোরআন মুখস্থ করলো ৯ বছরের শিশু

ধর্মঃ ছাত্রটির মাদ্রাসা বন্ধ থাকলেও মাত্র ৯ মাসে পুরো কোরআন মাজিদ মুখস্থ করেছেন ৯ বছরের এক শি’শু।হাফেজ জুবায়ের নামে সেই শি’শুর বয়স মাত্র ৯ বছর।

পড়াশোনা করছে ঢাকার জামিয়া ইসলামিয়া জহিরুদ্দিন আহম’দ, মানিকনগর মাদ্রাসায়। জানা যায়, ২০১৯ সালের অক্টোবর মাসের দিকে জুবায়ের পবিত্র কোরআন মুখস্থ করতে শুরু করে।

এরপর ক’রোনাভা’ইরাসেের কারণে চলতি বছরের মার্চ থেকে স’রকার দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করে। কিন্তু ছোট্ট জুবায়ের বসে থাকেনি,

পড়াশোনা চা’লিয়ে গেছে বাড়িতে। নিয়মিত শিক্ষকদের সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ করে দিকনির্দেশনা নিয়ে গত ৫ জুন পবিত্র কোরআন মুখস্থ করতে স’ক্ষম হয়েছে ছেলেটি।

জুবায়েবের এই সফলতায় জুবায়েরের মাদ্রাসাটির প্রি ন্সিপাল হাফেজ মাওলানা মুফতি জুবায়ের আহম’দ বলেন , শিক্ষকের কাছে সবচেয়ে ের মুহূর্ত হলো ,

যখন কোন শিক্ষার্থী সফলতা অর্জন করতে পারে। আমার কাছে মনে হচ্ছে জীবনের সবচেয়ে ের মুহূর্ত আমি এখন অনুভব করছি।

আমার একজন ছাত্র ক’রোনাকালেও মাত্র ৯ মাসে হাফেজ হয়েছে , এতে আমি অত্যন্ত িত । তিনি আরও বলেন ,

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here