মায়ের স’ঙ্গে প্রতিবেশী যুবকের প’রকীয়ার প্র’তিবাদ করেছিল নাবালিকা মে’য়ে। যার প’রিণতি হল ভ’য়ংকর। ‘শিক্ষা’ দিতে প্রে’মিককে দিয়ে মে’য়েকে ধ’র্ষণ করাল মা!

এরই মধ্যে অ’ভিযুক্ত ম’হিলা ও তার প্রে’মিককে গ্রে’প্তার করেছে পু’লিশ। জা’না গেছে, নি’র্যাতিতার বাবা ক’র্মসূত্রে কলকাতায় থাকেন।

নাবালিকা ও তার মা একা থাকার সুযোগ কাজে লা’গিয়ে দীর্ঘদিন ধ’রেই তাদের বাড়িতে আসত এলাকার যুবক বিশু।

পরবর্তীতে নি’র্যাতিতার মায়ের স’ঙ্গে প্রণয়ের স’স্পর্কে জড়িয়ে পড়ে সে। ক্রমশ ঘনিষ্ঠতা বাড়ে তাদের মধ্যে। বি’ষয়টি টের পেয়েই প্র’তিবাদ করে নি’র্যাতিতা।

ফন্দি আঁটতে শুরু করে মে’য়েকে শায়েস্তা করার। অ’ভিযোগ, এরপরই ওই ম’হিলার ইন্ধ’নে তার মে’য়েকে ধ’র্ষণ করে প্রে’মিক বিশু।

বাবাকে জা’নালে নি’র্যাতিতাকে প্রা’ণনাশের হু’মকিও দেয় দুই অ’ভিযুক্ত। তবে সে সবের তোয়াক্কা না করেই গোটা ঘ’টনা বাবাকে জা’নায় নাবালিকা।

বাবা ও মে’য়ে হাড়োয়া থা’নায় অ’ভিযোগ দা’য়ের করার পর ওই ম’হিলা ও তার প্রে’মিককে গ্রে’প্তার করেছে পু’লিশ।

নিজ কন্যার ও’পর ম’হিলার এমন নৃ’শংস আচরণে হ’তবাক প্রতিবেশীরা। সূত্র- সংবাদ প্রতিদিন।

কুমিল্লায় নাবালিকা শালিকে নিয়ে উধাও দুলাভাই

পঞ্চম শ্রেণীতে পড়ুয়া নাবালিকা শালিকে নিয়ে পা’লিয়েছে দুলাভাই। এতে ৭ মাসের ছেলে শি’শুকে নিয়ে বি’পাকে পড়েছেন বড় বোন।

এ ঘ’টনায় শশুর বাদী হয়ে জামাইয়ের বি’রুদ্ধে লাকসাম থা’নায় একটি অ’ভিযোগ দা’য়ের করেছেন।ঘ’টনাটি ঘ’টেছে, লাকসাম পৌরসভার কাদ্রা গ্রামে।

অ’ভিযোগ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, অষ্টম শ্রেণীতে পড়ুয়া বড় বোন পিংকি আক্তারকে গত দুই বছর আগে বিয়ে করেন একই গ্রামের আবুল কাশেম মো’ল্লার ছেলে তোফাজ্জল হোসেন মন্টু (২৩)।

তাদের সংসারে সাত মাস বয়সী একটি ছেলে স’ন্তান রয়েছে। ইত্যবসরে শালিকা নুশরাত জাহানকে (১২) প্রেমের ফাঁ’দে ফেলে মন্টু।

গত ৩রা ডিসেম্বর সন্ধ্যায় পার্শ্ববর্তী এলাইচ গ্রামের নানার বাড়িতে থাকাবস্থায় মন্টু নুুুশরাতকে ফুশলিয়ে নিয়ে অজানার উদ্দেশ্যে পাড়ি দেয়।​

এদিকে, মেয়েকে না পেয়ে খোরশেদ আলম বা’দী হয়ে জামাই মন্টুকে আ’সামি করে লাকসাম থা’নায় একটি অ’ভিযোগ দা’য়ের করেন।

অপর সূত্রে জানা যায়, শালিকা নুসরাত জাহান কে বিয়ে করেছে তোফাজ্জল হোসেন মন্টু।একসাথে দুই বোনকে বিয়ের ঘ’টনায় এলাকায় ছিঃ ছিঃ রব পড়ে।

এলাকার কতিপয় লোক শরিয়ত বি’রোধী এ ঘ’টনাটি ধা’মাচা’পা দেয়ার চে’ষ্টা করছেন।এ ঘ’টনায় তোফাজ্জল হোসেন মন্টুর মাতা সেতারা বেগম জানান,

মেয়েটা খুব সেয়ানা। সে আমার ছেলেকে বশে নিয়ে বিয়ে করেছে।মন্টুর পিতা আবুল কাশেম মোল্লা বলেন, এটা কোন ঘ’টনাই না।

এ বিষয়টা গ্রামের সর্দার-মাতবররা মী’মাংসা করবেন। মা’মলার বা’দী খোরশেদ আলম জানান, আমি এ ঘ’টনার সুষ্ঠু বি’চার চাই।

এদিকে, নুসরাতের বড় বোন পিংকি আক্তার বলেন, ৭ মাসের শি’শু স’ন্তানের ভবিষ্যৎ নিয়ে আমি চিন্তিত। আমি আমার স্বামীকে চাই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here