যে ঘরে স্বা’মী ও স্ত্রী এক সাথে তাহাজ্জুদ এর
নামায পড়বে, সে ঘরে জীবনে কোনো দিন অশান্তি
হবেনা”– বুখারী ও মু’সলিম।☆

★”যে স্বা’মী তার স্ত্রী’কে এক লোকমা ভাত খাইয়ে দিবে,
আল্লাহ ঐ স্বা’মীর ছগীরা গুনাহগুলো মাফ করে দিবেন এবং যে স্ত্রী তার স্বা’মীকে এক লোকমা ভাত খাইয়ে দিবে

আল্লাহ ঐ স্ত্রীর ছগীরা গুনাহগুলো মাফ করে দিবেন এবং প্রতি লোকমার বিনিময়ে ১০০০ নেকি উভ’য়ের আমলনামায় দান করবেন।
— মু’সলিম শরীফ.☆

★ যে ঘরে স্বা’মী ও স্ত্রী একই প্লেটে খাবার খাবে যতক্ষণ খাবার খেতে থাকবে ততক্ষণ তাদের আমলনামায় সওয়াব লিখা হয়।
— তিরমিজি।☆

★যে স্বা’মী তার স্ত্রী’কে একবার চুমু
দিবে এবং যে স্ত্রী তার স্বা’মীকে একবার চুমু দিবে,
প্রতিটা চুমুর বিনিময়ে ১০০ টা নেকি তাদের আমলনামায় লিখা হয়।
—মুসনাদে আহম’দ (স্বা’মী স্ত্রী অধ্যায়)☆

★ যে স্বা’মী তার স্ত্রীর নিকট গমন করে
এবং শা’রীরিক মি’লনের আগে ২ রাকাত নামাজ পড়ে নেয় ও রাসুল সঃ এর সুন্নত মতো স্ত্রীর সাথে শা’রীরিক

মি’লন করে তাদের প্রতিবার মি’লনে একটি উট কুরবানি করার সওয়াব তাদের উভ’য়ের আমল নামায়
লিখা হয়।

–বায়হাকী ( স্বা’মী স্ত্রী ও পারিবারিক অধ্যায়)..☆

★যে স্বা’মী তার স্ত্রী’কে কোরঅানের এলেম শিখাবে এবং নিজেও শিখবে এবং সে অনুযায়ী আমল করবে আল্লাহপাক মৃ’ত্যুর পর তাদেরকে
জান্নাত দান করবেন।☆

★ যে স’ন্তান তার পিতামাতার
ভরণ পোষন করবে বা সেবা করবে এবং নিজ স্ত্রীর ইজ্জতের হেফাজত করবে তাদের জীবনের সমস্ত
গুনাহ মাফ করে দেওয়া হবে।
— মু’সলিম শরীফ।☆

★ যে স্ত্রী তার স্বা’মীর অনুমতি ছাড়া সেবা করবে সে স্ত্রীর নিজের শ’রীরের ওজনের সমান সোনা ছদকা দান করার সওয়াব তার আমল নামায় প্রতিদিন লিখা হয় ৷ আর যে স্বা’মী তার স্ত্রীর অনুমতি ছাড়া তার সেবা করবে সে স্বা’মীর শ’রীরের ওজনের সমান সোনা দান করার সওয়াব তার আমল নামায় লিখা হয়।
– আবু দাউদ শরীফ☆

★ যে স্বা’মী স্ত্রী উভ’য়ে একে অপরের দিকে তাকিয়ে মিষ্টি হাসি দিবে,
তাদের প্রতিটা হাসিতে তাদের আমলনামায় ১০ টা করে
নেকি দেওয়া হয়।
— আবু দাউদ☆

★যে স্বা’মী বাহিরে যাওয়ার সময় তার স্ত্রী ও স’ন্তানদেরকে সালাম করে বাসা থেকে বের হয় এবং যখন বাহির থেকে এসে আবার সালাম করে অথবা স্বা’মী বাসায় আসলে বা বাহিরে যাওয়ার

সময় স্ত্রী তার স্বা’মীকে সালাম করে সে ঘরে কখনো শয়তান প্রবেশ করতে পারেনা এবং সব সময় রহমত ও বরকত নাজিল হতে থাকে,
কখনো ঝগড়া বি’বাদ হবে না সে ঘরে।
– আবু দাউদ,তিরমিজি।☆

★যখন কোন পুরু’ষ বিয়ের সময় তার স্ত্রী’কে কালেমা পড়ে কবুল বলে দোয়া করলো তখন সেই সময় হতে মৃ’ত্যু পর্যন্ত তাদের আমলনামায় সওয়াব লিখা হয়।
–মু’সলিম।☆

পরবর্তি পোষ্টগুলো পড়তে চাইলে আমার আইডি ফলো ফাষ্ট করে রাখু’ন অথবা ফ্রেন্ড রিকুয়েষ্ট দিয়ে বন্ধুত্বের তালিকায় যুক্ত করুন।তাহলে আমার দেয়া প্রতিটা পোষ্ট আপনার কাছে অটোমেটিক ভাবে পৌছে যাবে
হে আল্লাহ্ “সারা পৃথিবী জুড়ে প্রতিটি মু’সলিম পরিবারকে এভাবে কবুল করুন। (আমিন)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here