ব্যাঙ্কের ম’হিলা স্টা’ফের স’ঙ্গে অ-শা’লীন ব্যবহার ক’রলেন ব্যা’ঙ্ক ম্যা’নেজার, সিসিটিভি ফু’টেজে ধরা পড়লো ভিডিও!

সোশ্যাল মিডিয়া মানেই এক বৃহৎ পরিসরের রঙিন দুনিয়া।এখানে প্রতি মুহূর্তে ভাইরাল হয়ে ওঠে অসংখ্য ভিডিও।

আগেকার দিনের মতো মানুষকে আর খবর জানার জন্য টিভি,রেডিও বা সংবাদপত্রের উপর নির্ভর করতে হয় না।

চারপাশে, দেশে-বিদেশে কী ঘটছে, সেগুলো ফেসবুক, টুইটার, ইউটিউব, গুগলসহ অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাৎক্ষণিকভাবে পেয়ে যাচ্ছে সবাই।

চু’রি,ডাকাতি থেকে শুরু করে অনেক ক্রা’ইম এরও সূত্রপাত হয়েছে এই সোশ্যাল মিডিয়ায়। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও প্রকাশিত হলো যেখানে দেখা যাচ্ছে,

একটি ব্যাংকের মধ্যে এক ব্যক্তি হঠাৎ কাজ করতে করতে সামনের দিকে এগিয়ে যান।এবং সামনে থাকা এক ম’হিলার নিতম্বে হাত দিয়ে তার স’ঙ্গে দুর্ব্যবহার করেন।

ডেস্কের সামনে থাকা কেও এই ঘ’টনাটি হঠাৎ ক্যামেরাব’ন্দি করে তোলে।এবং তা পরে সোশ্যাল মিডিয়ার দরুন ভাইরাল হয়ে যায়।

জানা গিয়েছে ভিডিও টির ঘ’টনাস্থল পাকিস্তানের ইসলামাবাদের একটি ব্যাংক।ভিডিওটি সামাজিক মাধ্যমে প্রকাশিত হওয়ার পর থেকেই,

কমেন্ট বক্সে অনেকেই ওই ব্যক্তিকে লক্ষ্য করে অশালীন মন্তব্য করেছেন।কেও কেও আবার তার শা’স্তির দাবিও করেছেন।

অনেকে প্রশ্ন তুলেছেন ম’হিলা সুরক্ষা নিয়েও। তবে অনেক মানুষই স্বভাববশত উল্লিখিত ম’হিলার পোশাক নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন।

যৌনাঙ্গে রড ঢুকিয়ে পাঁজর ভেঙে খুন গণধর্ষিতাকে

নির্ভ’য়াকাণ্ডের স্মৃ’তি উস্কে ফের ভ’য়ঙ্কর গণধ”ণের ঘটনা উত্তরপ্রদেশে। চলন্ত গাড়িতে মধ্যবয়সি এক মহিলাকে গণধ”ণ করা হল।

ধ”ণের পর নি’র্যাতিতার যৌ’নাঙ্গে র’ড ঢুকিয়ে দেওয়া হল। ভে’ঙে দেওয়া হল পাঁ’জর ও পা’য়ের হা’ড়। র’ক্তপাত বন্ধ না হওয়ায় মৃ’ত্যু হয় ওই মহিলার।

দীর্ঘ গড়িমসির পর ম’য়নাত’দন্ত এবং অ’ভিযুক্তদের বি’রুদ্ধে ধ”ণ ও খু’নের মা’মলা দা’য়ের করা হয় বলে অ’ভিযোগ।

রবিবার সন্ধ্যায় উত্তরপ্রদেশের বদায়ুঁ জে’লার উঘৈতি থানা এলাকায় এই ভ’য়ঙ্কর ঘটনা ঘটেছে। স্থানীয় মন্দিরে পুজো দিতে গিয়েছিলেন নি’র্যাতিতা।

তার পর আর বাড়ি ফেরেননি তিনি। মধ্যরাতে রাস্তার পাশ থেকে র’ক্তাক্ত অবস্থায় তাঁকে উ’দ্ধার করা হয়। ধ”ণের পর দু’ষ্কৃতীরা তাঁকে গাড়ি থেকে ফে’লে দেয় বলে জানা গিয়েছে।

সেই অবস্থায় উ’দ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় ওই মহিলাকে। কিন্তু রাতেই মৃ’ত্যু হয় তাঁর।গোটা ঘটনায় পুলিশি নিস্ক্রিয়তার অ’ভিযোগ তুলেছে নি’র্যাতিতার পরিবার।

তাদের দাবি, অ’ভিযোগ দা’য়ের করা সত্ত্বেও উঘৈতি থানার স্টেশন অফিসার (এসএইচও) রবেন্দ্রপ্রতাপ সিংহ ঘটনাস্থলে যাওয়ার তাগিদ পর্যন্ত দেখাননি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here