ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জের এক মা’দরাসাছা’ত্রীকে অ’পহরণের পর ৬ দিন আ’টকে রেখে ধ”ণের অ’ভিযোগে মো. আতিক মিয়া (২৮) নামে

এক ব’খাটের বি’রুদ্ধে মা’মলা হয়েছে। অ’ভিযুক্ত আতিক মিয়া বড়হিত ইউনিয়নের চন্ডীপুর গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের ছে’লে।

মঙ্গলবার গাজীপুর থেকে উ’দ্ধারের পর ওই দিন রাতেই মা’দরাসাছা’ত্রীর ভাই বা’দী হয়ে মো. আতিক মিয়া ও তার স’হযোগীদের

আ’সামি করে ঈশ্বরগঞ্জ থানায় না’রী ও শি’শু নি’র্যাতন দ’মন আ’ইনে মা’মলা দা’য়ের করে।পরে ৬ জানুয়ারি দুপুরে

বি’য়ের প্রস্তাবে রাজী না হ’ওয়ায় গত ৩০ ডিসেম্বর রাতে প্রাকৃতিক ডাক সারতে ঘরে বাইরে গেলে পূর্ব থেকে ওঁৎ পেতে থাকা আতিক তার দ’লবল নিয়ে ওই ছা’ত্রীকে অ’পহরণ করে।

পরদিন ৩১ ডিসেম্বর আতিক ফোন করে জানায় বিয়ে দিলে ওই ছা’ত্রীকে ফেরত দেয়া হবে। এরপর আর কোনো ধরনের খোঁজ পাওয়া যায়নি।

এ অ’বস্থায় দুইদিন পর মা’দরাসাছা’ত্রীর ভাই ঈশ্বরগঞ্জ থানায় লিখিত অ’ভিযোগ দিলে পু’লিশ ত’দন্তে নামে।

এ অবস্থায় অ’পহরণের স্বী’কার ওই ছা’ত্রী বাড়িতে ফোন করে জানায় তাকে নি’র্যা’তনের পর আতিক গাজীপুরের একটি সড়কে রেখে পা’লিয়ে যায়।

পরে সেখান থেকে তিনি তার ভাইয়ের বাসায় আশ্রয় নেন। খবর পেয়ে মঙ্গলবার ঈশ্বরগঞ্জ থানা থেকে একদল পু’লিশ গিয়ে ওই ছা’ত্রীকে উ’দ্ধার করে।

ওই ছা’ত্রীর বরাত দিয়ে পুলিশ আরও জানায়, বিয়ে প্র’লোভনে তাকে একাধিকবার ধ”ণের পর কাজী অফিসে নিয়ে বিয়ের কথা বলে মহাসড়কে রেখেই পা’লিয়ে যায় আতিক।

বি’ষয়টি নিশ্চিত করে ঈশ্বরগঞ্জ থানার ওসি আব্দুল কাদির মিয়া বলেন, এ ঘটনায় এখনো কাউকে আ’টক সম্ভব হ’য়নি।

তবে প্রযুক্তি ব্যবহার করে অ’ভিযুক্ত আতিকসহ অন্য আ’সামিদের গ্রে’ফতারের চে’ষ্টা চ’লছে।

আল্লাহর সন্তুষ্টির জন্য সারাজীবন ফ্রি চিকিৎসা দিয়েছেন এই ডাক্তার

পিতার ইচ্ছানুযায়ী যুবক বয়স থেকেই মিসরের তানতা শহরের ছোট একটি ক্লিনিকে দরিদ্র মানুষকে ফ্রি চিকিৎসাসেবা দিয়ে গেছেন মুহাম্ম’দ মাশালি।

যদিও তিনি কারও কাছ থেকে ফি নিতেন—সেটা মিসরীয় ১০ পাউন্ডের বেশি নয়। আজ থেকে ৪০ বছর আগে মৃ’ত্যুশয্যায়

পিতা আব্দুল গফফার মাশালি চিকিৎসক পুত্র মুহাম্ম’দ মাশালিকে এই উপদেশ দেন যে, আজীবন পুত্র যেন অ’সহায় মানুষকে ফ্রি চিকিৎসাসেবা দিয়ে জীবনকে দরিদ্র মানুষের জন্য নিবেদন করেন।

পিতার ইচ্ছানুযায়ী তিনি তা-ই করেছেন।একসময় পর্দার আড়ালের এই মহা’নায়ককে মিসরের জনগণ-ই ভালোমতো চিনতো না।

কিন্তু যিনি দেশের অ’সহায় ও অস্বচ্ছল মানুষের জন্য নিজের জীবনকে উৎসর্গ করে এত বড় সেবা দিলেন—মৃ’ত্যুর আগে সৃষ্টিকর্তা তাঁকে বিশ্বব্যাপী বিপুল পরিচিতি দান করলেন।

দেশ ছাপিয়ে আজ পৃথিবীর নানাপ্রান্তের মানুষের মুখেমুখে ছড়িয়ে পড়েছে মানবতার এই চিকিৎসকের নাম ও কর্মের প্রশংসা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here