প্রযুক্তির কারণে বদলে যাচ্ছে মানুষের জীবনযাত্রা – এমন কি তাদের একান্তই ব্যক্তিগত জীবন। ধীরে ধীরে আধুনিক শহুরে মানুষের জীবনে প্রবেশ করে গেছে সে’ক্স ডল।

এবং বদলে যাচ্ছে সম্প’র্কের ধরন।তবে ভাবনার বি’ষয়টি হলো, এই সে’ক্স পুতুলগুলো ধীরে ধীরে এতটাই জীবন্ত হয়ে উঠছে যে,

এটা কতটা জীবন্ত একটি সে’ক্স পুতুল। অনেকেই প্রথমে ভাবতে পারেন, হয়তো কোনও সুপার মডেল।
সময়ের সাথে চা’হিদা আরো বেড়ে যায়।

এবং সাথে সাথে এর নৈপূণ্য আরো কারুকার্যময় হয়ে উঠে। বর্তমানে একজন গ্রাহক তার নিজের চা’হিদার মতো অর্ডার দিতে পারেন, যেখানে গায়ের রঙ, চুলের রঙ, স্টাইল ইত্যাদি বলে দেয়া যায়।

প্রা’ণীদের কথা ভেবে না হলেও শুধু নিজেদের স্বাস্থ্যের কথা মা’থায় রেখে এমন অবস্থার পরিবর্তন হবে।তিনি জানান, চীনে প্রতি বছর এক কোটি কুকুর ও ৪০ লাখ বিড়াল মা’রা হয় ব্যবসার জন্য।

এছাড়া মহামা’রির মধ্যেই কুকুর ও কুকুরের মাংস কেনার জন্য স্থানীয় বাজার-রেস্তোঁরাগুলোতে যেভাবে ভিড় হচ্ছে

তা বর্তমান পরিস্থিতিতে জনস্বাস্থ্যের জন্য অ’ত্যন্ত বিপজ্জনক। ফলে এটি বন্ধে দ্রুত পদক্ষেপ নেয়া প্রয়োজন।স’রকারি চাকরি প্রার্থীদের এবার বড় সু’খবর দিয়েছে স’রকার

ক’রোনা ভাই’রাস দেখা দেওয়ার পর থেকে দেশের সকল চাকরির পরীক্ষা স্থগিত করে দেওয়া হয়। তবে অনেকে চাকরি প্রার্থীদের ব’য়স শেষের দিকে।

এ জন্য এই সকল চাকরি প্রার্থীরা বর্তমানে অনেক টেনশনে রয়েছে।আর এই পরিস্থিতিতে তারা আবার কবে পপরীক্ষা দিতে পারবে তার জন্য অনেক চিন্তায় রয়েছেন।

তবে এবার স’রকারের পক্ষ থেকে স’রকারি চাকরি প্রার্থীদের জন্য বড় সু’খবর এসেছে।ক’রোনাভা’ইরাসেের কারণে ৩০ বছর পেরিয়ে যাওয়া প্রার্থীদের চাকরির আবেদনে পাঁচ মাসের বেশি সময় ছাড় দিয়েছে স’রকার।

মঙ্গলবার (১৫ সেপ্টেম্বর) জনপ্রশাসন ম’ন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মো. ফরহাদ হোসেন জানিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে স’রকারি চাকরি প্রত্যাশীদের এ সুযোগ দেয়া হচ্ছে।

ক’রোনাভা’ইরাসেের সং’ক্র’মণ প্রতিরোধে সাধারণ ছুটিতে স্বাভাবিক জীবনযাত্রার স’ঙ্গে স্থগিত ছিল স’রকারি-বেস’রকারি চাকরির নিয়োগ প্রক্রিয়া। এর মধ্যে অনেকেরই ব’য়স পেরিয়ে গেছে ৩০ বছর।

দু’র্যোগকালীন ৩০ বছর পেরিয়ে যাওয়া প্রার্থীদের চাকরির আবেদনে পাঁচ মাসের বেশি সময় ছাড় দিয়েছে স’রকার। ২৫ মার্চ যাদের ব’য়স ৩০ বছর হবে তারা আগস্ট পরবর্তী সময়ের নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিতে আবেদনের সুযোগ পাবেন।

সবশেষ ২০১৭ সালে পরিসংখ্যান ব্যুরোর যে শ্রমশ’ক্তি জরিপ হয়েছিলো তাতে দেখা যায়, দেশে মোট কর্মক্ষম জনগোষ্ঠী ছয় কোটি ৩৫ লাখ।

এর মধ্যে কাজ করেন, ছয় কোটি আট লাখ না’রী পুরু’ষ। আর বেকার ২৭ লাখ। বেকারত্বের হার ৪.২ শতাংশ হলেও যুব বেকারত্বের হার ১১.৬ শতাংশ।

চলতি বছরের শুরুতে স’রকারি চাকরির তেমন কোন বিজ্ঞপ্তিই দেয়া হয়নি। ২৫ মার্চ থেকে সাধারণ ছুটি ঘোষণার পর তা একেবারেই বন্ধ হয়ে গেছে। এ নিয়ে অনেকটাই হতাশায় পড়েছিলেন চাকরি প্রার্থীরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here