ফরিদপুর ৪ আসনের সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মুজিবুর রহমান নিক্সন চৌধুরী সারা দেশে আলোচিত কাদের মির্জাকে উদ্দেশ করে বলেন,

‘আপনার মতো টোকাই মেয়র মোবাইলে ফেসবুকে কথা বলে ভাইরাল হইয়েন না। নিক্সন চৌধুরী তার মামা শেখ সেলিমের শক্তিতে চলে না।

তার নাম নেওয়ার আগে অজু কইরা নিয়েন। পাগল ঠিক করার ওষুধ জনগণের জানা আছে।’মঙ্গলবার (১৯ জানুয়ারি)

বিকেলে ফরিদপুরের চরভদ্রাসন উপজেলার গাজীরটেক ইউনিয়নে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দিতে গিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

এমপি নিক্সন চৌধুরী তার মামা শেখ সেলিমের জোরেও চলে না, তার ভাই লিটন চৌধুরীর জোরেও চলে না, এমপি নিক্সন চৌধুরী চলে জনগণের জোরে।

এর আগে ১৩ জানুয়ারি এক নির্বাচনী সভায় নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভার আওয়ামী লীগের মনোনীত মেয়র প্রার্থী আবদুল কাদের মির্জা সাংসদ নিক্সন চৌধুরীকে উদ্দেশ্য করে বলেন,

নিক্সন চৌধুরী ভোট চুরি করে সাংসদ হয়েছেন।কাদের মির্জার এ বক্তব্যের জবাব দিয়ে এমপি নিক্সন বলেন, ‘আমি নাকি ভোট চুরি করে এমপি হয়েছি।

এটা কি পাগলেও বিশ্বাস করবে? সারা দেশের মানুষ জানে ফরিদপুর ৪ আসনে কেমন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

জনগণের ভোটে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম মেম্বার কাজী জাফরউল্ল্যাহকে হারিয়ে আমি নির্বাচিত হয়েছি।’

কাদের মির্জাকে উদ্দেশ্য করে এমপি নিক্সন আরও বলেন, ‘আমি চিনিও না জানিও না ওই লোককে। হঠাৎ কইরা ওই ব্যক্তি আমাকে নিয়ে উল্টাপাল্টা মন্তব্য শুরু করছে।

তাকে পাগল ছাড়া আর কিছু বলা যায় না। উনি আওয়ামী লীগের বড় এক নেতার ভাই। সে তার বড় ভাই নিয়া উল্টাপাল্টা কথা বলে, বড় ভাবীকে নিয়ে উল্টাপাল্টা কথা বলে।’

‘নিক্সন চৌধুরীর বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশন মামলা করেছে’ বলে কাদের মির্জার বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় নিক্সন বলেন,

‘আমি মামলা খাইছি বইলা ভয় পাই না। আমার নামে একশ মামলা হলেও আমি ভয় পাই না। মামলা না হইলে নেতা হওয়া যায় না।

আরে আমি তো চুরি করার জন্য মামলা খাই নাই। জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য মামলা খাইছি।’এর আগে এমপি নিক্সন চৌধুরী

চরভদ্রাসনের গাজীরটেক ভায়া সদরপুর বর্ডার আরসিসি সড়কের উদ্বোধন করেন। এরপরে তিনি ওই এলাকায় শীতার্ত দরিদ্র মানুষদের মাঝে কম্বল বিতরণ করেন।

চরভদ্রাসন উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আজাদ খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য প্রদান করেন সাধারণ সম্পাদক হাফেজ মো.

কাউসার, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার আলী মোল্যা, চর অযোধ্যা উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদের সভাপতি এসএম ফরহাদ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here