মানুষের শরীর খুব সে’নসেটিভ৷ যখন তখন যত্রতত্র হাত দেওয়া সমীচিন নয়৷ বাড়ির বড়োরা একথা হা’মেশাই বলে থাকেন৷

কিন্তু এবার এই একই কথা বললেন ডাক্তাররা৷ জানালেন, নারী দেহের কয়েকটি অংশ কখনই যখন তখন হাত দিয়ে স্প’র্শ করা উচিত নয়

কান:- প্রায়শই মনের খেয়ালে আমরা কানে আ’ঙুল ঢু’কিয়ে কা’ন পরিষ্কার করি৷ আদতে কিন্তু কান তাতে নোং’রাই হয়৷

হাতে যা জীবাণু লেগে থাকে, তা সরাসরি কানে চলে যায়৷ তাই যতটা সম্ভব কান থেকে হাত দূরে রাখা উচিত৷

নাক:- হাত নয়৷ নাক পরিষ্কার করার জন্য ব্যবহার করুন স্যানেটাইজড রুমাল৷ গবেষণা বলছে যারা নাক পরিষ্কার করার জন্য হাত ব্যবহার করে,

তারা রো’গাক্রা’ন্ত হয় বেশি৷ তুলনায় যারা একটু সাবধানতা অবল’ম্বন করে, রু’মাল ব্যবহার করে, তারা অনেক বেশি সুস্থ থাকে৷

চোখ:- সারাদিনে বেশ কয়েকবার আমাদের চোখ চুলকোয়৷ কাজের মধ্যে অ’জান্তেই আমরা হাত দিয়ে চোখ চুলকে নিই৷ ডাক্তাররা বলছেন এখান থেকে ছ’ড়িয়ে পড়তে পারে জী’বাণু৷

দেহের সবচেয়ে সেনসেটিভ অংশ চোখ৷ তাই এই অংশটিকে সাবধানে র’ক্ষা করা উচিত৷ বেশিরভাগ সময়ে চোখের ইনফেকশন হাত থেকেই ছ’ড়িয়ে পড়ে৷

নখের নিচের ত্বক:- নখের নিচের ত্বকের চা’মড়া হয় খুব নরম৷ নখের নিচে সবচেয়ে বেশি নোং’রা জমে৷ তাই নি’য়মিত নখ প’রিষ্কার করা উচিত৷

স্ত্রী’কে সঠিক ভাবে উ’ত্তে’জি’ত করার জন্যে যা আ’পনার জানা একান্ত জরুরী

বেশির ভাগ না’রী মি’লনপুর্ব সিঙারে সরাসরি মি’লনের ছেয়ে বেশি তৃ’প্তি পেয়ে থাকে। তাই ফোর-প্লে তে অধিক সময় নিন।

বেশির ভাগ না’রী মি’লনপুর্ব সিঙারে সরাসরি মি’লনের ছেয়ে বেশি তৃ’প্তি পেয়ে থাকে। তাই ফোর-প্লে তে অধিক সময় নিন।

শাররীক মি’লনকালে অথবা অন্য সময় নিয়ে কল্পনা করা মোটেও ভু’ল নয়। স’ঙ্গীর উ’ত্তেজক কর্মকান্ডের সাথে আপনার কল্পনা মিশিয়ে এক সু’খকর আবেশে জড়াতে পারেন।

কল্পনার রাজ্যে সব পুরু’ষ রাজা আর তার স’ঙ্গী রাণীর আসনে থাকে!সরাসরি মি’লনে দেরী করা: না’রী, বিশেষ করে তরুনীরা সাধারনত বেশি বেশি চুমা,

ছোয়া সহ অন্যান্য আনুষাঙ্গিক উ’ত্তেজক বি’ষয় একটু ব’য়স্কদের চেয়ে বেশি কামনা করে।ব’য়সবেধে চ’রম উ’ত্তেজনায় পৌছতে কম/বেশি সময় নিয়ে থাকে।

আপনার স’ঙ্গীর আকাঙ্খার উপর ভিত্তি করে পেনিট্রেশানের আগে আরো কিছু সু’খ আদান প্রদান করুন।
আমাদের দেশে এখনো টয় বিক্রি ও ব্যবহার নি’ষিদ্ধ।

তাই না’রীকে উ’ত্তে’জিত করার জন্য ভাইব্রেটর এর বিকল্প আপনার মধ্যমা আঙুলী দিয়ে তার ভিতর জি-স্পট ( কিছুটা ভিতরে অতি সংবেদনশীল অঞ্চল) এ কম্পন সৃষ্টি করতে পারেন।

তবে মনে রাখবেন কোন অভ্যাস যেন স্থায়ী না হয়ে যায়!মে’য়েদের ডিম্বাশয়ে ক্যা’ন্সার হবার কয়েকটি মা’রাত্মক লক্ষন যা বেশিরভাগ মে’য়েরাই অবহেলা করে থাকে

মে’য়েদের ডিম্বাশয়ে ক্যা’ন্সার সব থেকে সাংঘাতিক রো’গ গু’লির মধ্যে একটি। এটা এমন এক কঠিন ব্যাধি যা ডিম্বাশয়ে শুরু হয় এবং আস্তে আস্তে শ’রীরের সমস্ত অ’ঙ্গে ছড়িয়ে পড়ে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here