ভারতে বিজেপি ‘ধর্ম নিয়ে রাজনীতি’ করছে বলে অভিযোগ করেছেন টালিউড অভিনেত্রী ও পশ্চিমবঙ্গের তৃণমূল কংগ্রেসের এমপি নুসরাত জাহান।

সোমবার পশ্চিমবঙ্গে এক জনসভায় তিনি এ কথা বলেন। নুসরাত বলেন. বাংলার মাটিতে কোনো মেয়ের অসম্মান হতে দেব না।

মানুষকে সত্যের পাশে থাকতে বলে মঞ্চ ছাড়লেন এ নেত্রী ও অভিনেত্রী।খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।
সম্প্রতি টালিউডের দুই অভিনেত্রী সায়নী ঘোষ এবং

দেবলীনা দত্তের সঙ্গে বিজেপির প্রকাশ্য বিতণ্ডা প্রসঙ্গেও কথা বলেন এমপি নুসরাত। তিনি বলেন, যে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী একজন মহিলা, সেখানকার মেয়েরা ধর্ষণের হুমকিকে ভয় পায় না।

বিজেপিকে উদ্দেশ্য করে নুসরাত বলেন, তোমরা বাংলার সংস্কৃতি বোঝ? বোঝ না বলেই এখানকার মেয়েদের অপমান করো।

কিন্তু জেনে রাখ– বাংলার মেয়েদের সম্মান তাদের হাতেই। তাই তোমরা কেড়ে নিতে পারবে না।নুসরাত বলেন, আমি আপনাদের পাশে আছি।

জাতি-ধর্ম নির্বিশেষে সকলে একসঙ্গে পশ্চিমবঙ্গকে এগিয়ে নিয়ে যাবে। যে দল মানুষের পাশে নেই, তার জায়গা হবে না বাংলার মাটিতে।

অন্যায়ের বিরুদ্ধে সমবেত হয়ে এগিয়ে আসার বার্তা শোনা গেল নুসরাতের গলায়। মানুষকে ‘চোখ-কান খোলা’ রাখার কথা বললেন তিনি।

নুসরাত বলেন, কোনো ঝামেলা হলেই নিজের দলের মহিলা কর্মীদের এগিয়ে দেয় বিজেপি। কারণ মেয়েদের সম্মান করতে জানে না তারা।

স্বামী থাকেন পাশের রুমে আর স্ত্রী রাত্রিযাপন করেন বন্ধুর সঙ্গে

রাত বাড়ছে। কিন্তু পুরুষ মানুষটির যাওয়ার নাম নেই। মনির বেশ বিরক্ত লাগছে। ছোট্ট একটি বাসা। মাত্র দুটি রুম।

এরমধ্যেই স্বামী আজাদের ওই বন্ধু প্রায় দু’ঘন্টা হলো বসে আছে। মনির স্বামী আজাদ নিজেই তাকে বারবার বেড রুমে ডেকে নিয়ে আসছে।

অন্যান্য দিনের মতোই আজাদ নেশাগ্রস্ত। মনিকে চোখা রাঙানি দিচ্ছেন বারবার। বলছেন, আমার এই বন্ধুটি বেশ ভালো। তুমি ওর সঙ্গে গল্প করো। আমি কাজটা শেষ করে আসছি।

মনি বাধা দেন। এতো রাতে কিসের কাজ। তবুও বাইরে থেকে দরজাটা বন্ধ করে চলে যান আজাদ। ফিরেন ঘন্টা খানেক পরে।

এটা অবশ্য নতুন না। এর আগেও কয়েকবার এরকম ঘটনা ঘটিয়েছেন আজাদ। মনি পা জড়িয়ে ধরে কেঁদেছেন।

এভাবে নিজের বউকে অন্যের কাছে তোলে না দিতে অনুনয় করেছেন। কোনো কথা শুনেননি আজাদ। উল্টো চোখ রক্তবর্ণ করে শাসিয়েছেন।

বলেছেন, এছাড়া ভাত জুটবে না। সে যা বলে তাই করতে হবে। এ নিয়ে বাকবিতন্ডার এক পর্যায়ে গায়ে হাত তোলেছেন পর্যন্ত।

আজাদের বন্ধু পাশের রুমে। লোকটা সবই বুঝতে পারে। তবু তারও মনুষ্যত্ববোধ জাগে না। বারবার ব্যর্থ হয়ে ফিরে যান। আবার আসেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here