পৃথিবীতে কিছু আজব আজব জিনিস আছে যা আমরা অনেক ক্ষেত্রে জানতে পারিনি এবং অনেক জিনিসের সম্বন্ধে আমাদের ধারণা অনেকটাই কম

তবে দিন যত যাচ্ছে তত বিজ্ঞানীরা কিছু কিছু জিনিস সম্বন্ধে আমাদের সামনে দাড়ান তথ্য-উপাত্ত উঠিয়ে নিয়ে আসছেন যাওয়ার আগে কখনই জানতাম না এবং

যেটা আমাদের ধারণার একেবারে বাইরেই ছিল কিছু প্রানী আমরা সচরাচর দেখতে পাই যেগুলো আমরা খাদ্য হিসেবে ব্যবহার করি অনেক ক্ষেত্রেই সেগুলো আমাদের জন্য বিপদজনক হতে পারে

সেটা আমরা অনেক সময় চিন্তা করতে পারিনা তবে বিজ্ঞানীরা এ ধরনের প্রাণীদের ওপর গবেষণা চালিয়ে অনেক ক্ষেত্রে দেখতে পাওয়া যায়

সংবাদমাধ্যম ওয়াশিংটন পোস্ট এক প্রতিবেদনে জানায়, মাছগুলো দেখতে অনেকটা সা’পের মতো। তাই নাম দেওয়া হয়েছে ’স্নে’কহেড ফিশ’।

১৯৯৭ সালেও একবার ক্যালিফোর্নিয়ার সান বার্নাডিনোর সিলভারহুড লে’কে ধরা পড়ে এই মাছ। সেসময় ধারণা করা হয়েছিল মাছটি পূর্ব এশিয়ার।

এটিকে এখন জর্জিয়ায় পেয়ে অবা’ক হচ্ছেন বিজ্ঞানীরা।২০০২ সালে স্নে’কহেড ফিশ ধরা এবং বিক্রি বে’আইনি বলে ঘোষণা করা হয়।

সম্প্রতি মেরিল্যান্ড প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের বিজ্ঞানীরা গবেষণায় জানতে পেরেছেন, এর শ্বা’সত’ন্ত্র এমনভাবে তৈরি যে বাতাস থেকে মানুষের মতো শ্বাস নিতে পারে।

ফলে পানি থেকে ডা’ঙায় তুললেও জীবন ধারণে কোনো সমস্যা হয় না।তবে আচমকা পরিবেশ বদলের ফলে কিছুটা নি’স্তে’জ হয়ে পড়ে।

জলাশয়ের অন্যান্য প্রাণী, ছোট মাছ এমনকি ছোট ইঁদুরও এর খাদ্য তালিকায় রয়েছে। আর এই কারণেই অন্যান্য জলজ প্রাণীর কাছে এটি বি’প’দের কারণ।

লম্বায় তিন ফুটের কাছাকাছি মাছটি প্রায় ১৮ পাউন্ড ওজনের হয়। সেই সঙ্গে রয়েছে ধা’রা’লো দাঁত। যার সাহায্যে শি’কারে কোনো সমস্যা হয় না।

মাস হচ্ছে মানুষের অন্যতম একটি প্রিয় খাবার আমিষের বেশ বড় একটি উৎস হচ্ছে মাছ তবে যুক্তরাষ্ট্রের সমুদ্র বিজ্ঞানীরা এবার একটি মাছের সম্বন্ধে বেশ ভাল ধারণা দিয়েছেন

সাধারণ মানুষদের এই মাছটিকে ভয়ঙ্কর মাছ সেবা আখ্যায়িত করা হচ্ছে পানি ছেড়ে বাঁচতে পারে এই মাছ মাছগুলো দেখতে অনেকটা সাপের মত এবং

সবথেকে অবাক যে বিষয়ে সেটি হচ্ছে এই মাছটি মানুষের মতো শ্বাস নিতে পারে এবং পানি থেকে ডাঙ্গায় তুলে নিলেও জীবনধারণের কোন সমস্যা হয় না

Edit

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here