বর্তমানে পৃথিবীর খবর জানার জন্য একমাত্র মাধ্যম হলো সোশ্যাল মিডিয়া।পৃথিবীর নানা অদ্ভু’ত আ’শ্চর্য ঘ’টনাবলী আম’রা সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে দেখতে পারি ও জানতে পারি।

এমনকি সোশ্যাল মিডিয়াকে কাজে লাগিয়ে অনেক মানুষ তার সুপ্ত প্রতিভা কে বিশ্বের সামনে আনার সুযোগ পান। আমা’দের দেশের কোন কোন

এমন অনেক প্রতিভা আছে যারা উপযুক্ত সুযোগের অভাবে সুপ্তই থেকে যান, কিন্তু আজকাল সোশ্যাল মিডিয়া সেই অসুবিধা দূর করেছে।

আজকাল সোশ্যাল কিশোর কি’শোরী ও যুবক যুবতীদের প্রাধান্য বেশি। নাচ গান প্রভৃতি ভিডিওর সাথে সাথে নানারকম অদ্ভু’ত ঘ’টনাও ভাইরাল হতে দেখা যায়,যা দেখে আম’রা সত্যিই অ’বাক হয়ে যাই।

মেয়েটির পরনে রয়েছে সবুজ রংয়ের শাড়ি এবং কালো ব্লাউস, ছেলেটির পরনে রয়েছে সাধারণ শার্ট প্যান্ট। গানের তালে তালে তারা অত্যন্ত নি’খুঁতভাবে পারফর্ম করছে।

সম্ভবত এটি কোন ডা’ন্স একাডেমি অথবা এটি কোন ফাংশন শুরু হওয়ার আগে ছাত্রছাত্রীরা রিহা’র্সেল দিচ্ছে।

কিন্তু আগাগোড়াই পুরো ব্যাপারটি দর্শকের কাছে খুবই ভালো লেগেছে। ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়ায় খুবই ভাইরাল হয়েছে। বিশেষ করে তাদের এই সুন্দর নাচ সকলের মন কেরেছে।

তাদের মধ্যে নেই কোন অশা’লীনতা, নেই কোনো ব্য’ঙ্গ বি’দ্রুপ, অত্যন্ত পরিমার্জিত ভাবে তারা সকলের সামনে পারফর্ম করেছে।

তাই দর্শক তাদের খুবই পছ’ন্দ করেছেন। আজকালকার দিনে ছেলেমেয়েদের হাতে স্মার্টফোন এসে যাওয়ায় সভ্যতার অনেক পরিবর্তন হয়েছে।

কারণ স্মার্টফোন যেমন একদিকে ভালো অ’পরদিকে তেমনি ক্ষ’তিকর। স্মার্টফোনের ফলে পুরো পৃথিবীতে যেমন আম’রা হাতের মুঠোয় পেয়েছি, তেমনি বাচ্চাদের কাছে তা খা’রাপ ভাবেও কাজ করেছে।

বর্তমানে অনেক অ্যাপই যুবক-যুবতীরা অত্যন্ত অশা’লীনভাবে পারফর্ম করে থাকেন, কিন্তু এই যুবক যুবতী একদম নিখুঁ’ত ভাবে অত্যন্ত ভ’দ্র রুচিতে সকলের মন করেছে জয়।

তাদের এই ভিডিও প্রমাণ করেছে প্রতিভা প্রদর্শনের জন্য কোন অশা’লীনতা প্রদর্শনীর প্রয়োজন হয় না, প্রতিভা সবসময়ই ন’ম্র ভ’দ্র এবং মার্জিত।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here