যে জিনিসের গন্ধ পেলে না’রীদের উ’ত্তেজনা বেড়ে যায় ১০০ গুন- সু’খদায়ক বা স্যাটিস্ফায়িং একটি যৌ’ন মি’লনের প্রথম শর্ত হচ্ছে আপনার পার্টনারের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হওয়া।

আপনি যে আ’নন্দ পাচ্ছেন সেও ততটুকূ আ’নন্দ পাচ্ছেন কী না তা যখন আপনি নিশ্চিত করতে উৎসাহিত হবেন,

তখনই যৌ’নমি’লন আপনে আপ স্যাটিস্ফায়িং হবে। না’রী কিছুটা উৎপীড়িত হ’তে চায় যৌ’ন মি’লনে-তাই মনোবিজ্ঞান স্বীকার করে যে,

পুরু’ষ কিছুটা উৎপীড়ন করতে পারে না’রীকে। কিন্তু প্রহরণ ঠিক শৃঙ্গার নয়-কারণ মি’লনের আগে এর প্রয়োজন নেই।

প্রাচীন মানুষরা বিভিন্ন ভেষজ পদার্থের মাধ্যমেই না’রীদের যৌ’ন উ’ত্তেজনা বৃ’দ্ধি করতেন।আজ দিন বদলেছে, সময় পালটেছে।

বাজারে এসেছে বিভিন্ন যৌ’নবর্ধক ওযুধ। কিন্তু সম্প্রতি এমন একটি ছত্রাকের সন্ধান পাওয়া গেছে, যার গন্ধ শোঁকা মাত্রই না’রীদের যৌ’ন উ’ত্তেজনা তৎক্ষনাৎ বেড়ে যায়।

যদিও এই ছত্রাকের নাম এখনও পর্যন্ত জানা যায়নি, তবে এটুকু নিশ্চিত হওয়া গেছে যে এটি ডিক্ট্যোফারা প্রজাতি বংশোদ্ভূত।

জল হ্যালিডে এবং নোয়া সোল নামে দুই বিজ্ঞানী এই বিশেষ ছত্রাকটি আবি’ষ্কার করেন।তাঁরা জানিয়েছেন,

এই বিশেষ ছত্রাকের গন্ধ কোনও ম’হিলার নাকে যাওয়া মাত্রই তিনি প্রচণ্ডভাবে উ’ত্তেজিত হয়ে পড়েন।এই মর্মে তারা একটি পরীক্ষাও চা’লিয়েছিলেন।

সেখানেই দেখা গেছে, ১৬ জনের মধ্যে ছ’জন ম’হিলাই এই চটদলদি যৌ’ন উ’ত্তেজনার শি’কার হয়েছেন। বাকি ১০ জনের উ’ত্তেজনা তৎক্ষনাৎ

না বাড়লেও হৃদস্পন্দন অনেকটাই বেড়ে গেছিল। তবে এই একই পরীক্ষা পুরু’ষদের উপর চা’লানো হলেও, কোনও প্রভাব বিস্তার করতে পারেনি

ইন্টারন্যাশনাল জার্নাল অফ মেডিসিনাল মাশরুম পত্রিকাতেও একথা দাবি করা হয়েছে যে এই বিশেষ ছত্রাকে একধরনের গন্ধ থাকে যা থেকেই ম’হিলাদের চটদলদি যৌ’ন উ’ত্তেজনা বৃ’দ্ধি পায়।

স’হবা’সের সময় বাড়িয়ে নি’ন যৌ’ন মি’লনে’র আগে ২ টি খা’বার খে’য়ে

স’হবাসের ১ ঘন্টা আগে যে ২ টি খাবার খেয়ে যৌ’ন মি’লনের সময় বাড়িয়ে নিন, স্ত্রীকে খুশি করে বীর্’যপতন নিয়ন্তন রাখুন।

অনেক পুরুষেরই যৌ’ন মিল’নের সময় খুব তাড়াতাড়ি বী’র্য পতন হয়। কাংখিত সুখ স্ত্রী কে দিতে পারেনা।

তাছাড়া এক নারী কিংবা একপুরুষের সাথে বার বার মি’লন করলে যৌ’ন মিল’নে বেশি সময় দেয়া যায় এবং মিলনে বেশি তৃপ্তি পাওয়া যায়।কারন স্বরুপ:

নিয়মিত মি,লনে একে অপরের শরীর এবং ভাললাগা/মন্দলাগা, পছন্দসই আসনভঙ্গি, সুখ দেয়া নেয়ার পদ্ধতি ইত্যাদি সম্পর্কে ভালভাবে অবহিত থাকে।

চে,পে ধরা পদ্ধতি আসলে নাম থেকেই অনুমান করা যায় কিভাবে করতে হয়। যখন কোন পুরুষ মনে করেন তার বী,র্য প্রায় স্থ,লনের পথে, তখন সে

অথবা তার সঙ্গী লি,ঙ্গের ঠিক গো,ড়ার দিকে অ,ন্ডকোষের কাছাকাছি লি,ঙ্গের নিচের দিকে যে রাস্তা দিয়ে মু.ত্র/বী.র্য বহিঃর্গা.মী হয় সে শিরা/মু.ত্রনালী কয়েক সে,কেন্ডর জন্য চেপে ধরবেন। (লি,ঙ্গের পাশথেকে দুই আ,ঙ্গুল দিয়ে ক্লি,পের মত আ টকে ধরতে হবে।)।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here