শরীয়তপুর সদর উপজেলায় নিজের আট বছরের মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে মো. ফারুক ব্যাপারী ভোলা (৫৫) নামের একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

বুধবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) দিবাগত রাতে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।মামলার এজাহার ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ১৫ বছর আগে প্রেমের সম্পর্ক করে ঢাকায় শিশুটির

মায়ের সঙ্গে ফারুক ব্যাপারীর বিয়ে হয়। বিয়ের চার বছর পর তারা শরীয়তপুরে চলে যান। বিবাহিত জীবনে তাদের ১১ বছরের এক ছেলে ও আট বছরের এক মেয়ে আছে।

অভাবের সংসারের হাল ধরতে শিশুর মা ২০১৮ সালে সৌদি আরব যান। বর্তমানে তিনি সৌদি আরবে আছেন। সেই সুবাদে মো. ফারুক ব্যাপারী ছেলে ও

ঘটনা কাউকে না বলার জন্য মেয়েকে হুমকি দেন বাবা ফারুক ব্যাপারী। ১৫ ফেব্রুয়ারি শিশুটি তার খালাকে ঘটনা খুলে বলে।

পরে ১৭ ফেব্রুয়ারি ওই শিশুকে নিয়ে খালা পালং মডেল থানায় এসে অভিযোগ করেন। এ ঘটনায় থানায় একটি মামলা হয়েছে।

ভিকটিমের খালা বলেন, ‘মেয়েটি ওর বাবার ভয়ে চুপ ছিল। আমার বাড়িতে আসলে বিষয়টি খুলে বলে। তাই মামলা করেছি। ফারুক তার সঙ্গে পৈশাচিক কাজ করেছে। তার ফাঁসি হওয়া উচিত।’

শরীয়তপুর সদরের পালং মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আসলাম উদ্দিন বলেন, ‘আমরা ভিকটিমের খালার অভিযোগ এবং সার্বিক বিষয় যাচাই-বাছাই করে মামলা নিয়েছি।

বুধবার রাতে নিজ মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে ফারুক নামের একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আজ আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

আর ভিকটিমকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য শরীয়তপুর ১৫০ শয্যার সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here