কাতারভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম আল জাজিরায় বাংলাদেশ স’রকার ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে জড়িয়ে মিথ্যা সংবাদ প্রচারের প্র’তিবাদ চলছেই।

নতুন খবর হচ্ছে, কাতারভিত্তিক গণমাধ্যম আলজাজিরায় সম্প্রতি বাংলাদেশ নিয়ে প্রচারিত প্রতিবেদনটি পুরোপুরি মিথ্যা নয় বলে দাবি করেছেন সাবেক ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুর।

তিনি স’রকারের প্রতি চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে বলেছেন, স’রকার যদি প্রতিবেদন পুরোপুরি মিথ্যা প্রমাণ করতে পারে তিনি স্বেচ্ছায় ফাঁ’সিবরণ করবেন।

আজ শুক্রবার রাজধানীর শাহবাগে অবস্থিত জাতীয় জাদুঘরের সামনে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের দাবিতে আয়োজিত প্র’তিবাদ সমাবেশে বক্তৃতা দেওয়ার সময় এসব কথা বলেন তিনি।

ওয়াইসি বলেন, কেউ যদি অযোধ্যার ওই মসজিদে নামাজ পড়েন তবে তা ‘হারাম’ হিসেবে বিবেচিত হবে। তাঁর

ওই মন্তব্যে মসজিদ ট্রাস্টের সম্পাদক এবং ইন্দো-ইসলামিক কালচারাল ফাউন্ডেশনের আতাহার হুসেন অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন।

দক্ষিণাঞ্চলীয় রাজ্য কর্ণাটকের বিদার এলাকায় ওয়াইসি ‘সংবিধান বাঁচাও ভারত বাঁচাও’ কর্মসূচী অনুষ্ঠানে ভাষণ দেওয়ার সময় বলেন, অযোধ্যার ধান্নিপুরে নির্মিত হতে যাওয়া মসজিদটি ইসলামের নীতিবি’রোধী। এজন্য এটিকে মসজিদ বলা যায় না।

মসজিদটি নির্মাণের জন্য অনুদান প্রদান এবং নামাজ পড়া উভ’য়ই ‘হারাম’ বলেও মন্তব্য করেন ওয়াইসি। ওয়াইসি বলেন, যে মুনাফেকদের দল বাবরী

মসজিদের পরিবর্তে পাঁচ একর জমিতে মসজিদ তৈরি করছে, সেটা মসজিদ নয় বরং তা ‘মসজিদ-ই-জিরার’। কেউ যেন সেখানে দান না করে। যদি আপনারা দান করতে চান, তবে বিদারে কোনও এতিমকে দান করুন।

উত্তর প্রদেশের অযোধ্যার বাবরী মসজিদ-রাম মন্দির মা’মলায় গত বছরের আগস্টে সুপ্রিম কোর্ট বাবরী মসজিদ যেখানে ছিল সেখানে রাম মন্দির নির্মাণের পক্ষে রায় দেয়।

সুপ্রিম কোর্ট আরও নির্দেশ দেয় স’রকার অযোধ্যার কোথাও পাঁচ একর জমি সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডকে দেবে যেখানে মসজিদ তৈরি হবে।

এরপরে উত্তর প্রদেশ স’রকার অযোধ্যার ধান্নিপুর গ্রামে পাঁচ একর জমি সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডকে দিয়েছিল যার উপরে ওই মসজিদ নির্মাণের সূচনা হয়েছে।

এর আগে মু’সলিম পার্সোনাল ল’বোর্ডের সদস্য ও অল ইন্ডিয়া বাবরী মসজিদ অ্যা’কশন কো-অর্ডিনেশন কমিটির আহ্বায়ক জাফরইয়াব জিলানী বলেছিলেন,

ওই প্রস্তাবিত মসজিদ ওয়াকফ আইনের বি’রোধী। কারণ মসজিদ বা মসজিদের জমি কখনো অদলবদল করা যায় না।

শরীয়া আইন অনুসারে তা করা অসম্ভব। এজন্যই মু’সলিম পার্সোনাল ল’বোর্ড এর আগে ওয়াকফ বোর্ডকে জমি না নেয়ার অনুরোধ করেছিল।

কুরআনুল কারীম মানবজাতির জন্য একমাত্র সংবিধান বলে উল্লেখ করেছেন, হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের আমীর আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here