পু’রুষাঙ্গের দু’র্বলতা দূর করার জন্য যেমন ঔষধ খেতে হয়, তদ্রুপ ভাবে পু’রুষাঙ্গের শিরা, উপশিরা, ধমনি সবল ও

শ’ক্তিশালী বানাতে মালিশকৃত ঔষধের প্রয়োজনীয়তা আবশ্যক। এরূপ একটি শাহি মালিশ তেলের বিবরণ নিচে দেওয়া হল

পু’রুষাঙ্গের মালিশ যেভাবে বানাতে হবেঃ বড় একটি বেগুন যা গাছে থাকতে থাকতে পেকে হলুদ রঙের হয়ে গেছে। এরকম একটি বেগুন ভেঙ্গে তার চারদিকে ৬০ টি লবঙ্গ গেঁথে দিবে।

এরপর এ বেগুনকে রোদ্রে না শুকিয়ে বরং ছায়ায় শুকাবে। শুকিয়ে গেলে ছোট একটি কড়াইয়ে আধা কিলো তিলের তেল ঢেলে নিমের

শ’ক্তিশালী বানাতে মালিশকৃত ঔষধের প্রয়োজনীয়তা আবশ্যক। এরূপ একটি শাহি মালিশ তেলের বিবরণ নিচে দেওয়া হল

এরূপ একটি শাহি মালিশ তেলের বিবরণ নিচে দেওয়া হল পু’রুষাঙ্গের মালিশ যেভাবে বানাতে হবেঃ বড় একটি বেগুন যা গাছে থাকতে থাকতে পেকে হলুদ রঙের হয়ে গেছে।

এরকম একটি বেগুন ভেঙ্গে তার চারদিকে ৬০ টি লবঙ্গ গেঁথে দিবে। এরপর এ বেগুনকে রোদ্রে না শুকিয়ে বরং ছায়ায় শুকাবে।

শুকিয়ে গেলে ছোট একটি কড়াইয়ে আধা কিলো তিলের তেল ঢেলে নিমের লাকড়ি দিয়ে আগুণে হালকা গরম করবে। অতঃপর সে বেগুনটিকে কড়াইয়ে দিয়ে হালকভাবে নাড়াচাড়া করে মিশিয়ে ফেলবে।

গৃহকর্মীকে খু’ন্তির ছ্যাকা ও দেয়ালে মাথা ঠুকে নি’র্যাতন করলো ডাক্তারপত্নী
বরিশালের ডাঃ সি.এইচ রবিনের স্ত্রী রাখির অমানুসিক নি’র্যাতনে বাসার শি’শু গৃহকর্মী হাসপাতালে মৃ’ত্যুশয্যায়।

উজিরপুর থানা পু’লিশ উ’দ্ধার করে স্বা’স্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছে। নি’র্যাতিত শি’শু ও তার পরিবার সূত্রে জানা যায়, উজিরপুর উপজে’লার

ওটরা ইউনিয়নের গজালিয়া গ্রামে ডাঃ সি.এইচ রবিনের বাড়ি। তিনি ঢাকা প’ঙ্গু হাসপাতালের রেজিস্টার এবং বাসা শ্যামলীতে।

অভাবের তাড়নায় গত ৬ মাস পূর্বে স্থানীয় বাসুদেবের মাধ্যমে হারতা ইউনিয়নের জামবাড়ি গ্রামের ননী বাড়ৈর মে’য়ে নিপা বাড়ৈ (১১) ডাক্তার

সি.এইচ রবিনের বাসায় গৃহকর্মীর কাজে যায়। নিপার পিতা প্রতিব’ন্ধী, মা ছোট বেলায় সংসার ছেড়ে পা’লিয়ে যায়। অর্ধাহারে-অনাহারের সংসার।

গৃহকর্মী নিপা বাড়ৈ জানায়, কাজের শুরু থেকেই সামান্য ভু’লত্রুটি হলেই ডাক্তার সাহেবের স্ত্রী রাখী তার শ’রীরে কখনো খু’নতি দিয়ে আ’ঘাত,

কখনো বা ধা’রালো চাকু দিয়ে কোপ মারত। এমনকি চি’ৎকার দিলে গ’লা চে’পে ধরে দেওয়ালের সাথে মাথায় আ’ঘাত করত।

এতে তার শ’রীরের দুই হাত, হাতের অ’ঙ্গুল, মাথা, গ’লায়, মুখমন্ডল ও পিঠসহ বিভিন্ন স্থানে অগনিত ক্ষ’তের চিহ্ন রয়েছে।

বাড়ি থেকে মাঝে মধ্যে বৃ’দ্ধ দাদু ও কাকারা ফোন দিলে ডাক্তারের স্ত্রী রাখী মা’রধরের কথা না বলার জন্য ভ’য়ভীতি দেখাত।

গত ২১ ফেব্রুয়ারী গৃহকর্মী নিপা বাড়ৈর উপর ডাক্তারের স্ত্রী অমা’নসিক নি’র্যাতন চা’লায়। মাথায় চাকু দিয়ে কোপ মারে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here