মালয়েশিয়ার অন্যতম বৃহৎ বিশ্ববিদ্যালয় মাসা ইউনিভার্সিটির ছাত্র সং’সদ তথা ‘স্টুডেন্ট রিপ্রেজেন্টিটিভ কাউন্সিল’

(এসআরসি) নির্বাচনে ভাইস প্রে’সিডেন্ট (ভিপি) পদে আবারও জয়লাভ করেছেন বাংলাদেশের শিক্ষার্থী বশির ইবনে জাফর।

২০২১ সেশনের জন্য অনুষ্ঠিত এই নির্বাচনে ভিপি পদে প্রতিদ্ব’ন্দ্বিতা করেন বশিরসহ পাঁচজন। বাকি পাঁচজন প্রতিদ্ব’ন্দ্বীকে হা’রিয়ে ৮১৩ ভোট পেয়ে

তিনি আগামী এক বছরের জন্য আবারও ভিপি নির্বাচিত হলেন। তার নিকটতম প্রতিদ্ব’ন্দ্বী মালয়েশিয়ান এমবিবিএস শিক্ষার্থী মেনালি পেয়েছেন ৪০৭ ভোট।

দেশটির প্রধান প্রধান বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ডাকসুর মতো স্টুডেন্ট রিপ্রেজেন্টিটিভ কাউন্সিল (এসআরসি) নির্বাচনের আয়োজন করা হয়।

স্থানীয় শিক্ষার্থীদের জন্য প্রে’সিডেন্ট পদটি সংরক্ষিত রেখে বাকি আরও আটটি পদ নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন এই এসআরসি নির্বাচনের আয়োজন করে।

গতবছর এ নির্বাচনে আটজন প্রতিদ্ব’ন্দ্বীকে হা’রিয়ে প্রথমবারের মতো কোন বাংলাদেশি এ বিশ্ববিদ্যালয়টির ভিপি হওয়ার গৌরব অর্জন করেন।

এবারের নির্বাচনে প্রধান ৯ টি পদের জন্য মোট ৪২ জন প্রতিদ্ব’ন্দ্বী অংশ নেয় এবং অনলাইন ভোটে অংশ নেয় ১৭৯২ জন শিক্ষার্থী। নির্বাচনের আগে

এ বছর বশির ইবনে জাফর প্যানেল ভিত্তিক অংশ নেয়ার সি’দ্ধান্ত নেন এবং তার প্যানেল থেকেই বিভিন্ন পদে আরো ৪ জন প্রার্থী বিজয়লাভ করে।

বশির সমর্থিত অন্যান্য প্রার্থীদের মধ্যে প্রে’সিডেন্ট পদে হাফিজ মুহাম্ম’দ উফাফ, ওয়েলফার ব্যুরো পদে বাংলাদেশি শিক্ষার্থী ফয়সাল সাদিক,

সোশাল এন্ড কালচারাল ব্যুরো পদে মালয়েশিয়ান শিক্ষার্থী আমীরা এবং স্পোর্টস এন্ড রিক্রিয়েশনাল ব্যুরো পদে আরেক বাংলাদেশি শিক্ষার্থী সোহানুর রহমান জয়লাভ করেন।

বিশ্ববিদ্যালয়টির প্রকৌশল বিভাগে অধ্যয়নরত বশির ইবনে জাফরের বাড়ি কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়ায়। কওমি মাদ্রাসা ও কলেজে পড়াশোনার পাশাপাশি তিনি কোরআনের হাফেজও।

রাজধানীর দনিয়া বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ থেকে উচ্চমাধ্যমিক পাসের পর স্কলারশিপে মালয়েশিয়ায় পড়াশোনার করতে যান তিনি।

তার বাবা মাওলানা জাফর আহম’দ কাসেমী জামালপুর জে’লার জামেউল উলুম হাক্কানিয়া দাওরায়ে হাদিস মাদরাসার মুতামিম এবং মা গৃহিণী। তাদের বর্তমান নিবাস ময়মনসিংহ শহরে

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here