আন্তর্জাতিক না’রী দিবসে দলীয় নেতাকর্মীদের আরেকটা যু’দ্ধে ঝাঁ’পিয়ে পড়ার আহ্বান জানিয়েছেন ম’হিলা দলের সভাপতি আফরোজা আব্বাস। তিনি বলেছেন, আজ এ স’রকারের আমলে আমরা না’রীরা সবচেয়ে বেশি অবহেলিত,

বঞ্চিত ও নি’র্যাতিত। এ অবস্থা থেকে উত্তরণে আমাদের অবশ্যই জেগে উঠতে হবে।সোমবার আন্তর্জাতিক না’রী দিবস উপলক্ষে জাতীয়তাবা’দী ম’হিলা দলের র্যা লি-পূর্ব সমাবেশে তিনি এ মন্তব্য করেন।রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে এ র্যা লির আয়োজন করে।

জাতীয়তাবা’দী ম’হিলা দল সভাপতি বলেন, গণতন্ত্রকে ফিরিয়ে আনতে হবে। দেশনেত্রী খালেদা জিয়া মানে গণতন্ত্র, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া মানে বাংলাদেশ। গণতন্ত্রকে পুনরুদ্ধার করতে হলে আমাদের আবার আরেকটা মুক্তিযু’দ্ধ করতে হবে।

আরেকটা যু’দ্ধের আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, এই আন্তর্জাতিক না’রী দিবসে আমাদের অ’ঙ্গীকার হোক- আসুন আরেকটা মুক্তিযু’দ্ধ করি। যে যু’দ্ধে না’রীরা অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে, দেশনেত্রীকে মুক্ত করবে। দেশনেত্রী মুক্ত হলে গণতন্ত্র মুক্ত হবে।

সমাবেশে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাস’চিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, প্রধান বিচারপতি ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে একটি মা’মলার শুনানিতে বলেছেন, ‘সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য দেয়া ঠিক নয়।’

আবার বলেছেন, ‘অন্যান্য দেশেও ব্যঙ্গচিত্র হয়, কিন্তু বাংলাদেশের ব্যঙ্গচিত্র অন্যরকম। এতে দেশের ইমেজ ক্ষুণ্ন হয়।’ কিন্তু আমি প্রধান বিচারপতির কাছে একটি প্রশ্ন রাখতে চাই,

কোনো নাগরিকের কথা বলা, মুক্তকণ্ঠে আওয়াজ তোলা, চিত্রাঙ্কনে ব্যঙ্গচিত্র তুলে ধরলে যদি তাকে স’রকারি হেফাজতে খু’ন করা হয় তাহলে তাতে কি দেশের ভাবমূর্তি বৃ’দ্ধি পায়?

হাজী সেলিমের ১৩ বছরের সাজার আপিলের রায় আজ

হাজী সেলিমের ১৩ বছরের সাজার আপিলের রায় আজ
অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে বিচারিক আ’দালতের দেয়া ১৩ বছরের সাজার বি’রুদ্ধে সং’সদ সদস্য হাজী মোহাম্ম’দ সেলিমের করা আপিলের রায় ঘোষণা করা হবে আজ (মঙ্গলবার)। ২৪ ফেব্রুয়ারি আপিলের ও’পর শুনানি শেষে রায় ঘোষণার জন্য ৯ মার্চ দিন ধার্য করেন হাইকোর্ট।

হাইকোর্টের বিচারপতি মো. মঈনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি এ কে এম জহিরুল হকের সমন্বয়ে গঠিত ভার্চুয়াল বেঞ্চে এ রায় ঘোষণা করা হবে।

২০০৭ সালের ২৪ অক্টোবর হাজী সেলিমের বি’রুদ্ধে অবৈধভাবে সম্পদ অর্জনের অভিযোগে লালবাগ থানায় মা’মলা করে দু’র্নীতি দ’মন কমিশন (দুদক)। মা’মলায় ২০০৮ সালের ২৭ এপ্রিল তাকে ১৩ বছরের কা’রাদ’ণ্ড দেন বিচারিক আ’দালত। কা’রাদ’ণ্ডের পাশাপাশি তাকে ২০ লাখ টাকা জরিমানাও করা হয়।

২০০৯ সালের ২৫ অক্টোবর এ রায়ের বি’রুদ্ধে হাইকোর্টে আপিল করেন হাজী সেলিম। ২০১১ সালের ২ জানুয়ারি হাইকোর্ট তার সাজা বাতিল করেন। হাইকোর্টের রায়ের বি’রুদ্ধে আপিল করে দুদক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here