রাজধানীর বনানী কবরস্থানে চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় অ’ভিনেতা শাহিন আলম। আজ মঙ্গলবার সকাল ১০টায় বড় ভাইয়ের কবরের জায়গায় সমাহিত করা হয়েছে নব্বইয়ের দশকের এই চিত্রনায়ককে। এসময় চিত্রনায়ক ওম’র সানী এবং শাহীন আলমের পরিবাবের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

শাহিন আলমের ছে’লে ফাহিম নূর আলম বলেন, ‌‘সকালে বাবার লা’শ বনানী কবরস্থানে দাফনের জন্য নিয়ে আসার পর অনেকক্ষণ অ’পেক্ষা করতে হয়েছে আমাদের। আমা’র চাচার কবরের স্থানে বাবার ম’রদে’হ দাফনের কথা ছিল।

কিন্তু কবর কমিটির লোকেরা তাতে বা’ধা দেয়। তাদের বক্তব্য, মেয়রের অনুমতি নিয়ে সেখানে দাফন করতে হবে। অবশেষে সে অনুমতি নিয়েই চাচার কবরের স্থানে বাবাকে রেখে এলাম।’

এদিকে, বন্ধু ও সহকর্মীর বিদায়ে শো’কাহত চিত্রনায়ক ওম’র সানী। এক ফেসবুকবার্তায় তিনি লিখেছেন, ‘শেষ বিদায় দিয়ে আসলাম ভোরবেলায় বনানী কবরস্থানে, বন্ধু শাহিন আলমকে।

গতকাল সোমবার রাত ১০টা ৫ মিনিটে রাজধানীর আজগর আলী হাসপাতা’লে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মা’রা যান চিত্রনায়ক শাহিন আলম। তিনি দীর্ঘদিন ধরে কিডনি ও ডায়াবেটিস রো’গে ভুগছিলেন।

সম্প্রতি করো’না আ’ক্রান্ত হন। অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে হাসপাতা’লে ভর্তি করা হয়। সর্বশেষ শনিবার রাতে তাকে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়। সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃ’ত‌্যু হয়।

১৯৮৬ সালে বিএফডিসির নতুন মুখের সন্ধানের মাধ্যমে সিনেমায় পা রাখেন শাহিন আলম। তার অ’ভিনীত প্রথম সিনেমা ‘মায়ের কা’ন্না’। এটি ১৯৯১ সালে মুক্তি পায়। দীর্ঘদিন ধরেই তিনি সিনেমায় অনিয়মিত ছিলেন। ব্যস্ত ছিলেন নিজ ব্যবসা নিয়ে।

তার উল্লেখযোগ্য সিনেমাগুলোর মধ্যে রয়েছে- ‘ঘাটের মাঝি’, ‘এক পলকে’, ‘গরিবের সংসার’, ‘তেজী’, ‘চাঁ’দাবাজ’, ‘প্রে’ম প্র’তিশোধ’, ‘টাইগার’, ‘রাগ-অনুরাগ’, ‘দাগী স’ন্তান’, ‘বাঘা-বাঘিনী’,

‘আলিফ লায়লা’, ‘স্বপ্নের নায়ক’, ‘আঞ্জুমান’, ‘অজানা শ’ত্রু’, ‘দেশদ্রোহী’, ‘প্রে’ম দিওয়ানা’, ‘আমা’র মা’, ‘পাগ’লা বাবুল’, ‘শ’ক্তির লড়াই’, ‘দলপতি’, ‘পাপী স’ন্তান’, ‘ঢাকাইয়া মা’স্তান’, ‘বিগ বস’, ‘বাবা’, ‘বাঘের বাচ্চা’, ‘বিদ্রোহী সালাউদ্দিন’ ইত্যাদি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here