পর’কী’য়া প্রে’মের ফাঁ’দে ফে’লে চাচাতো ভাইয়ের স্ত্রী’কে নিয়ে উধাও দেবর শহিদুল ইস’লাম। স্বা’মী-স’ন্তান ফে’লে দেবরের হাত ধরে পা’লিয়েছে মানিকগঞ্জ সদর উপজে’লার বান্দুটিয়া গ্রামের নুর ইস’লামের স্ত্রী’ তাসমিন।

দুই শি’শুসহ তিন স’ন্তানকে নিয়ে চ’রম বিপাকে পড়েছে স্বা’মী নুর ইস’লাম। স’ন্তানদের ভবি’ষ্যতের কথা চিন্তা করে স্ত্রী’কে ফিরে পেতে মানিকগঞ্জ সদর থা’নায় একটি লিখিত অ’ভিযোগ দা’য়ের করেছেন নুর ইস’লাম। লিখিত অ’ভিযোগ করার পর ২ মাস পেরিয়ে গেলেও স্ত্রী’কে ফেরত পাননি অ’সহায় স্বা’মী নুর ইস’লাম।

জানা গেছে, মানিকগঞ্জ সদর উপজে’লার পশ্চিম বান্দুটিয়া গ্রামের চান মিয়ার ছে’লে শহিদুল ইস’লাম পাশর্^বর্তী গ্রামের বান্দুটিয়া এলাকার নুর ইস’লামের স্ত্রী’ তাসমিন ইস’লামকে বিভিন্ন ভাবে ভু’ল বুঝিয়ে ফুসলিয়ে প্রে’মের ফাঁ’দে ফে’লে।

ওই প্রে’মের জেরে তাসমিন ইস’লাম গত বছরের ১১ আগষ্ট দুই শি’শুসহ তিন স’ন্তানকে ফে’লে পা’লিয়ে যায়। এরপর অনেক খোঁজাখুজি করার পর নুর ইস’লামের স্ত্রী’ তাসমিন ইস’লামকে শহিদুলের কাছ থেকে উদ্বার করে।

গৃহবধু তাসমিন ইস’লামের স্বা’মী নুর ইস’লাম জানান, শহিদুল স’ম্পর্কে আমা’র চাচাতো ভাই। সেই সুবাদে সে আমা’র বিবাহীত স্ত্রী’কে বিভিন্নভাবে ফুসলিয়ে প্রে’মের ফাঁ’দে ফে’লে প্রথমে একবার পা’লিয়ে যায়।

পরে স্থানীয়ভাবে শালিশের মাধ্যমে আমা’র স্ত্রী’কে ফেরত দেয় শহিদুল। এরপর বেশকিছু দিন আমা’র স্ত্রী’কে নিয়ে সংসার করতে থাকি। এমতাবস্থায় গত ১৪ জানুয়ারি ভোরে পুনরায় আমা’র স্ত্রী’কে নিয়ে পা’লিয়ে যায় শহিদুল।

পা’লিয়ে যাওয়ার সময় নগদ ৬০ হাজার টাকা এবং দুই ভরি ওজনের স্বর্নালংকার হাতিয়ে নেয়। অনেক খোঁজাখুজির পর আমা’র স্ত্রী’কে এবং শহিদুলকে কোথায়ও না পেয়ে মানিকগঞ্জ সদর থা’নায় একটি লিখিত অ’ভিযোগ দা’য়ের করি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here